সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » জেলার খবর » আমাদের নীতিগত সিদ্ধান্ত হলো জামায়াতকে নিষিদ্ধকরণ : মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী



আমাদের নীতিগত সিদ্ধান্ত হলো জামায়াতকে নিষিদ্ধকরণ : মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
29.01.2019

নিউজ ডেস্ক: মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেছেন, এ অধিবেশনে জামায়াত নিষিদ্ধের ব্যাপারে কোনো আইন উঠবে না। ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে আমরা আদালতের রায় আশা করছি। আপিল বিভাগের রায়ের কারণেই আমরা এ আইনটা অতীতে করিনি কিন্তু আগে থেকেই আমাদের নীতিগত সিদ্ধান্ত হলো জামায়াতকে নিষিদ্ধকরণ। কারণ তারা যুদ্ধাপরাধীর দল। তারা রাজনৈতিকভাবে সিদ্ধান্ত নিয়ে মহান মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতা করেছিল। জামায়াত নিষিদ্ধ হবেই। এটা সময়ের ব্যাপার। আইনমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনা করে হয়তো সংসদের পরবর্তী অধিবেশনে জামায়াত নিষিদ্ধের আইনটি তুলতে পারবো।

মঙ্গলবার দুপুরে গাজীপুর মহানগরীর চান্দনা চৌরাস্তায় ‘ট্রাফিক সেবা সপ্তাহ’ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী তিনটি জিনিসের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স থাকবে। এগুলো হলো দুর্নীতি, মাদক ও সন্ত্রাস। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কোনো সৈনিকের কারণে যেন এদেশের আইনশৃঙ্খলার অবনতি না হয়, দুর্নীতির যেন ব্যাপকতা না বাড়ে, আর মাদক যেন প্রশ্রয় না পায়। আমরা যদি সত্যিকারভাবে প্রধানমন্ত্রীকে ভালবাসি তাহলে মাদকের প্রতি জিরো টলারেন্স হতে হবে। এর কোনো তদবিরও করা যাবে না। এ ব্যাপারে দলীয় কোনো নেতাদেরও তদবির না করার অনুরোধ করছি।

তিনি আরও বলেন, গাজীপুর মেট্রোপলিটন গঠন হওয়ার পর এখন পর্যন্ত আমরা পর্যাপ্ত পুলিশ পাইনি। পুলিশ সদস্যদের থাকার জন্য কোনো পুলিশ লাইন নেই। সে রকম অবকাঠামো এখনো গড়ে উঠেনি। অল্প সময়ের মধ্যে গাজীপুর মহানগরে আরও পুলিশ সংখ্যা বাড়ানো হবে। দেশের অন্যান্য সিটি কর্পোরেশনের মতো জনসংখ্যা অনুপাতে প্রাপ্যতা অনুসারে গাজীপুর মেট্রোপলিটনে পুলিশ সদস্য পাবে।

মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, জনগণের চলাচলের জন্য তৈরি করা ফুটপাত দখল করে কেউ ব্যবসা করতে পারবে না। ৫০ টাকার লাভের চাইতে একটা মানুষের জীবনের মূল্য অনেক বেশী। তিনি চালকদের গাড়ি চালানোর সময় এবং পথচারীদের রাস্তা পার হওয়ার সময় মোবাইল ফোন ব্যবহার না করার অনুরোধ জানান।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম। বক্তব্য দেন গাজীপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সঞ্জিব দেবনাথ, গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার আজাদ মিয়া, ডিসি ট্রাফিক কে এম আরিফুল হক, সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম, গাজীপুর জেলা সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি সুলতান আহমাদ সরকার, শ্রমিক প্রতিনিধি আব্দুল আউয়াল প্রমুখ।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি