রবিবার ১৭ নভেম্বর ২০১৯
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » বিএনপির কারণেই বাংলাদেশ থেকে বের করা যাচ্ছে না রোহিঙ্গাদের



বিএনপির কারণেই বাংলাদেশ থেকে বের করা যাচ্ছে না রোহিঙ্গাদের


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
14.10.2019

নিউজ ডেস্ক: মিয়ানমারের অব্যবস্থাপনায় দ্বিতীয় দফায় রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া পিছিয়ে গেলেও বাংলাদেশ সরকার মানবিকতা বিবেচনায় জোর করে একজন রোহিঙ্গাকেও ফেরত পাঠায়নি। বাংলাদেশের মানবিকতা ও সহায়তার সুযোগ নিয়ে কিছু এনজিও রোহিঙ্গাদের রাজনৈতিক সমাবেশও করিয়েছে। এছাড়া বাংলাদেশ না ছাড়ার জন্য রোহিঙ্গাদের নানা উসকানি দেয়ার অভিযোগও রয়েছে একাধিক এনজিওর বিরুদ্ধে। রোহিঙ্গাদের দেশীয় অস্ত্র সরবরাহসহ উসকানি দেয়ার অভিযোগে দুটি এনজিওর কার্যক্রম স্থগিত করেছে সরকার। জানা যায়, কিছু এনজিও এবং কুচক্রী মহলের সহায়তায় রোহিঙ্গারা অবৈধভাবে মোবাইল ব্যবহার করছিলো।

আর এই অবৈধ মোবাইল সংযোগের মাধ্যমে গ্রুপ চ্যাটিং করে রোহিঙ্গারা বিশাল সমাবেশ করেছে বলেও জানা যায়। সমাবেশ আয়োজনে কক্সবাজার জেলা বিএনপির নেতারা রোহিঙ্গা নেতাদের সার্বিক সহায়তা দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বলা হচ্ছে, সরকারকে জিম্মি করতে রোহিঙ্গাদের ব্যবহার করেছে বিএনপি।

একাধিক দায়িত্বশীল সূত্রের বরাতে রোহিঙ্গা সমাবেশে বিএনপি নেতাদের ইন্ধন ও সহযোগিতার বিষয়টি সম্পর্কে জানা গেছে।

একটি সূত্র বলছে, কক্সবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি শাহজাহান চৌধুরীর ইন্ধনে উখিয়ার কুতুপালং মধুরছড়া (ক্যাম্প-৪) আশ্রয় শিবিরের তিনটি পাহাড় ও মাঠে জড়ো হয়েছিলো লাখো রোহিঙ্গা। মুহিব উল্লাহ, সৈয়দ উল্লাহ, নারীনেত্রী হামিদা বেগমের মতো রোহিঙ্গা নেতাদের আর্থিক অনুদানও দিয়েছেন জেলা বিএনপির এই নেতা। এসব নেতাদের মোবাইল সিমও কিনে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে শাহজাহান চৌধুরীর বিরুদ্ধে। শাহজাহান চৌধুরীর অনুসারীরা নিয়মিতভাবে রোহিঙ্গা নেতাদের সাথে যোগাযোগ রাখছেন এবং কোনোভাবেই যেন রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে ফেরত না যায় সেবিষয়ে রোহিঙ্গাদের ইন্ধন দিচ্ছে বলেও জানা গেছে।

সূত্রটি এও জানায়, রোহিঙ্গাদের ব্যবহার করে বিএনপির উপর থেকে সরকারের দৃষ্টি সরাতে এসব করা হচ্ছে। রোহিঙ্গাদের নিয়ে সরকার ব্যস্ত হয়ে পড়লেই বিএনপি দাবি আদায়ের নামে রাজপথে নেমে আন্দোলন করতে পারবে, এমন মতবাদ থেকেই রোহিঙ্গাদের দ্বারা পরিস্থিতি উত্তপ্ত করতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে বিএনপি। জানা গেছে, হাইকমান্ডের নির্দেশে শাহজাহান চৌধুরী ও তার অনুসারীরা রোহিঙ্গাদের নিয়ে বিশেষ মিশন কমপ্লিট করতে কাজ করছে। এই মিশন সফল হলে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে আরো কিছুদিন বসবাস করার বিষয়ে কাজ করবে বিএনপি। সেজন্য রোহিঙ্গা নেতাদের সমাবেশের খরচ এমনকি তাদের সমাবেশের ব্যানার, ফেস্টুন, পোশাক দিয়ে সহায়তা করেছে বিএনপি।

এদিকে রোহিঙ্গাদের নিয়ে বিএনপি নেতাদের এমন রহস্যময় আচরণ ও বক্তৃতায় শঙ্কিত কক্সবাজারের স্থানীয় জনগণ। তারা বলছেন, রোহিঙ্গা সংকট নিয়ে একটি রাজনৈতিক দল ফায়দা লুটতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে। যার কারণে স্থানীয়দের প্রতিনিয়ত আতঙ্কে দিন অতিবাহিত করতে হচ্ছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি