শুক্রবার ৭ অগাস্ট ২০২০
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » ‘গুজবের কারখানা’য় পরিণত হয়েছে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়!



‘গুজবের কারখানা’য় পরিণত হয়েছে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
02.07.2020

নিউজ ডেস্ক: করোনাভাইরাসের কারণে পুরো বৈশ্বিক পরিস্থিতি যখন বদলে গেছে, তখনও বদলায়নি বিএনপির সীমাহীন মিথ্যাচারের প্রবণতা। দলটির নেতাকর্মী ও ‘পেইড এজেন্টরা’ দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ‘গুজব সেল’র মাধ্যমে সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার অব্যাহত রেখেছেন। আর এটি যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, লন্ডন, সুইডেনের পাশাপাশি বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকেও নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে।

সূত্রের তথ্যমতে, রাজধানীর নয়াপল্টনে অবস্থিত বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় এখন রীতিমত গুজবের কারখানায় পরিণত হয়েছে। কারণ দলটির বিভিন্ন স্তরের কর্মহীন নেতাকর্মীরা সেখানে এসে জড়ো হয়ে সরকারের বিরুদ্ধে নানা রকম গালগল্প তৈরি করেন এবং পরবর্তীতে সেগুলো জনমনে বিভ্রান্তি তৈরির উদ্দেশ্যে অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে প্রচার করা হয়। আর প্রচারের আগে সেগুলো কেন্দ্রীয় নেতাদের তারা দেখিয়ে নেন এবং কি উদ্দেশ্যে প্রচার করবেন সেটি জেনে নেন।

পাশাপাশি আরেকটি মহল, যারা তাদের ‘পেইড এজেন্ট’ তারা দেশকে অস্থিতিশীল করতে বিদেশ থেকে বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, সুইডেন থেকে অপপ্রচার চালাচ্ছেন, গুজব রটাচ্ছেন। আর এসবের দেখভাল ও নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের পাশাপাশি বিএনপির একদল কেন্দ্রীয় নেতা।

সূত্রটি আরো জানায়, রুটিন-মাফিক প্রতিদিন বিএনপির স্থায়ী কমিটির নেতারা সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করার জন্য বিভিন্ন অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের দায়িত্ব দেন। তারা জ্যেষ্ঠ নেতাদের নির্দেশনা মোতাবেক দেশের বিরুদ্ধে নানামুখী ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছেন।

এ বিষয়ে দেশের রাজনৈতিক বিজ্ঞজনরা বলছেন, সুষ্ঠু ধারার রাজনৈতিক চর্চার বিপরীতে বিএনপি নেতারা এখন উল্টো পথে হাঁটছেন। তারা দলীয় কর্মসূচি বা দল পুনর্গঠন না করে মনোযোগ দিয়েছেন সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচারে। আর উন্নয়ন ও জনবান্ধব সরকারের কোন ভুল-ত্রুটি না পাওয়ায় তারা গুজব প্রচারের পথ বেছে নিচ্ছেন, যা খুবই ন্যক্কারজনক।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি