সোমবার ১ জুন ২০২০



এবার ট্রেনে ‘অনলাইন টিকিট’ দিয়েই করা যাবে ভ্রমণ


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
16.03.2020

নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ রেলওয়ের সূত্রে জানা গেছে, ওয়েবসাইট বা অ্যাপ থেকে ট্রেনের টিকিট সংগ্রহের পর স্টেশনে গিয়ে প্রিন্টের প্রয়োজন নেই। এখন থেকে ‌‘অনলাইন টিকিট’ দিয়ে ভ্রমণ করা যাবে ট্রেনে।

সূত্র জানায়, অনলাইনে টিকিট সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট যাত্রী নিজে ভ্রমণ করলে কাউন্টার থেকে পুনরায় উক্ত টিকিটের প্রিন্ট করে নেয়ার বাধ্যবাধকতা নেই মর্মে স্টেশন ও ট্রেনে কর্মরত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীকে জানিয়ে দেয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। গত ২৬ ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশে রেলওয়ে (পশ্চিম) এর সহকারী চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার শেখ আব্দুল জব্বার এক চিঠিতে সংশ্লিষ্টদের এই নির্দেশনা দিয়েছেন। রেল সংশ্লিষ্টদের এক সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়।

দীর্ঘদিন ধরে ওয়েবসাইট বা অ্যাপ থেকে ট্রেনের টিকিট সংগ্রহের সুবিধা থাকলেও টিকিট প্রিন্ট নিয়ে মাঝে মধ্যেই যাত্রীরা নানা রকমের হয়রানির শিকার হচ্ছিলেন। নতুন সিদ্ধান্তের ফলে যাত্রী সুবিধা বৃদ্ধিতে রেল আরও একধাপ এগিয়ে গেল বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। এক্ষেত্রে ওয়েবসাইট বা অ্যাপ থেকে সংগ্রহ করা টিকিটের পিডিএফ এর প্রিন্ট কপি সঙ্গে রাখলেই হবে।

এদিকে রেল স্টেশনে গিয়ে টিকিট কাটার সময় বা সুযোগ হয় না অনেকেরই। গেলেও আবার কাউন্টারে প্রায়ই টিকিট থাকে না বা থাকলেও টিকিট কাটার মতো পরিস্থিতি থাকে না। বর্তমানে এত ঝক্কি-ঝামেলার কোনো দরকার নেই। ট্রেনের টিকিট এখন নিতে পারেন অনলাইনে। এখানে ক্লিক করে জেনে নিতে পারেন অনলাইনে টিকিট পাওয়ার নিয়ম।

এছাড়া আন্তঃনগর সব ট্রেনের ৫০ শতাংশ টিকিট এখন থেকে অ্যাপ, মোবাইল ও অনলাইনের মাধ্যমে পাওয়া যাচ্ছে। ‘রেল সেবা’ নামে মোবাইল অ্যাপ চালু করেছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। এখানে ক্লিক করে জেনে নিন রেল সেবা অ্যাপ দিয়ে যেভাবে ট্রেনের টিকিট কাটবেন।

বাংলাদেশে রেলওয়ের নির্ধারিত ওয়েবসাইট ও অ্যাপ ছাড়াও এখন বিকাশ দিয়ে ট্রেনের টিকিট সংগ্রহ করা যাচ্ছে।

কেনাকাটা, বিল পরিশোধ, অ্যাড মানি, মোবাইল রিচার্জসহ অন্যান্য অনেক সেবার মতোই বিকাশ অ্যাপে টিকিট কেনার এই সুবিধাটি যুক্ত হওয়ায় এখন গ্রাহকদের আর একাধিক অ্যাপ ব্যবহারের প্রয়োজন হবে না।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি