রবিবার ৫ জুলাই ২০২০



আস্থা নেই জি এম কাদেরে, জাপার একাংশ চায় রওশনকে


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
27.06.2020

নিউজ ডেস্ক: জাতীয় পার্টির (জাপা) কাউন্সিলের বছর না ঘুরতেই নেতাকর্মীরা আস্থা হারিয়েছেন বর্তমান চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের ওপর। অভিযোগ- নেতাকর্মীদের একত্রিত করে পার্টিকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে ব্যর্থ বর্তমান চেয়ারম্যান।

অধিকাংশ সিনিয়র নেতাই মনক্ষুণ্ন হয়ে অপেক্ষায় আগামী কাউন্সিলের। রওশন, বিদিশা ও সাদের নেতৃত্বে নতুন কমিটির জন্য রওশন এরশাদের গ্রিন সিগন্যালের আশায় রয়েছেন তারা। এছাড়া জাপার কোনো প্রোগ্রামে রওশন এরশাদ না থাকার কারণও নাকি পার্টির অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব। এমনটাই দাবি পার্টির একাংশের নেতাকর্মীদের।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জাপার এক নেতা বলেন, করোনা সংকটের সমাধান হলেই পার্টির নেতৃত্বের জন্য নতুন কমিটি ঘোষণা হবে। সেই কমিটিতে থাকবেন আধিকাংশ প্রেসিডিয়াম সদস্যসহ সিনিয়র নেতারা। এই নেতা অভিযোগের সুরে বলেন, বর্তমান চেয়ারম্যান ৫-৬ জন নেতাকে নিয়ে রাজনীতি করে। তার মধ্যে রয়েছে হাসিবুল ইসলাম জয়, মিলন, আলমগীর সিকদার লোটন, ফখরুল আহসান শাহজাদা আর রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়াসহ কয়েক জন। তার মধ্যে জয়-মিলনের চেষ্টা চলছে রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়াকে চেয়ারম্যানের কাছ থেকে দূরে সরিয়ে রাখার।

জাপার নবম কাউন্সিলের কিছু দিন আগে এরশাদের মৃত্যুর চার দিনের মাথায় ২০১৯ সালের ১৮ জুলাই বৃহস্পতিবার পার্টির তৎকালীন মহাসচিব মশিউর রহমান রাঙ্গা গণমাধ্যমের সামনে জি এম কাদেরকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান থেকে চেয়ারম্যান হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেন। এর চারদিন পর ২২ জুলাই গণমাধ্যমে পাঠানো সংসদের বিরোধী দলীয় উপনেতার প্যাডে হাতে লেখা এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জি এম কাদেরকে পার্টির চেয়ারম্যান না মানার কথা জানান রওশন এরশাদ। অধিকাংশ সিনিয়র নেতাও রওশনকে সমর্থন দিয়ে পাশে থাকেন তখন।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে পার্টির সভাপতি মণ্ডলীর সদস্য ফখরুজ্জামান জাহাঙ্গীর জানান, আমার কারো প্রতি ক্ষোভ নেই। তবে নেতাকর্মীরা কেউ কেউ পদ পজিশন না পাওয়ায় এমন অনেক কথা বলতে পারে। কেউ আবার হয়তো সত্যিই পার্টির ভালো চেয়ে কিছু ভাবতে পারে, কিন্তু তা আমার জানা নেই।

তিনি বলেন, জাতীয় পার্টির সঙ্গে যারাই আছেন অধিকাংশই পরীক্ষিত ত্যাগী নেতাকর্মী। সবাই এরশাদ পরিবার ও পার্টিকে ভালোবেসেই যুক্ত আছেন। আমরা সবাই জাপাকে সাংগঠনিকভাবে আরো শক্তিশালী দেখতে চাই।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি