বুধবার ১২ অগাস্ট ২০২০
  • প্রচ্ছদ » Breaking » তারেক-বার্গম্যানদের প্রলোভনে দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রে নেমেছেন সারওয়ার্দী!



তারেক-বার্গম্যানদের প্রলোভনে দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রে নেমেছেন সারওয়ার্দী!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
27.07.2020

নিউজ ডেস্ক : নারী কেলেঙ্কারি এবং শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে দেশের সব সেনানিবাসে ‘অবাঞ্ছিত’ বিতর্কিত সাবেক সেনা কর্মকর্তা চৌধুরী হাসান সারওয়ার্দী। কিন্তু তিনি কেনো হঠাৎ এমন দেশ-বিরোধী চক্রান্তে মেতে উঠেছেন-সেটি এখন মিলিয়ন ডলারের প্রশ্ন। অনেকেই বলছেন, জনপ্রিয়তা পেতেই তিনি সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছেন । আবার কেউ বলছেন, বিএনপির ফেরারি নেতা তারেক রহমান ও দেশ বিরোধী একটি চক্রের প্ররোচনায় পড়েই তিনি সরকারবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়েছেন।

এদিকে কয়েকটি গোপন সূত্র বলছে, দুর্নীতি ও অপকর্মের কারণে রাজনীতির মাঠে বিএনপি অজনপ্রিয় হয়ে পড়ায়, দীর্ঘদিন ধরে সরকারবিদ্বেষী মনোভাবের লোকজন খুঁজে বের করার চেষ্টা করছিলেন তারেক রহমান। বিশেষ করে প্রতিবেশী বন্ধুরাষ্ট্র ভারতকে টার্গেট করে মিথ্যাচার করে জনমনে উসকানি দিতে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তির খোঁজ না পাওয়ায় তিনি যুক্তরাজ্যের বিতর্কিত ইহুদি সাংবাদিক ও ড. কামাল হোসেনের জামাতা ডেভিড বার্গম্যানের সহায়তা নেন। অনলাইনে বিতর্কিত বক্তব্যের মাধ্যমে উসকানি দিয়ে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির জন্য নির্ধারিত ফি দিয়ে হাসান সারওয়ার্দীকে ম্যানেজ করেন বার্গম্যান। যার সূত্র ধরে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত দুর্নীতিবাজ শামসুল আলমের মাধ্যমে দণ্ডিত ও বিতর্কিত সাংবাদিক কনক সারওয়ারকে ম্যানেজ করে ফেসবুক আলাপনের নামে সরকারবিরোধী গুজব ছড়ান হাসান সারওয়ার্দী।

মূলত বাংলাদেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে সমর্থ হলে সারওয়ার্দীকে যুক্তরাজ্যে স্থায়ীভাবে বসবাসে সহায়তার পাশাপাশি ব্যবসা-বাণিজ্যেরও সুযোগ করে দেয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন তারেক।
যার কারণে তারেক রহমানের প্রলোভনে পড়ে সারওয়ার্দী দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন। আর সারওয়ার্দীকে বিপথগামী করতে সংঘবদ্ধভাবে কাজ করেছেন ডেভিড বার্গম্যান, শামসুল আলম ও কনক সারওয়ারের মতো চক্রান্তকারীরা।

এদিকে লন্ডনভিত্তিক একটি গোপন সূত্র বলছে, ২০০৮ সালের যুক্তরাজ্যে পাড়ি দেয়ার পর থেকে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছেন তারেক রহমান। তার এসব ষড়যন্ত্রে দেশ-বিদেশ থেকে মদদ দিচ্ছেন বিভিন্ন ব্যক্তিবর্গ। বিভিন্ন সময়ে প্রলোভন দেখিয়ে সমাজের নানা শ্রেণি-পেশার মানুষকে ষড়যন্ত্রের হাতিয়ার বানিয়েছেন তারেক। আর তার দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের নতুন হাতিয়ার হলেন হাসান সারওয়ার্দী। সেনাবাহিনী প্রধান হতে না পারায় মানসিক যন্ত্রণায় ভুগছিলেন চৌধুরী হাসান। তার এই যন্ত্রণাকে কাজে লাগিয়ে রাষ্ট্র ও সমাজে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্যই তাকে টার্গেট করে তারেক রহমান। এছাড়া, বিএনপি-জামায়াত জোটের শাসনামলে অনেক প্রমোশন বাগিয়ে নেওয়া এ ধুরন্ধর কর্মকর্তাকে কাজে লাগাতেই টোপ দিয়েছিলেন তারেক। আর তার টোপ গিলে সরকার বিরোধী ষড়যন্ত্রে নেমে পড়েন সারওয়ার্দী। তবে তারেক-বার্গম্যানদের প্ররোচনায় পড়ে সারওয়ার্দী নিজ দেশের সাথে বেইমানী করেছেন বলে মনে করছেন অনেকেই।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি