রবিবার ৮ ডিসেম্বর ২০১৯



পদত্যাগকারীদের ঝুলিয়ে রাখার কৌশলে বিএনপি, সিদ্ধান্তে অনড় দলত্যাগীরা


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
16.11.2019

নিউজ ডেস্ক: বিএনপির শীর্ষ নেতাদের দলত্যাগ এখন ‘টক অব দ্য পলিটিক্সে’ রূপান্তরিত হয়েছে। ফলে বিপাকে রয়েছে বিএনপি। নেতাদের এমন সিদ্ধান্ত একদিকে যেমন দলটির ভাবমূর্তিতে আঘাত হেনেছে তেমনি অস্তিত্ব সংকটে ফেলেছে নেতাদের। যে কারণে পদত্যাগকারী নেতাদের ঝুলিয়ে রেখে পদত্যাগ সিদ্ধান্ত থেকে ফেরাতে কৌশল অবলম্বন করছে বিএনপির হাইকমান্ড। যদিও পদত্যাগ সিদ্ধান্তে অনড় দলত্যাগীরা।

মোরশেদ খান, লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান ও সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর বিএনপি থেকে পদত্যাগ দলের ভেতরে এবং বাইরে এখন বেশ আলোচিত। এদের মধ্যে দুজন ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে পদত্যাগ করেছেন। তবে আরিফুল হকসহ সিলেটের চার বিএনপি নেতা যুবদলের কমিটি গঠনের দ্বন্দ্বে পদত্যাগ করেছেন বলে জানা গেছে। মূলত তারেক রহমানের নেতৃত্বের অনীহা থেকেই নেতারা এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

এদিকে বিএনপির এসব নেতা পদত্যাগপত্র জমা দিলেও এদের কারো পদত্যাগপত্র নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি বিএনপি। কিন্তু বিএনপি থেকে শীর্ষ নেতাদের পদত্যাগের তালিকা ক্রমশ লম্বা হচ্ছে বলেও গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে রাজনৈতিক অঙ্গনে। গত কয়েক বছরে বিএনপি ছেড়েছেন মোসাদ্দেক আলী ফালু, আলি আসগর লবি, শমসের মুবিন চৌধুরী, ইনাম আহমেদ চৌধুরী, পারটেক্স গ্রুপের এম এ হাসেমসহ আরেও কিছু নেতা।

সূত্র বলছে, বিএনপিতে এখন এই পদত্যাগী, নিষ্ক্রিয় এবং অবসরপ্রাপ্তদের ঝুলিয়ে রাখার কৌশল গ্রহণ করা হয়েছে। কারণ দলে তাদের অতীতের অবদান এবং ভবিষ্যতে যদি কখনো সক্রিয় হন, সেই আশায়। তাই দু-একজন ছাড়া আর কারোরই পদত্যাগপত্র গ্রহণ করছে না বিএনপি। এছাড়া নিষ্ক্রিয়দের বেশি কিছু বলছেন না তারা।

তবে পদত্যাগকারী নেতাদের কাছে বিএনপির এমন কৌশল সম্পর্কে জানতে যোগাযোগ করা হলে কোনো ফলপ্রসূ মন্তব্য পাওয়া যায়নি। তারা প্রত্যেকেই বলছেন, ‘আমরা আমাদের সিদ্ধান্ত অনড়, বিএনপির কৌশল তার নিজস্ব ব্যাপার।’



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি