বুধবার ১২ অগাস্ট ২০২০
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » কেন তারেক বাদে জামায়াতকে ছাড়তে চান অন্যান্য বিএনপি নেতৃবৃন্দ



কেন তারেক বাদে জামায়াতকে ছাড়তে চান অন্যান্য বিএনপি নেতৃবৃন্দ


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
21.07.2020

নিউজ ডেস্ক: নানা বিতর্কের পরও জামায়াতে ইসলামীকে ছাড়ার বিষয়ে কোন প্রতিবাদ না করে মুখে কুলুপ এঁটেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। বিএনপি-জামায়াতের বন্ধুত্ব যেন ফেভিকলের আঠার মতো অটুট। শত বিতর্ক ও সমালোচনাতেও জামায়াতকে ছাড়তে চান না মা-ছেলে। জানা গেছে, কিন্তু এই দুজন বাদে জামায়াতকে দুচোখে দেখতে পারেন না বিএনপির বেশিরভাগ শীর্ষ নেতা।

কিন্তু অতীতে গলাগলি করলেও বর্তমান প্রেক্ষাপটে কেন বিএনপি নেতারা জামায়াত নেতাদের দেখতে পারছেন না, সেটি মিলিয়ন ডলারের প্রশ্ন হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিএনপি নেতারা বলছেন, জামায়াত বরাবরই বিএনপির গলার কাঁটা হয়ে ছিলো। কিন্তু অতীতের ক্ষমতার ভাগীদার, পেশিশক্তি ও অর্থের সরবরাহকারী হওয়ায় জামায়াতকে নিজের ছাতার নিচে আশ্রয় দিয়েছিল বিএনপি। তাহলে কেন এখন জামায়াতকে নিয়ে বিএনপির শীর্ষ নেতাদের এতো অ্যালার্জি?

জামায়াতের সঙ্গে হঠাৎ দূরত্ব সৃষ্টি ও ত্যাগের বিষয়ে চলমান গুঞ্জনের বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপিত্যাগী এক সিনিয়র নেতা বলেন, জামায়াত এবং বিএনপি’র রাজনীতির পথ ‘একই’ রকমের না। দুই দলের রাজনীতির মিলও খুবই কম বরং ভিন্নতাই বেশী। ইসলাম নারী নেতৃত্বকে জায়েজ করেনি কিন্তু জামায়াতে ইসলামী দলটি ‘ইসলামের আদর্শে’ থেকেই বেগম জিয়ার নেতৃত্বে রাজনীতি করে মূলত নিজেদের ভণ্ড হিসাবে তুলে ধরেছে। চূড়ান্ত বিচারে তাদের গ্রহণযোগ্যতা যে কত নীচে নেমেছে- সেটা হিসাব করার জ্ঞান জামায়াত রাখে না। ক্ষমতার স্বাদ গ্রহণ করতে জামায়াত ধর্মের নামে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করেছে। আর জামায়াতের পাতানো ফাঁদে পা দিয়ে বিএনপি নিজের সর্বনাশ করেছে।

তিনি আরো বলেন, অতীতের নানা সরকারবিরোধী আন্দোলনে যে ধ্বংসযজ্ঞ দেখিয়েছিল জামায়াত, সেটিকে মাথায় রেখেই হয়তো আগামীর কোন স্বপ্নে দেখা আন্দোলনের জন্য জামায়াতকে ছাড়তে চাইছেন না। কিন্তু জামায়াত যে ক্ষয়িষ্ণু শক্তিতে রূপান্তরিত হয়েছে, সেটি বিএনপির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ বুঝতে পারলেও খালেদা-তারেক বুঝতে পারছেন। যার কারণে তারা সাহস করে জামায়াত ত্যাগের সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন। কিন্তু তাদের কথায় তো লাভ হবে না। কারণ বিএনপিতে কারো মতামতের দাম নেই, খালেদা-তারেক যা বলবেন তাই হবে। আর যার কারণে আপাতদৃষ্টিতে মনে হচ্ছে, জামায়াতের সঙ্গে বিএনপির অদৃশ্য বন্ধুত্ব থেকেই যাবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি