শনিবার ৪ জুলাই ২০২০
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » গুজব সেলের টার্গেট এবার সাবেক অর্থমন্ত্রী, সতর্ক থাকার আহ্বান



গুজব সেলের টার্গেট এবার সাবেক অর্থমন্ত্রী, সতর্ক থাকার আহ্বান


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
25.06.2020

নিউজ ডেস্ক: জনসমর্থন হারিয়ে রাজনীতি স্থবির হয়ে পড়লেও গুজব ও মিথ্যাচার সচল রেখেছে দেশ-বিরোধী একটি চক্র। দেশ ও বিদেশ থেকে পরিচালিত গুজব সেলের মাধ্যমে সরকার ও সরকারি দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত মনগড়া তথ্য ছড়িয়ে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে ওই চক্রের কর্মীরা।

এরই অংশ হিসেবে এবার সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের পরিবারকে নিয়ে ফেসবুকে গুজব ছড়িয়েছে এই কুচক্রী মহল।

ফেসবুকের সেই গুজবে উল্লেখ করা হয়, সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতকে তার ধানমন্ডির নিজের বাড়িতে উঠতে দিতে চাইছেন না ছেলে শাহেদ মুহিত! বাবা-মাকে বাড়িতে উঠতে না দিলেও বাড়ি ভাড়া করে তাদের থাকার ব্যবস্থা করে দিতে চেয়েছেন শাহেদ! শেষ পর্যন্ত নাকি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হস্তক্ষেপে নিজ বাড়ির দখল পেয়েছেন সাবেক অর্থমন্ত্রী, যা সম্পূর্ণ মিথ্যাচার ও গুজব।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সাবেক অর্থমন্ত্রীর পরিবারে এই ধরনের কোন ঘটনা ঘটেনি। তাছাড়া ধানমন্ডিতে তার কোন বাড়ি নেই। তিনি বর্তমানে তার ছেলে ও পুত্রবধূসহ পুরো পরিবার নিয়ে রাজধানীর বনানীর কামাল আতাতুর্ক অ্যাভিনিউতে থাকেন। এর আগে তিনি গুলশান-২ নম্বরে ছিলেন। পরিবারের সবার সঙ্গেও দারুণ হৃদ্যতাপূর্ণ সম্পর্ক সাবেক এই মন্ত্রীর। এমনকি তার পুত্রবধূকে তিনি সব সময়ই তার মেয়ের মতো স্নেহ করেন এবং তার পুত্রবধূ মানতাহাও তাকে বাবার মতোই সম্মান ও শ্রদ্ধা করেন। পরিবার নিয়ে অবসর জীবন সুখেই কাটাচ্ছেন বলেও জানা গেছে।

এদিকে তথ্য বলছে, বিভিন্ন সময়ে সরকারের বর্তমান ও সাবেক মন্ত্রী এবং এমপিদের ব্যাপারে গুজবের ঘটনা এটাই প্রথম নয়। দেশ ও দেশের বাইরে থেকে সরকার ও সরকারি দলের নেতা-কর্মীদের টার্গেট করে করে মুখরোচক তথ্য দিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে একটি কুচক্রী মহল। জনগণকে বিভ্রান্ত করতেই তারা কৌশলে মিথ্যাচার ছড়াচ্ছে বিভিন্ন মাধ্যমে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে দেশ-বিরোধী একটি চক্র বিভিন্ন সময়ে মনগড়া তথ্য দিয়ে মিথ্যাচার করছে। দেশের বিশিষ্টজনদের হেয়প্রতিপন্ন করতে টার্গেট করে বানিয়ে বানিয়ে মিথ্যাচার ও গুজব ছড়ানো হচ্ছে। করোনা সংকটেও তাদের এই ষড়যন্ত্র অব্যাহত রয়েছে।

দেশ-বিদেশে বসে গুজব সেলের নেতারা এসব অপকর্ম করছেন। দেশের একজন স্বনামধন্য সাবেক অর্থমন্ত্রীকে নিয়ে ছড়ানো এই গুজবের বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। গুজব ছড়িয়ে শুধুমাত্র জনগণের ঘৃণাই পাওয়া যাবে। কারো সম্মানহানি করে কেউ কখনো সম্মানিত হতে পারে না।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি