বিএনপির পাঁচ নেতার বিরুদ্ধে সরকার থেকে অর্থ নেয়ার অভিযোগ!

নিউজ ডেস্ক: জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির অনেক নেতার বিরুদ্ধে সরকারের সঙ্গে আঁতাতের অভিযোগ পুরনো হলেও নতুন অভিযোগ এনেছেন ২০ দলের সমন্বয়ক এবং লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমেদ। এলডিপির নেতা কর্নেল অলি আহমেদ অভিযোগ করেছেন যে, বিএনপির একাধিক নেতা সরকারি টাকায় নির্বাচন করেছেন।

০২ ফেব্রুয়ারি এলডিপির এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ অভিযোগ করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে বিএনপির একাধিক নেতা অলি আহমেদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এ ব্যাপারে তার কাছে কোন তথ্য আছে কি না জানতে চাইলে অলি আহমেদ ৫ জন শীর্ষনেতার নাম বলেছেন। যারা নির্বাচনের বিভিন্ন সময়ে সরকারের কাছ থেকে নির্বাচন পরিচালনার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ নিয়েছেন। এ সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য ও সুস্পষ্ট প্রমাণ হাতে রয়েছে বলেও জানিয়েছেন তিনি।

বিষয়টি জানতে কর্নেল (অব.) অলি আহমেদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বিএনপির নেতারা শুধুমাত্র অর্থ নিয়েছে তা নয়, অনেকে নির্বাচন করেছে আওয়ামী লীগকে জেতানোর জন্য এবং এটা সমঝোতার ভিত্তিতে। সে কারণে তারা নির্দলীয় নিরপেক্ষ নির্বাচন, খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ অন্যান্য বিষয়কে উপেক্ষা করেছে।

কী ধরনের প্রমাণ আছে জানতে চাইলে অলি আহমেদ এ ব্যাপারে মুখ খোলেননি। তিনি বলেছেন, এ বিষয়ে ২০ দলের বৈঠক ডাকা হলে তিনি সেখানে তথ্য-প্রমাণগুলো উপস্থাপন করবেন। তবে এরইমধ্যে বিএনপির বেশকিছু নেতাকে বিষয়টি অবগত করেছেন বলে জানান তিনি।

অলি আহমেদের ঘনিষ্ঠ সূত্রগুলো বলছে, যে ৫ জন নেতা সরকারি অর্থে নির্বাচন করেছেন বলে অলি আহমেদ অভিযোগ করেছেন তাদের মধ্যে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নামও রয়েছে। শোনা যাচ্ছে, দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ড. আবদুল মঈন খান এবং আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরীর নামও তালিকায় রয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিএনপির একজন নেতা বলেছেন, কর্নেল অলি আহমেদ যখন কোন বক্তব্য দেন তখন তিনি তথ্য-প্রমাণের ভিত্তিতেই বক্তব্য রাখেন। অন্য রাজনীতিকদের মতো কখনো তিনি ঢালাও মন্তব্য করেননি। তিনি জিয়াউর রহমানের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ সহযোদ্ধা ছিলেন। কাজেই তার বক্তব্যকে উড়িয়ে দেয়ার কোন সুযোগ নেই।

তবে যে কারণেই অলি আহমেদ এই বক্তব্য রাখেন না কেন, এই বক্তব্য নিয়ে বিএনপিতে আরও একবার তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

কর্নেল ফারুক

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের খুনির মার্কাও ধানের শীষ!

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয় ১৫ আগস্ট ১৯৭৫। সেই নারকীয় হত্যাকাণ্ডকে দেশবিরোধী দল বিএনপি নাম দেয় “আগস্ট বিপ্লব” বলে। নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য রাষ্ট্রের এমন কোনো খাত নেই যেখানে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারী তথা বিএনপি-জামায়াতের লোকদের পদায়ন করা হয়নি। এমনকি জাতির পিতার খুনিকেও […]

বিস্তারিত
বিএনপি

খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে ১৬ আগস্ট মিলাদ পড়াবে বিএনপি

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিত বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আগস্ট মাসে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে বিএনপি। জানা গেছে, আইনি প্রক্রিয়ায় নেত্রীর মুক্তি আদায়ে ব্যর্থ হওয়ায় আগস্ট মাসে ক্ষমতাসীন দলের আবেগকে পুঁজি করে বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে প্রয়াস চালাবে দলটি। সে লক্ষ্যে ১৬ আগস্ট খালেদা জিয়াকে […]

বিস্তারিত
১৫ আগস্ট ও খালেদা জিয়া

১৫ আগস্ট ও খালেদা জিয়ার জঘন্য জন্মদিন নাটক

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: খালেদা জিয়া। এই নামটিই বাংলাদেশে বারবার জন্ম দিয়েছে একের পর এক বিতর্কের। কখনো অতি স্বজনপ্রীয়তা কিংবা দুর্নীতি আবার কখনোবা চারিত্রিক ত্রুটি। তবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার দিনটিকে তথা জাতীয় শোক দিবসে (১৫ আগস্ট) জন্মদিন পালনের যে জঘন্য রীতি সে তৈরী করেছে তা […]

বিস্তারিত