শনিবার ৪ জুলাই ২০২০
  • প্রচ্ছদ » other important » ‘ক্ষমতায় থাকাকালীন দুর্যোগে উপকূলীয় অঞ্চল বাঁচাতে ব্যবস্থা নেয়নি বিএনপি’



‘ক্ষমতায় থাকাকালীন দুর্যোগে উপকূলীয় অঞ্চল বাঁচাতে ব্যবস্থা নেয়নি বিএনপি’


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
28.06.2020

নিউজ ডেস্ক: ক্ষমতায় থাকাকালীন সময়ে বিএনপি সরকার দুর্যোগে উপকূলীয় অঞ্চল বাঁচাতে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি বলে মন্তব্য করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

তিনি বলেন, ১৯৯১ সালের ২৯ এপ্রিল ঘূর্ণিঝড়ে ১ লাখ ৩৯ হাজার মানুষ প্রাণ হারালেও সে সময়ের বিএনপি সরকার উপকূলীয় অঞ্চলের মানুষদের প্রাণ বাঁচানোর জন্য পূর্ববর্তী কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। দুর্যোগ পরবর্তী সময়ও তাদের প্রয়োজন অনুযায়ী ত্রাণ ও গৃহনির্মাণ সামগ্রী না দিয়ে চরম ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে।

রোববার পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলা পরিষদে বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্ত ১৩৭ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২০০ বান্ডিল ঢেউটিন ও ৬ লাখ টাকা বিতরণ অনুষ্ঠানে অনলাইনে যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, এ দেশের সব সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশবাসীর পাশে রয়েছেন। মহামারি করোনা, প্রাকৃতিক দুর্যোগ বুলবুল, আম্ফানসহ সব দুর্যোগময় মুহূর্তে তিনি সব ধরনের সহায়তা দিয়ে প্রমাণ করেছেন তার কোনো বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, দেশে করোনা সংক্রমণ শুরু হলে সরকার দেড় কোটিরও বেশি পরিবারের ৬ কোটি মানুষকে ত্রাণ সহায়তা দিয়েছে। মানবিক এ সহায়তা এখনো চলমান। এছাড়া শিশুদের জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ শিশু খাদ্যেরও ব্যবস্থা করেছে সরকার।

নির্বাচনী ইশতেহারে কথা উল্লেখ করে শ ম রেজাউল বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করে মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে একটি স্বাধীন দেশ উপহার দিয়েছেন। তারই কন্যা আজ ক্ষুধা, দারিদ্র মুক্ত বাংলাদেশ গড়তে নিরলস পরিশ্রম চালিয়ে যাচ্ছেন। ২০০৮ সালে জননেত্রী শেখ হাসিনা তার নির্বাচনী ইশতেহারে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার যে কথা বলেছিলেন, আজ তার সে স্বপ্ন বাস্তবায়িত হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা ক্ষুধা ও দারিদ্র মুক্ত, অসাম্প্রদায়িক, কু-সংস্কারমুক্ত আধুনিক জ্ঞান-বিজ্ঞানে সমৃদ্ধ একটি জাতিতে পরিণত হওয়ার দ্বারপ্রান্তে পৌঁছে গেছি বলেও উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সভাপতি আক্তারুজ্জামান ফুলু, আওয়ামী লীগ নেতা আতিয়ার রহমান চৌধুরী নান্নু, যুবলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় নেতা কামরুজ্জামান শামীম, নাজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশারেফ হোসেন খান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান রঞ্জুসহ মুক্তিযোদ্ধারা উপস্থিত ছিলেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি