গণফোরামেরও নন, বিএনপিরও নন: সুলতান মনসুর বঙ্গবন্ধুর অনুসারী

নিউজ ডেস্ক: বিএনপিতো দূরের কথা গণফোরামকেও ছাড় দিচ্ছেন না সুলতান মোহাম্মাদ মনসুর। সম্প্রতি একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে সুলতান মনসুর বলেছেন, আমি গণফোরামের কেউ নই, বিএনপিরও কেউ নই। দেশের মানুষ আমাকে যে পরিচয়ে এতকাল ধরে চিনে আসছে, সে অনুযায়ী অবশ্যই আমি জনগণের কথা বলার জন্য সংসদে যাব। আমি বঙ্গবন্ধুর অনুসারী।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নতুন জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে নতুন চমক হিসেবে সিলেট-১ আসনে ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর বিজয়ী হন। একাদশ জাতীয় সংসদে ঐক্যপ্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে নির্বাচনে যোগ দিয়ে মৌলভীবাজার-২ আসনের নৌকার প্রার্থী এম এম শাহীনকে পরাজিত করে নিজের ব্যক্তি ইমেজ ও জনপ্রিয়তাও প্রমাণ করেন তিনি।

নির্বাচনে বিজয়ের পর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নৌকার নির্বাচিত সংসদ সদস্যরা শপথ গ্রহণ করলেও বিএনপিসহ ঐক্যপ্রক্রিয়ার নির্বাচিতরা শপথ গ্রহণ করেননি।

অনেকেই বলছেন, সুলতান মনসুরের মত রাজনীতিবিদ কখনোই জনগণের প্রতিনিধি হয়ে ঘরে বসে থাকতে পারেন না। যেকোন পরিস্থিতিতে জনগণের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে ইতিবাচক মনোভাব দেখাবেন এমনটাই আশা করছেন এলাকার জনগণ এবং সুলতান মনসুরের শুভাকাঙ্ক্ষীরা।

শপথ নিয়ে ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে সুলতান মনসুর বলেন, বাংলাদেশের মানুষ আমাকে যে পরিচয়ে জানে, আমি সে পরিচয়ে অবশ্যই সংসদে যাব। তবে যোগ দেয়ার ব্যাপারে দিন-ক্ষণ এখনও চূড়ান্ত হয়নি। সময় হলেই দেখতে পাবেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর অনুসারী হিসেবে ঐক্যপ্রক্রিয়ার পক্ষ থেকে নির্বাচনে গিয়েছি। আমি গণফোরামের কেউ নই, বিএনপিরও কেউ নই।

তিনি বলেন, জনগণ আমাকে ভোট দিয়েছেন, আমি জনগণের কথাগুলো তুলে ধরার জন্য, সংসদে জোরালো ভূমিকা রাখার জন্য যাব। বাংলাদেশের মানুষ আমাকে যে পরিচয়ে এতকাল ধরে জেনে আসছে সে অনুযায়ী অবশ্যই যথাসময়ে ইতিবাচক পদক্ষেপ নেব।

এর আগে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সদ্যসমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী ঐক্যফ্রন্টের কেউই সংসদ সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ করবেন না। গণফোরাম থেকে নির্বাচিত মৌলভীবাজার-২ (কুলাউড়া-কমলগঞ্জ) আসনের সুলতান মোহাম্মদ মনসুর ও সিলেট-২ আসনের মোকাব্বির খান শপথ গ্রহণে আগ্রহ প্রকাশ করলে ৭ জানুয়ারি মতিঝিলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে নেতারা বৈঠক করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেন।

তবে তখনকার সেই সিদ্ধান্ত মানতে ধানের শীষ প্রতীকে বিজয়ী সুলতান মোহাম্মদ মনসুর ও উদীয়মান সূর্য প্রতীকের মোকাব্বির খান রাজি ছিলেন না বলে সেসময় জানা গিয়েছিল। যা খুব সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

কেন লন্ডন যেতে চান না খালেদা জিয়া?

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক : গত দুই মাস আগে ১১ জুন হার্ট অ্যাটাক করার পর সুস্থ হয়ে বাসায় মিনি বার সরিয়ে মিনি হসপিটাল দিয়েছিলেন বিএনপির দুর্নীতিগ্রস্ত চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। বর্তমানে তিনি সুস্থ হয়ে বাসায় আছেন। তবে সুস্থ থাকার পরেও উন্নত চিকিৎসার জন্য লন্ডন যেতে চাইলেও বর্তমানে সেই সিদ্ধান্ত পাল্টানোর […]

বিস্তারিত

তারেক-শর্মিলার যাতাকলে পিষ্ট খালেদা জিয়া

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: বেগম জিয়ার বিপুল পরিমাণ সম্পদ ও বিদেশে বিনিয়োগকৃত অর্থের ভাগাভাগির হিসেব নিয়ে ভিন্ন রকম এক পারিবারিক দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয়েছে। যার বলি হচ্ছেন বিএনপি নেত্রী। তারেক রহমান ও প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলার রাহমানের দ্বন্দ্বের ফায়সালা না হওয়ায় বেগম জিয়ার মুক্তি নিয়ে কিছু করতে পারছেন না […]

বিস্তারিত

পরীমনির পুত্র সন্তান হওয়ায় চরম খুশি তারেক রহমান

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক : পুত্র সন্তানের মা হয়েছেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পরীমনি। বুধবার ১০ আগস্ট রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে এই সন্তানের জন্ম দেন তিনি। সন্তান ভূমিষ্ঠ হওয়ার আগেই নাম ঠিক করে রেখেছিলেন পরীমনি। পরী জানিয়েছিলেন, পুত্র সন্তান হলে নাম রাখবেন রাজ্য। সে অনুসারেই নাম রাখা হয় পরীমনির ছেলে সন্তানের। আর এ […]

বিস্তারিত