শনিবার ৪ জুলাই ২০২০
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » দল বাঁচাতে মাজা ভাঙ্গা নয়, যুদ্ধংদেহী মহাসচিব চান তারেক রহমান!



দল বাঁচাতে মাজা ভাঙ্গা নয়, যুদ্ধংদেহী মহাসচিব চান তারেক রহমান!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
25.06.2020

নিউজ ডেস্ক: মামলার ভয়ে যিনি কুঁকড়ে যাবেন না, শত প্রতিকূলতায় সংগঠনকে সঠিক নেতৃত্ব দিতে পারবেন, পিঠ বাঁচানোর ভয়ে ইনিয়ে-বিনিয়ে সরকারের সমালোচনা করবেন- এমন মাজা ভাঙ্গা নয় বরং যুদ্ধংদেহী মনোভাবের নতুন মহাসচিব চান বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

লন্ডন সূত্রে জানা গেছে, দলের কর্মকাণ্ডকে গতিশীল করতে এবং নেতাকর্মীদের মনে সাহস সঞ্চার করে তাদের রাজপথে ফিরিয়ে আনতে মির্জা ফখরুলের মতো নড়বড়ে ও ভীরু মানসিকতার মহাসচিবকে সরিয়ে তুলনামূলক সাহসী, বুদ্ধিদীপ্ত মাঝবয়সী মহাসচিব খুঁজছেন তারেক। কূটনৈতিক ও কৌশলী মহাসচিবের চেয়ে সাহসী, অকুতোভয় ও তৃণমূলে জনপ্রিয় কোন মধ্যবয়সী নেতাকে আগামী কাউন্সিলের মাধ্যমে মহাসচিব নির্বাচন করবেন তারেক রহমান। তারেকের নতুন এই মহাসচিবের গুডবুকে এরই মধ্যে জায়গা করে নিয়েছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি হাবিব-উন নবী খান সোহেল, দলের যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুর মতো আগ্রাসী নেতারা। তবে জনপ্রিয়তা, দলের জন্য নির্যাতনের শিকার হওয়া ও চরম আগ্রাসী মনোভাবের জন্য সোহেলকে আগামীতে দলের মহাসচিব হিসেবে প্রাথমিকভাবে বেছে নিতে পারেন তারেক। কারণ সোহেল মানসিকভাবে শক্তিশালী, দলে রয়েছে তার ব্যাপক জনপ্রিয়তা। এছাড়া তার বিরুদ্ধে কোন পক্ষের সাথে আঁতাত করার কোন অভিযোগও নেই। তাই দলকে খাদের কিনারা থেকে উদ্ধার করতে এবং দলকে চাঙ্গা করতে মির্জা ফখরুলের মতো মাজা ভাঙ্গা ও ভীতু নেতাকে সরিয়ে তরুণ নেতাকে দলের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব দিতে চান তারেক। এক্ষেত্রে সিনিয়রিটি লঙ্ঘন হলেও দলের স্বার্থে সেটি আমলে নেবেন না তারেক।

অন্যদিকে যুক্তরাজ্য যুবদলের একজন সিনিয়র নেতার বরাতে জানা গেছে, বিগত এক দশকে বিএনপির দুর্দশার জন্য বয়োজ্যেষ্ঠ নেতাদের আন্দোলন-বিমুখতা, জেল-জুলম-ভীতি ও পিঠ বাঁচানোর ষড়যন্ত্রকে দায়ী মনে করেন তারেক। বয়সের ভারে ন্যূজ এসব নেতাদের ভুল-ভাল পরামর্শ ও আপোষের নীতির কারণে বিএনপির কপালে দুর্দশা নেমে এসেছে বলেও মনে করছেন তিনি। যার কারণে দল বাঁচাতে কৌশলী ও মেরুদণ্ডহীন নেতাকে সরিয়ে যুদ্ধংদেহী মনোভাবের আগ্রাসী ও সাহসী নেতাকে দলের মহাসচিবের দায়িত্ব দেয়া ছাড়া কোন বিকল্প দেখছেন না তারেক। দলের বয়োজ্যেষ্ঠ মহল এতো নাখোশ হলেও দলের বৃহত্তর স্বার্থে তারেক রহমানকে এমন কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হবে। দলকে বাঁচাতে যে কাউকে সরিয়ে দিতে পিছপা হবেন না তারেক।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি