সোমবার ১ জুন ২০২০



‘মোটরসাইকেল বিক্রি’ করে ত্রাণ দেয়ার মিথ্যে দাবি তারেকের


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
23.05.2020

নিউজ ডেস্ক: দেশে উদ্ভূত করোনাভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকার যখন নিরলস পরিশ্রম করছে, তখন একের পর এক অপকর্ম আর মিথ্যাচার করে বিতর্কের জন্ম দিচ্ছে বিএনপি নেতাকর্মীরা। এবার তারই ধারাবাহিকতায় দলের খোদ ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ফেসবুক লাইভে এসে ‘মূল্যবান সামগ্রী’ বিক্রি করে নিজ দলের নেতাকর্মীরা মানুষের সহায়তা করেছেন বলে মিথ্যে দাবি করেছেন। তার এই মিথ্যাচারিতার ফলে ফেসবুকজুড়ে বইছে নিন্দার ঝড়।

দায়িত্বশীল একটি সূত্র বলছে, শুক্রবার (২২ মে) এক ফেসবুক লাইভে আসেন লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। সেখানে তিনি চলমান করোনা সংকটে সরকারের ইতিবাচক কর্মতৎপরতাকে ‘ব্যর্থতার মুকুট’ পরিয়ে এই দুর্যোগময় সময়ে মানুষের কল্যাণে সব তার নিজ দলের কর্মীরা করছেন বলে দাবি করেন। অথচ নিদারুণ বাস্তবতা এই যে, বিএনপি নেতাকর্মীরা ত্রাণ দেয়ার নামে অর্ধ পচা গলা খাবার দিয়ে সহায়তা গ্রহীতার মতের অমতে ফটোসেশনসহ নানা অপকর্মে লিপ্ত রয়েছে।

প্রায় ১৯ মিনিট ব্যাপী ওই ফেসবুক লাইভে মিথ্যাচার করে তারেক বলেন, তার দলের নেতাকর্মীরা করোনা দুর্গতদের সহায়তায় নিজের শখের মোবাইল, মোটরসাইকেল এমনকি স্ত্রীর গহনাসহ মূল্যবান সামগ্রী বিক্রি করে দিয়েছেন। কিন্তু খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে, এসব কাজ করেছেন সরকার দলীয় লোকজনরা। যেমন, ফেনীতে শখের মোটরসাইকেল বিক্রি করে ত্রাণ সহায়তা কার্যক্রমে অংশ নিয়েছেন আওয়ামী রাজনীতির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান মোজাম্মেল।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ফেনী পৌরসভার ৭ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর বাহার উদ্দিন বলেন, মোজাম্মেল অত্যন্ত মানবিক ও খুব ভালো ছেলে। যেকোনো সেবামূলক কাজে সব সময় তাকে পাওয়া যায়। নিজের শখের মোটরসাইকেল বিক্রি করে কর্মহীন অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। এটা সবাই পারে না।

শখের মোবাইল বা স্ত্রীর গহনা বিক্রি করে সহায়তার যে মিথ্যে দাবি তারেক করেছেন, অনুসন্ধানে তারও কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে দেশের রাজনৈতিক বিজ্ঞজনরা বলছেন, কৃতিত্ব অন্যের কিন্তু সেটা নিজেদের বলে দাবি করা বিএনপির পুরনো অভ্যাস। ইতোপূর্বে তারা দেশের বিভিন্ন উন্নয়ন না করেও সেই কৃতিত্ব নিজেদের বলে দাবি করেছে। তাই তাদের মিথ্যাচারে বিভ্রান্ত না হয়ে বরং তা রুখে দেয়াই হবে প্রকৃত বুদ্ধিমানের পরিচয়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি