শনিবার ৪ জুলাই ২০২০
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » চোখ-মুখ ও অন্তরে ক্ষমতা দখলের অপার ক্ষুধা বিএনপি নেতাদের!



চোখ-মুখ ও অন্তরে ক্ষমতা দখলের অপার ক্ষুধা বিএনপি নেতাদের!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
29.06.2020

নিউজ ডেস্ক: চোখ-মুখ ও অন্তরে ক্ষমতার অপার ক্ষুধা থাকায় জনগণের কথা বেমালুম ভুলে গেছে বিএনপি নেতাকর্মীরা। এ কারণে চলমান করোনা সংকটে সরকার যখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিরলস পরিশ্রম করছে, তখন মানুষের কথা না ভেবে উল্টো সরকারের মিথ্যে সমালোচনায় ‘ভাঙা রেকর্ড’বাজিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন বিএনপির নেতারা। আর ‘লোক দেখানো’র নামে কালেভদ্রে যে ত্রাণ তৎপরতা চালিয়েছেন, সেখানেও পাওয়া গেছে সীমাহীন অভিযোগ। অধিকাংশ সুবিধাভোগীরাই বলেছেন, খাদ্য সামগ্রী ছিল পচা-গলা ও খাবার অযোগ্য। যা খেয়ে তারা অসুস্থ হয়ে পড়েন।

বিশিষ্টজনরা বলছেন, উদ্ভূত করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সরকারের পক্ষ থেকে ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছানোর পাশাপাশি নানা রকম সুযোগ-সুবিধা দেয়া হচ্ছে। কিন্তু অর্বাচীনের মতো বিএনপি নেতারা দাবি করছেন, দেশের মানুষ ক্ষুধায় হাহাকার করছে। যা সম্পূর্ণ বানোয়াট ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। নিজেদের রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়নের উদ্দেশ্যেই তারা এমন মিথ্যাচার করছেন।

দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানিয়েছে, দেশে করোনা সংক্রমণের পর থেকেই সরকার দলীয় নেতাকর্মীরা জনকল্যাণে বিরামহীনভাবে কাজ করছেন। মানুষের এক ডাকেই ত্রাণ ও নগদ অর্থ সহায়তা নিয়ে তাদের সাহায্যে ছুটে যাচ্ছেন দুয়ারে দুয়ারে। তবুও এ সময় মানুষের পাশে না থেকে গুজব সেলের মাধ্যমে সরকারের বিরুদ্ধে কুৎসা রটানো বন্ধ করেনি বিএনপি ও ২০ দলীয় নেতাকর্মীরা। তাদের অধিকাংশ নেতাকর্মীকেই দেখা গেছে ভার্চুয়াল খোশগল্প ও নাটক-সিনেমার পেছনে সময় ব্যয় করতে। অথচ তারাই আবার মিডিয়ার সামনে এসে চাপাবাজি করে বলছেন, বিএনপি এই করোনাকালে মানুষের জন্য অনেক করেছে, যার ছিটেফোঁটাও সরকার করেনি। বিষয়টি যে অযৌক্তিক ও ভিত্তিহীন তা তারা বুঝেও এই মেকি অভিনয় চালিয়ে যাচ্ছেন, যাতে মানুষের সহানুভূতি কুড়ানো যায়। কিন্তু সে আশায় গুঁড়ে বালি। জনগণ এখন সত্য-মিথ্যা যাচাই করতে জানে।

সূত্রটি আরো জানিয়েছে, জনগণের প্রতি সরকারের দায়িত্বশীলতা দেখে বিএনপির গা জ্বালা করছে। এ কারণে দলটির নেতাকর্মীরা লাগাতার মিথ্যাচার করে যাচ্ছেন। কিন্তু তারা ঘুণাক্ষরেও বুঝতে পারছেন না, সরকারের মিথ্যে সমালোচনা করতে গিয়ে তারা দেশ ও দেশের মানুষের ক্ষতি করেছেন। এ থেকে সহজেই অনুমেয়, বিষোদগারের ভাইরাসে আক্রান্ত বিএনপি। আর তাদের এমন নেতিবাচক রাজনীতির কারণে এরইমধ্যে তারা নেতিবাচক রাজনীতির আইসোলেশনে পৌঁছে গেছে।

এ বিষয়ে দেশের রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, করোনাভাইরাসের এই সংকটময় পরিস্থিতিতেও থেমে নেই বিএনপি-জামায়াত চক্রের মেরুদণ্ডহীন সমালোচনা। তারা অতীতের ন্যায় অন্ধ সমালোচনা আর মিথ্যাচারের বৃত্ত থেকে তাদের ‘ভাঙা রেকর্ড’ বাজিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করার অপপ্রয়াস চালাচ্ছেন। আশ্চর্যজনক বিষয় হলো, করোনা পুরো বিশ্বের মানুষ,পরিবেশ ও শিষ্টাচারকে বদলাতে সফল হলেও ব্যর্থ হয়েছে স্বাধীনতাবিরোধী এ দলটিকে বদলাতে। এ থেকেই প্রমাণিত হয় যে, কয়লা ধুলেও যেমন ময়লা যায়না, ঠিক তেমনি তাদের স্বভাবও বদলানোর নয়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি