শনিবার ৪ জুলাই ২০২০
  • প্রচ্ছদ » other important » করোনায় অসহায় মানুষের পাশে নেই ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ



করোনায় অসহায় মানুষের পাশে নেই ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
26.06.2020

নিউজ ডেস্ক: করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে সাময়িকভাবে কর্মহীন হয়ে পড়েছে দেশের লাখ লাখ মানুষ। আওয়ামী লীগসহ অনেক প্রতিষ্ঠান কর্মহারা ও দরিদ্রদের অর্থ ও ত্রাণ দিয়ে সহোযোগিতা করছে। এদিকে লাখ লাখ নেতাকর্মীর কাছ থেকে মাসে মাসে বিপুল পরিমাণ চাঁদা পেয়েও দেশের মানুষের পাশে নেই রাজনৈতিক দল- ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

এমনকি নিজ দলের অসহায় কর্মীদের জন্যও কোনো ত্রাণ দিচ্ছে না দলটি। তবে করোনায় মারা যাওয়া মানুষের জানাজা ও দাফনের জন্য দলটির একটি কমিটি রয়েছে- এমনটাই জানালেন নেতাকর্মীরা।

করোনা সংকটে জনগণের জন্য সহায়তার হাত বাড়ায়নি চরমোনাই পীরের নেতৃত্বাধীন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। তবে অঙ্গসংগঠন ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি আশরাফ আলী আকন, গত ১৩ মে পুরানা পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে করোনা পরিস্থিতিতে মানুষের দুর্দশা লাঘবে সরকারি সহায়তার দাবি তোলেন। সব শ্রেণির কর্মহীন শ্রমিককে ২৫ রমজানের মধ্যে ১৫ হাজার টাকা করে এককালীন সরকারি সহযোগিতা করার আহ্বান জানান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মী জানান, অঙ্গসংগঠন- ইসলামী যুব আন্দোলন বাংলাদেশ, ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন, ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনসহ গুরুত্বপূর্ণ বেশকিছু সংগঠন রয়েছে দলটির। সারাদেশে সংগঠনগুলোর রয়েছে পাঁচ লক্ষাধিক কর্মী-সমর্থক।

আর প্রত্যেক সদস্য দলের জন্য মাসিক এয়ানত বা চাঁদা দেন ১০০ থেকে হাজার টাকা পর্যন্ত। সেই হিসেবে পাঁচ লাখ সদস্য ১০০ টাকা করে দিলেও ৫ কোটি টাকা আসে মাসে। অথচ করোনা ক্রান্তিকালে ত্রাণ নিয়ে দেশবাসীর পাশে নেই দলটি।

তবে এক কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, আমরা দেশব্যাপী দাফন কমিটি করেছি। কোনো মানুষ করোনায় মারা গেলে স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তায় জানাজা ও দাফন সম্পন্ন করবে এ কমিটি।

কেন্দ্রীয় নেতা ও ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের জয়েন্ট সেক্রেটারি শহিদুল কবির বলেন, দলের নেতাকর্মীদের জন্য আমার কি করবো? আর অসহায় দেশবাসীর সহযোগিতার জন্য আমার সরকারের কাছে ২০ হাজার কোটি টাকা দাবি করেছি। কর্মহীন মানুষ, শ্রমিক ও হকারদের সরকারি সহায়তার জন্য জাতীয় প্রেসক্লাবে সামনে সমাবেশ করেছি।

নেতাকর্মীদের কাছ থেকে মাসোহারা মাথা প্রতি কত নেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা চাঁদা নেই না। দল চালানোর জন্য মাসে ৫০-১০০ থেকে শুরু করে যে যা পারে কমিটিকে দেয়।

এর বাইরে দল চালানো বা সভা-সমাবেশর খরচ পান কোথা থেকে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের দলের নেতাকর্মীরা মিছিল, সভা-সমাবেশে নিজ খরচে আসে। দল চালানোর খরচ বেশি লাগে না। সবাই ঈমানি দায়িত্বে দলের কাজ করে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি