শনিবার ৪ জুলাই ২০২০



বিএনপিতে নেতাকর্মীদের মাঝে বাড়ছে হতাশা


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
26.06.2020

নিউজ ডেস্ক: বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মুক্তির তিন মাস অতিবাহিত হলেও এখনো উজ্জীবিত হতে পারেননি দলের নেতাকর্মীরা। তৃণমূলসহ শীর্ষস্থানীয় অনেক নেতাই আশা করেছিলেন, খুব শিগগিরই খালেদা জিয়া খোলস ছেড়ে বের হবেন। এছাড়া তিনি দেশের করোনা পরিস্থিতি ও রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলবেন। কিন্তু এই সময়ে খালেদা জিয়া একমাত্র তার পরিবারের সদস্য ও লোকজন ছাড়া কারো সঙ্গে তেমন দেখা-সাক্ষাৎ করছেন না। ফলে বিএনপির মধ্যে খালেদা জিয়াকে নিয়ে বাড়ছে হতাশা।

জিয়া পরিবারের এক ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে, খালেদা জিয়া এখন তার আইনজীবীদের উপর আস্থা হারিয়ে ফেলেছেন। এছাড়া তিনি নিজেও উপলব্ধি করছেন, বিএনপিতে তার চেয়ে এখন তারেক রহমানের গুরুত্ব বেশি। তাই তিনি রাজনীতি থেকে অনেকটা বিমুখ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপিতে একসময়ের প্রভাবশালী ও শীর্ষস্থানীয় এক নেতা বলেন, আমরা রাজনীতিতে আজ চরমভাবে হতাশাগ্রস্ত। ভেবেছিলাম খালেদা জিয়ার মুক্তির পর আমাদের সঙ্গে আলোচনা করবেন। দলের সাংগঠনিক অবস্থা পর্যবেক্ষণ করবেন। দলের মধ্যে কোন্দল নিরসনে বিভিন্ন পরামর্শ দেবেন। অভিমানী নেতাদের ফিরিয়ে আনবেন কিন্তু না, তিন মাস পার হয়ে গেলেও এখনো পর্যন্ত তিনি খোলস ছেড়ে বের হতে পারেননি। তারেক রহমান তাকে পুরোপুরি রাজনীতি শূন্য করে রেখেছেন।

ওই নেতা আরো বলেন, খালেদা জিয়ার উচিত ছিলো কারাগার থেকে বের হয়ে নেতাকর্মীদের খোঁজ-খবর নেয়া। বৈশ্বিক করোনাভাইরাস মহামারিতে দেশের জনগণের খোঁজ-খবর নেয়া। কিন্তু তা না করে তিনি নিজেকে ঘরের মধ্যে বন্দি করে রেখেছেন। যার ফলে দিন দিন আমরা আরো হতাশাগ্রস্ত হচ্ছি। ভেবে উঠতে পারছি না এই দলের ভবিষ্যৎ কী?

কণ্ঠে হতাশার সুর নিয়ে নীতিনির্ধারণী পর্যায়ের আরেক নেতা বলেন, এর আগে বিএনপির অবস্থা কখনো এতো করুন হয়নি। বিএনপি এখন কঠিন সময় অতিবাহিত করছে।

তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকে বিএনপি এরকম কঠিন সময় আর কখনো পার করেনি। আজ দলের মধ্যে কেউ কাউকে বিশ্বাস করে না। দল দুটি ভাগে বিভক্ত। জানি না কবে এই অমাবস্যার অন্ধকার কেটে রাজনীতির আকাশে পূর্ণিমার চাঁদ দেখা দেবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি