মঙ্গলবার ২ জুন ২০২০



ঈদের পর জামায়াতের ভাগ্য নির্ধারণ করবেন বেগম জিয়া!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
22.05.2020

নিউজ ডেস্ক: দুর্নীতি মামলায় দুবছরের বেশি কারাবাসের পর মুক্তি পেয়ে হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। মুক্তির পর রাজনীতি থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করলেও বিএনপি ও ২০ দলীয় জোটের ভঙ্গুরদশা দেখে অন্তরালে থেকে নির্দেশনা দিতে চান তিনি। পাশাপাশি ঐক্যফ্রন্টকেও শক্তিশালী করতে চান। কিন্তু ২০ দল ও ঐক্যফ্রন্টের আপত্তির মুখে এবার জামায়াতের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিবেন বেগম জিয়া। ঈদের পর জোটে জামায়াতের ভাগ্য নির্ধারণ করবেন বিএনপি নেত্রী, এমনটাই জানা গেছে।

২০ দলীয় জোটের একটি সূত্র বলছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পর থেকে কার্যত নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছে জোটের রাজনৈতিক কার্যক্রম। জামায়াতের অবস্থান নিয়ে অস্বস্তি, যুদ্ধাপরাধীদের প্রশ্রয় দেয়া নিয়ে বিভিন্ন মহলের চাপের কারণে ২০ দলীয় জোটে দীর্ঘদিন ধরে নানা গুঞ্জন চলছিল। কয়েকটি ছোট দল তো জামায়াতকে ২০ দলীয় জোট থেকে বাদ দেয়ার ব্যাপারেও বিএনপিকে চিঠি দিয়েছে। কিন্তু কৌশলগত কারণে বিএনপি নেতারা এতদিন মুখে কুলুপ এঁটেছিলেন। যার ফলে ২০ দলীয় জোটে জামায়াতকে নিয়ে ব্যাপক অশান্তিও ঘটেছে। কিন্তু মুক্তির পর ২০ দলীয় জোটের ভঙ্গুরদশা দেখে জামায়াতের ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে চান বেগম জিয়া। কারণ শত ধিক্কার, ঘৃণা ও সমালোচনার সত্ত্বেও যে আশায় জামায়াতকে নিজের আচলের নিচে আশ্রয় দিয়েছিলেন বেগম জিয়া, সেই আশায় গুড়ে বালি। সাংগঠনিক শক্তি হারিয়ে জামায়াত এখন নির্জীব সংগঠনে পরিণত হয়েছে। বলা চলে বিলুপ্তি পথে হাঁটছে যুদ্ধাপরাধীদের সংগঠনটি। বিএনপি ও ২০ দলের কোন অনুষ্ঠান, আন্দোলনে জামায়াতের পাত্তা মেলে না। যার কারণে, জামায়াতকে নিয়ে আর ভাবতে চান না বেগম জিয়া। তিনি জামায়াতের কলঙ্কের বোঝা আর বইতে চান না। ফলে আগামী ঈদের পরই জামায়াতকে পরিত্যাগ করার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত দিতে পারেন বেগম জিয়া, এমন গুঞ্জন চাউর হচ্ছে ২০ দলীয় জোটের রাজনীতিতে।

অন্য একটি সূত্র বলছে, ২০ দলের পাশাপাশি জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট তথা ড. কামালের ঘোর আপত্তির কারণে বাধ্য হয়ে জামায়াতকে ত্যাগ করতে হচ্ছে বেগম জিয়াকে। কারণ জামায়াতের সাংগঠনিক শক্তি হারিয়ে গেছে, সুতরাং জামায়াতকে সাথে রাখা মানে বোকামি করা। এছাড়া ঐক্যফ্রন্টের মাধ্যমে বিএনপি নির্বাচনের আগে কিছুটা হলেও ঘুরে দাঁড়িয়েছিল। তাই যুদ্ধাপরাধীর চেয়ে বুদ্ধিদীপ্ত ড. কামালদের বেশি প্রাধান্য দিবেন বেগম জিয়া। যার কারণে জামায়াতকে ব্রাত্য ঘোষণা করা ছাড়া বিকল্প কোন পথ নেই বিএনপি নেত্রীর হাতে। আর ঈদের পর ২০ দলীয় জোটে নির্ধারিত হতে পারে জামায়াতের ভাগ্য।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি