আমাদের নীতিগত সিদ্ধান্ত হলো জামায়াতকে নিষিদ্ধকরণ : মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, এ অধিবেশনে জামায়াত নিষিদ্ধের ব্যাপারে কোনো আইন উঠবে না। ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে আমরা আদালতের রায় আশা করছি। আপিল বিভাগের রায়ের কারণেই আমরা এ আইনটা অতীতে করিনি কিন্তু আগে থেকেই আমাদের নীতিগত সিদ্ধান্ত হলো জামায়াতকে নিষিদ্ধকরণ। কারণ তারা যুদ্ধাপরাধীর দল। তারা রাজনৈতিকভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করেছিল। জামায়াত নিষিদ্ধ হবেই। এটা সময়ের ব্যাপার। আইনমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে হয়তো সংসদের পরবর্তী অধিবেশনে জামায়াত নিষিদ্ধের আইনটি তুলতে পারবো।

মঙ্গলবার দুপুরে গাজীপুর মহানগরীর চান্দনা চৌরাস্তায় ‘ট্রাফিক সেবা সপ্তাহ’ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী তিনটি জিনিসের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স থাকবে। এগুলো হলো দুর্নীতি, মাদক ও সন্ত্রাস। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কোনো সৈনিকের কারণে যেন এদেশের আইনশৃঙ্খলার অবনতি না হয়, দুর্নীতির যেন ব্যাপকতা না বাড়ে, আর মাদক যেন প্রশ্রয় না পায়। আমরা যদি সত্যিকারভাবে প্রধানমন্ত্রীকে ভালবাসি তাহলে মাদকের প্রতি জিরো টলারেন্স হতে হবে। এর কোনো তদবিরও করা যাবে না। এ ব্যাপারে দলীয় কোনো নেতাদেরও তদবির না করার অনুরোধ করছি।

তিনি আরও বলেন, গাজীপুর মেট্রোপলিটন গঠন হওয়ার পর এখন পর্যন্ত আমরা পর্যাপ্ত পুলিশ পাইনি। পুলিশ সদস্যদের থাকার জন্য কোনো পুলিশ লাইন নেই। সে রকম অবকাঠামো এখনো গড়ে উঠেনি। অল্প সময়ের মধ্যে গাজীপুর মহানগরে আরও পুলিশ সংখ্যা বাড়ানো হবে। দেশের অন্যান্য সিটি কর্পোরেশনের মতো জনসংখ্যা অনুপাতে প্রাপ্যতা অনুসারে গাজীপুর মেট্রোপলিটনে পুলিশ সদস্য পাবে।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, জনগণের চলাচলের জন্য তৈরি করা ফুটপাত দখল করে কেউ ব্যবসা করতে পারবে না। ৫০ টাকার লাভের চাইতে একটা মানুষের জীবনের মূল্য অনেক বেশী। তিনি চালকদের গাড়ি চালানোর সময় এবং পথচারীদের রাস্তা পার হওয়ার সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার না করার অনুরোধ জানান।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। বক্তব্য দেন গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সঞ্জিব দেবনাথ, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার আজাদ মিয়া, ডিসি ট্রাফিক কে এম আরিফুল হক, সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম, গাজীপুর জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সুলতান আহমাদ সরকার, শ্রমিক প্রতিনিধি আব্দুল আউয়াল প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

সাক্কু

বিএনপি থেকে অব্যাহতি পেয়ে স্বস্তিতে মেয়র সাক্কু

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে তৃতীয়বারের মত অংশ নেয়ার জন্য কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপি থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে অব্যাহতি নিলেন জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ও সদ্য বিদায়ী কুমিল্লা সিটির মেয়র মনিরুল হক সাক্কু। কুসিক মেয়র মনিরুল হক সাক্কু বলেন, ‘তফসিল অনুযায়ী মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। তাই বিএনপির […]

বিস্তারিত
জেএসএস

সেনাবাহিনীকে হটিয়ে পার্বত্যাঞ্চলকে জুম্মল্যান্ড বানাতে চায় সশস্ত্র উপজাতিরা

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: পার্বত্য চট্টগ্রামের রাঙামাটি, বান্দরবান খাগড়াছড়ি এই তিন এলাকায় জেএসএস (মূল), জেএসএস (সংস্কার), ইউপিডিএফ (মূল) ও ইউপিডিএফ (সংস্কার) সশস্ত্র সন্ত্রাসী গ্রুপ অনেকটা প্রকাশ্যেই চাঁদাবাজি করছে। হাঁস-মুরগি, গরু-ছাগল, গাছের ফল, ক্ষেতের ফসল, জমি কেনা-বেচা, এমনকি ডিম-কলা বিক্রি করতে গেলেও চাঁদা দিতে হয় তাদের। ছোট-বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, কৃষক-শ্রমিক-মৎসজীবী, সড়কে […]

বিস্তারিত

খুলনায় মন্দিরের প্রতিমা ভেঙে ধরা পড়লো হিন্দু যুবক

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টে একের পর অপতৎপরতা চালাচ্ছে একটি চক্র। যার ধারাবাহিকতায় কুমিল্লা, রংপুর ও নওগাঁয় মন্দিরে হামলার মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটায় তারা। এরপর নতুন করে খুলনায় ঘটিয়েছে এমন ঘটনা। জানা যায়, খুলনার ফুলতলা এম এম কলেজ সার্বজনীন পূজা মন্দিরে স্বরস্বতী প্রতিমার মাথা ভেঙে পালানোর সময় অনিক মন্ডল […]

বিস্তারিত