বুধবার ১৩ নভেম্বর ২০১৯



তিন মাদরাসাছাত্রকে শিকলমুক্ত করলেন ইউএনও


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
08.11.2019

নিউজ ডেস্ক: অবশেষে শিকলমুক্ত হল কালীগঞ্জের ভাইয়াসূতি হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার সেই তিন ছাত্র। বুধবার ‘তিন মাদরাসাছাত্রের শিকলবন্দী শৈশব!’ সংবাদটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত হলে ইউএনও মো. শিবলী সাদিকের নজরে আসে।

উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তাকে সঙ্গে নিয়ে ভাইয়াসূতি হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানায় যান ইউএনও। সেখানে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পান এবং ওই মাদরাসার হেফজখানার ওই তিন ছাত্র ইফাদ, ইয়াসিন ও আজিজুলকে শিকলমুক্ত করেন। পাশাপাশি এই ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি না হওয়ার জন্য মাদরাসার শিক্ষক ও পরিচালনা কমিটিকে সতর্ক করেন।

স্থানীয়রা বলেন, লোহার শিকলে তালায় অবরুদ্ধ শৈশব নয়। হাসি, খেলা আর আনন্দের ছলে হউক শিশুদের শিক্ষা জীবন। ভবিষ্যতে মানুষের মত মানুষ হউক। কোন শিক্ষকের নির্যাতনের শিক্ষা নিয়ে তারাও যেন ওই শিক্ষকদের মত না হয়ে যায়। পাশাপাশি মানুষরুপী ওই অমানুষদের যথাযথ আইনের আওতায় আনার দাবিও স্থানীয়দের।

এ সময় কালীগঞ্জের সাংবাদিকদের ধন্যবাদ জানিয়ে ইউএনও মো. শিবলী সাদিক বলেন, আপনাদের এই ধরনের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনের জন্য আমাদের কাজ করা সহজ হয়। তবে বিষয়টি খুবই ন্যাক্কারজনক। প্রাথমিকভাবে আমরা ঘটনার সত্যতা পেয়েছি। ঘটনাস্থলে গিয়ে ছাত্র-শিক্ষক, অভিভাবক ও মাদরাসা পরিচালনা পর্যদের সঙ্গে কথা বলেছি।

তিনি আরো বলেন, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মদ জুবের আলমকে প্রধান করে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নূর-ই-জান্নাত ও উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. শাহাদাৎ হোসেনসহ তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সাত কর্ম দিবসের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের কথা বলা হয়েছে। সেই প্রেক্ষিতে আমরা যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নিবো।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি