শনিবার ৪ জুলাই ২০২০
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » করোনায় পাশে নেই হাইকমান্ড, হতাশ তৃণমূল বিএনপির নেতৃবৃন্দ!



করোনায় পাশে নেই হাইকমান্ড, হতাশ তৃণমূল বিএনপির নেতৃবৃন্দ!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
22.06.2020

নিউজ ডেস্ক: করোনাভাইরাস মোকাবিলার পাশাপাশি দেশের অসহায়-দুস্থ মানুষদের মাঝে খাদ্য ও নগদ অর্থ বিতরণ করে বিভিন্ন মহলে প্রশংসিত হয়েছে সরকার। অন্যদিকে সাধারণ মানুষতো দূরে থাক দলীয় নেতাকর্মীদের পর্যাপ্ত সহায়তা না দেয়ার অভিযোগ উঠেছে বিএনপির বিরুদ্ধে। জানা গেছে, করোনা পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের অকল্পনীয় নীরবতায় হতাশ দলটির তৃণমূল নেতৃবৃন্দ। সংকটে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে কোন সহযোগিতা না পাওয়ায় চরম ক্ষুব্ধ তৃণমূল নেতা-কর্মীরা।

তথ্যসূত্র বলছে, করোনা সংকটের শুরুর দিকে হাতেগোনা কয়েক’শ কর্মীদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করলেও হাজার হাজার কর্মীরা বিএনপির তরফ থেকে কোন সহায়তা পাননি। চলমান দুর্যোগে প্রভাবশালী নেতারা ত্যাগী কর্মীদের পাশে নেই। তারা এলাকার খোঁজ-খবর নেন না। কিন্তু নির্বাচন এলে দেখা যায় নানা রকম প্রতিশ্রুতি নিয়ে মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়ান এসব মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। সে সময় তারা লাখ লাখ টাকা খরচ করলেও এই ভয়াবহ দুর্যোগের সময় এক টাকাও বের করতে চান না। দলের বিত্তশালী কেন্দ্রীয় নেতাদের কৃপণতায় তৃণমূলে চরম অসন্তোষ ও ক্ষোভ বিরাজ করছে। কেবলমাত্র ভোটের সময় এলে অবহেলিত কর্মীদের কদর বাড়ে বলেও অভিযোগ পাওয়া গেছে।

করোনা সংকটে হাইকমান্ডের অবহেলার বিষয়ে জানতে চাইলে রংপুর বিভাগীয় বিএনপির একাধিক সিনিয়র নেতা পরিচয় গোপন রাখার শর্তে বলেন, ভোট এলেই কেবল তৃণমূল নেতা-কর্মীদের খোঁজ রাখে কেন্দ্র। বাকি সারা বছর হাইকমান্ডের তরফ থেকে কোন খোঁজ নেয়া হয় না। বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের প্রয়োজনে কাছে পাওয়া যায় না। করোনা সংকটে শুরুর দিকে দুস্থ কর্মীদের কিছু সহায়তা দেয়া হলেও এখন পুরোপুরি বন্ধ। বাধ্য হয়ে তারা ক্ষুধা মেটাতে সরকারি ত্রাণ গ্রহণ করছেন। এতে করে দলের প্রতি তৃণমূলের অনাস্থা আরো বাড়ছে যা আগামীতে ভোটের রাজনীতিতে বিএনপির জন্য নেতিবাচক হতে পারে। করোনা দুর্যোগে বিএনপির হাজারো নেতা লেজ গুটিয়ে বসে থাকায় চরম হতাশ ও ক্ষুব্ধ দলের কর্মীরা। কেন্দ্রের প্রতি তারা আস্থা হারিয়ে ফেলছেন।

রংপুরের মতো পুরো দেশে প্রায় একই অবস্থা বিএনপির। নরসিংদী, কিশোরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ময়মনসিংহ, লালমনিরহাট, সিলেট, বরিশাল, ভোলা, চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, রাঙামাটি, খাগড়াছড়ি, বান্দরবন, রাজশাহী, রংপুর, দিনাজপুর, পঞ্চগড়, পাবনা, ঈশ্বরদী, ঝিনাইদহ, যশোর, কুষ্টিয়া, চাঁদপুর, লক্ষ্মীপুর, নোয়াখালীসহ প্রায় প্রতিটি জেলায় নেই বিএনপির কোন ত্রাণ তৎপরতা। জনগণ তো দূরে থাক দলীয় কর্মীদেরই কোন সহায়তা করা হচ্ছে না।

ত্রাণ তৎপরতায় অনীহা ও তৃণমূল কর্মীদের হতাশার বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য পরিচয় গোপন রেখে ক্ষোভ নিয়ে বলেন, দলের বেহাল দশার জন্য শীর্ষ নেতারা দায়ী। মনিটরিং সেল গঠন করা হলেও কর্মীরা পাচ্ছেন না পর্যাপ্ত সহায়তা। বিষয়টি বেগম জিয়া ও তারেক রহমানকে জানানো হয়েছে। বিপদের দিনে কর্মীদের পাশে না দাঁড়ালে তারাও দলের দুর্দিনে পাশে দাঁড়াবে না, এটিই মূল কথা। তবে আমরা চেষ্টা করছি এসব অনিয়ম দূর করতে। আশাকরি স্বল্প পরিসরে হলেও কর্মীদের ত্রাণ ও অর্থ সহায়তা দেয়া হবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি