রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯
  • প্রচ্ছদ » » নির্বাচন, শুটিং দুইয়ে ব্যস্ত মৌসুমী



নির্বাচন, শুটিং দুইয়ে ব্যস্ত মৌসুমী


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
14.10.2019

নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন আসন্ন। ২৫ অক্টোবর বাংলাদেশ শিল্পী সমিতির ২০১৯-২১ মেয়াদি নির্বাচন। এবারই প্রথম সভাপতি লড়ছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী। ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে মৌসুমীর নতুন ছবির কাজ। পুলিশ বাহিনীর অবদানের গল্প নিয়ে নির্মিত হচ্ছে ‘অর্জন-৭১’ নামে চলচ্চিত্র। এতে অভিনয় করছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী। চিত্রনাট্য, সংলাপ ও পরিচালনা করছেন মির্জা সাখাওয়াত হোসেন। এফডিসিতে মৌসুমী এখন নির্বাচনের প্রচারণা এবং নতুন ছবির শুটিং—দুই নিয়েই ব্যস্ত সময় পার করছেন।

জানা গেছে, ১০ অক্টোবর থেকে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন করপোরেশন (এফডিসি) প্রাঙ্গণে ছবিটির শুটিং শুরু হয়েছে। মৌসুমী জানান, ‘মুক্তিযুদ্ধে পুলিশ বাহিনীর অবদানকে কেন্দ্র করে ছবির গল্পটি একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে। যুদ্ধের সময়ে এক বিপদগ্রস্ত নারী ফিরোজা। সে চরিত্র মৌসুমী অভিনয় করছেন। তিনি বলেন, ‘এটিও আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া। মুক্তিযুদ্ধকালীন এ ধরনের চরিত্রে কাজ করাটাও একজন শিল্পীর জন্য সম্মানের। সে সময় যে বাস্তবতার মুখোমুখি হয়েছিলেন ফিরোজা, তা বাস্তবে রূপ দেওয়া হয়তো কঠিন, কিন্তু নিজেকে তৈরি করেই কাজটি করছি।’

শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা পুলিশ অফিসার আবদুল কাদের মিয়ার মুক্তিযুদ্ধে বিশাল অবদান ছিল। তিনি মুক্তিযুদ্ধের সময় পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা ছিলেন। ১৯৭১ সালের ২৭ মার্চ লাল–সবুজের জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধে যোগ দিয়েছিলেন তিনি। একই বছরের ১ জুন তাঁকে হত্যা করা হয়। এ সিনেমায় মুক্তিযোদ্ধা আবদুল কাদের মিয়ার চরিত্রে অভিনয় করবেন শতাব্দী ওয়াদুদ। তাঁর স্ত্রীর চরিত্রে দেখা যাবে মৌসুমীকে। এ ছাড়া ছবিটিতে আরও অভিনয় করছেন ফজলুর রহমান বাবু, এস এম মহসিন, দিলারা জামান প্রমুখ।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী মৌসুমী অভিনয়ের পাশাপাশি চলচ্চিত্র পরিচালনা, প্রযোজনাও করেছেন তিনি। এবারই তিনি চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সভাপতি পদে মিশা সওদাগরের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এফডিসিতে তাঁকে দেখা যায় শুটিংয়ের ফাঁকে ফাঁকে নির্বাচনের জনসংযোগ করতে। তিনি বলেন, ‘শিল্পীরা আমার আপনজন। তাঁদের জন্য আরও ভালোভাবে কাজ করার লক্ষ্যে এবার সভাপতি পদে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। অনেকেই চাইছে, তাই নির্বাচনে অংশ নেওয়ার বিষয়ে মত দিয়েছি। অসহায় শিল্পীদের ভোটাধিকার কেড়ে নেওয়ার প্রতিবাদের ভাষা হিসেবেই আমি নির্বাচন করছি।’

প্রকাশিত চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকায় প্যানেল ও স্বতন্ত্র মিলিয়ে বাকি ১৮ পদের জন্য চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকায় আছেন সভাপতি পদে মিশা সওদাগর ও মৌসুমী। সাধারণ সম্পাদক পদে ইলিয়াস কোবরা ও জায়েদ খান। দুটি সহসভাপতি পদে ডিপজল, রুবেল ও নানা শাহ। সহসাধারণ সম্পাদক পদে আরমান ও সাংকোপাঞ্জা, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে নূর মোহাম্মদ খালেদ আহমেদ ও মামুনুন ইমন। সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক পদে জাকির হোসেন ও ডন। ১১টি কার্যকরী সদস্য পদের জন্য লড়বেন ১৪ জন। তাঁরা হলেন অঞ্জনা সুলতানা, অরুণা বিশ্বাস, আলীরাজ, আফজাল শরীফ, আসিফ ইকবাল, আলেকজান্ডার বো, জেসমিন, জয় চৌধুরী, নাসরিন, বাপ্পারাজ, মারুফ আকিব, রোজিনা, রোঞ্জিতা ও শামীম খান।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি