মঙ্গলবার ১১ অগাস্ট ২০২০
  • প্রচ্ছদ » Breaking » ব্যর্থতায় হারাবেন পদ, গুণতে হবে জরিমানা- আতঙ্কে ফখরুল-রিজভীরা!



ব্যর্থতায় হারাবেন পদ, গুণতে হবে জরিমানা- আতঙ্কে ফখরুল-রিজভীরা!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
08.12.2019

নিউজ ডেস্ক: দুর্নীতি মামলায় বেগম জিয়ার কারাবাসের প্রায় দুবছরের মাথায় এসে নতুন করে রাজপথে নামতে চায় বিএনপি। ১২ ডিসেম্বর বেগম জিয়ার জামিন বিষয়ে চূড়ান্ত রায় দেবেন উচ্চ আদালত। মূলত এই রায়কে কেন্দ্র করে রাজপথে সরব হতে চায় বিএনপি।

তবে জানা গেছে, ১২ তারিখে রায় বিপক্ষে গেলে রাজপথে আন্দোলন করে দাবি আদায় করতে না পারলে দলের স্থায়ী কমিটিসহ গুরুত্বপূর্ণ অন্যান্য কমিটিতে ব্যাপক পরিবর্তন আনবেন লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। আর আন্দোলনে ব্যর্থতায় পদ হারানো অন্যান্য সম্ভাব্য শাস্তির বিষয়ে জানতে পেরে আতঙ্কে দিনাতিপাত করছেন মির্জা ফখরুলসহ বিএনপির দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দ। শুধু পদ হারানো নয়, বরং বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে ব্যর্থ হলে ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হবেন- এমন শঙ্কা ভর করেছে ফখরুল-রিজভীদের মনে। বিএনপির একাধিক দায়িত্বশীল সূত্রের বরাতে বেগম জিয়ার মুক্তি ও নেতাদের অস্থিরতার বিষয়ে জানা গেছে।

লন্ডন-ভিত্তিক বিএনপির একটি দায়িত্বশীল সূত্র বলছে, ১২ ডিসেম্বর বেগম জিয়ার রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ নির্ধারণ হবে। রায় বিপক্ষে গেলে বেগম জিয়া বিএনপির রাজনীতিতে ইতিহাসে পরিণত হবেন। তারেক রহমান এই চিন্তায় বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছেন। তাই তিনি রায় বিপক্ষে গেলে বিএনপির সকল স্তরের নেতা-কর্মীদের রাজপথে নেমে প্রতিবাদ ও প্রতিরোধ করার পরামর্শ দিয়েছেন। প্রয়োজনে লাগাতার কর্মসূচি, অসহযোগ আন্দোলন করারও নির্দেশনা দেয়া হয়েছে লন্ডন থেকে। আর নির্দেশনার ব্যত্যয় ঘটলে মির্জা ফখরুল, মির্জা আব্বাস ও রিজভী আহমেদদের পদ থেকে সরিয়ে দেয়ারও ঘোষণা দিয়েছেন তারেক। বেগম জিয়ার মুক্তিতে চূড়ান্ত ব্যর্থ নেতাদের কোনো ছাড় দিতে রাজি নন তিনি। দলকে বাঁচাতে হলে প্রয়োজনে তিনি আরো কঠোর হবেন বলেও আভাস দিয়েছেন।

এদিকে নয়াপল্টন কেন্দ্রিক বিএনপির একটি গোপন সূত্র বলছে, বেগম জিয়ার মুক্তি আদায়ে ব্যর্থতার সম্ভাব্য পরিণতির বিষয় নিয়ে চিন্তায় পড়েছেন সিনিয়র নেতারা। এতদিন নানা অজুহাতে আন্দোলন গড়ে না তুলতে পেরে পদে বহাল থাকলেও তারেক রহমানের চূড়ান্ত হুংকারে সিনিয়র নেতাদের মনে শঙ্কা ও ভীতি ভর করেছে। আন্দোলন জমাতে না পারলে দলীয় পদ-পদবি হারানোর পাশাপাশি গুণতে হতে পারে আর্থিক জরিমানা- এমন আতঙ্কে দিন পার করছেন মির্জা ফখরুলরা। পদের পাশাপাশি সম্মানহানি ও গঞ্জনার ভয়ে অনেক নেতাই ১২ ডিসেম্বর নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন বলেও জানা গেছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি