বগুড়ার ধুনটে জামাই মেলায় মাছ বিক্রির ধুম

নিউজ ডেস্ক: বগুড়ার ধুনট উপজেলায় গতকাল বুধবার জামাইবরণ উপলক্ষে গ্রামীণ ঐতিহ্যবাহী বকচরের মেলা হয়েছে। প্রতিবছর বাংলা সনের মাঘ মাসের তৃতীয় সপ্তাহে বুধবারে বসে এক দিনের এই মেলা। তা চলে আসছে শত বছর ধরে।

এলাকাবাসী মাঠ ইজারা নিয়ে এই মেলার আয়োজন করেন। মেলার দু–তিন দিন আগে থেকেই আশপাশের গ্রামগুলোতে আত্মীয়স্বজন আসতে থাকেন। এই মেলার প্রধান আকর্ষণ জামাতাদের মাছ ও মিষ্টি কেনা। এ জন্য এটি জামাই মেলা হিসেবে পরিচিত। পরদিন বসে বউমেলা।

স্থানীয় প্রবীণ বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, উপজেলার কালেরপাড়া ইউনিয়নের রামনগর, ঈশ্বরঘাট, হেউটনগর কোদলাপাড়া নামের চারটি গ্রামের মাঝখানে একটি বিশাল ফসলের মাঠ রয়েছে। এই মাঠের মাঝখানে রয়েছে একটি বড় বিল। একসময় এই বিলে অসংখ্য বক আসত। এ কারণে ওই মাঠের নাম হয় বকচর। অন্তত এক শ বছর ধরে প্রতিবছর এই চার গ্রামের মানুষ ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই বকচরের মেলার আয়োজন করেন। বাড়ি বাড়ি মেয়ে-জামাতারা আসেন। সঙ্গে নাতি-নাতনিরা আসে। এতে গ্রামগুলোতে উৎসবমুখর পরিবেশ বিরাজ করে। মেলায় প্রচুর পরিমাণ মাছ ও মিষ্টি ওঠে। আর এলাকার জামাতারা মেলায় গিয়ে বড় বড় মাছ কেনেন। মাটির হাঁড়িতে ভরে মিষ্টি নেন। এসব নিয়ে শ্বশুরবাড়ি যান। কোন বাড়ির জামাতা কত বড় এবং বেশি মাছ ও মিষ্টি কিনতে পারেন, এ নিয়ে চলে প্রতিযোগিতা। এ ছাড়া এক দিনের এই মেলায় নানা বয়সের সব শ্রেণিপেশার মানুষের ঢল নামে। পরদিন সকালে বসে বউমেলা। তাঁরা স্বামীদের সঙ্গে মেলায় যান। তাঁদের পছন্দের জিনিসপত্র কেনাকাটা করেন।

মেলার আয়োজক কমিটির লোকজন বলেন, মেলার প্রায় সপ্তাহ আগেই স্বজনদের দাওয়াত দেওয়া হয়। তাঁদের তালিকার শীর্ষে রাখা হয় নতুন জামাই-বউদের। মেলার প্রধান আকর্ষণ থাকে মাছ ও মিষ্টি। তবে এর সঙ্গে বিভিন্ন পণ্যসামগ্রী পাওয়া যায়। দূর-দূরান্ত থেকে লাখো মানুষ এ মেলায় আসে।

এই অঞ্চলের মেয়েরা মেলা উপলক্ষে তাঁদের স্বামী নিয়ে বাবার বাড়ি বেড়াতে আসেন। সেই মাছ-মিষ্টি দিয়ে এলাকার প্রায় প্রতি বাড়িতে জামাইদের আপ্যায়ন করা হয়।

সরেজমিনে দেখা গেছে, সকাল থেকেই মেলামুখী হাজারো মানুষের ঢল। মেলায় যাওয়ার সব কটি পথেই মানুষের ভিড়। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের সারি আরও দীর্ঘ হতে থাকে। মেলার সিংহভাগ জায়গা মাছ ব্যবসায়ীদের দখলে থাকে। এর মধ্যে আড়তদার ও খুচরা ব্যবসায়ী রয়েছেন। পরের স্থানে রয়েছেন মিষ্টি ব্যবসায়ীরা। এ ছাড়া রকমারি হোটেল, কাঠ, শিশুতোষ খেলনার পসরা নিয়ে বসেছেন ব্যবসায়ীরা।

মেলায় আসা আমজাদ হোসেন বলেন, বগুড়া শহর থেকে মেলার পাশের গ্রামে শ্বশুরবাড়ি এসেছেন। প্রতিবছরই তিনি মেলায় এসে বাহারি মাছ কেনেন। তা ছাড়া মিষ্টি কেনেন। মেলা উপলক্ষে ব্যাপক আনন্দ হয়।

মেলায় মাছ ব্যবসায়ী আনোয়ার হোসেন বলেন, এবারের মেলায় যমুনা নদী ও চলনবিলের বড় রুই, কাতল, বোয়াল, শোল, আইড়, পাঙাশসহ পুকুরে চাষ করা নানা প্রজাতির মাছের প্রচুর আমদানি ঘটেছে। এবার মেলায় ছয় থেকে আট কেজি ওজনের মাছের চাহিদা বেশি। ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী মাছ আনা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

সাক্কু

বিএনপি থেকে অব্যাহতি পেয়ে স্বস্তিতে মেয়র সাক্কু

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে তৃতীয়বারের মত অংশ নেয়ার জন্য কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা বিএনপি থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে অব্যাহতি নিলেন জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ও সদ্য বিদায়ী কুমিল্লা সিটির মেয়র মনিরুল হক সাক্কু। কুসিক মেয়র মনিরুল হক সাক্কু বলেন, ‘তফসিল অনুযায়ী মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন। তাই বিএনপির […]

বিস্তারিত
জেএসএস

সেনাবাহিনীকে হটিয়ে পার্বত্যাঞ্চলকে জুম্মল্যান্ড বানাতে চায় সশস্ত্র উপজাতিরা

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: পার্বত্য চট্টগ্রামের রাঙামাটি, বান্দরবান খাগড়াছড়ি এই তিন এলাকায় জেএসএস (মূল), জেএসএস (সংস্কার), ইউপিডিএফ (মূল) ও ইউপিডিএফ (সংস্কার) সশস্ত্র সন্ত্রাসী গ্রুপ অনেকটা প্রকাশ্যেই চাঁদাবাজি করছে। হাঁস-মুরগি, গরু-ছাগল, গাছের ফল, ক্ষেতের ফসল, জমি কেনা-বেচা, এমনকি ডিম-কলা বিক্রি করতে গেলেও চাঁদা দিতে হয় তাদের। ছোট-বড় ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, কৃষক-শ্রমিক-মৎসজীবী, সড়কে […]

বিস্তারিত

খুলনায় মন্দিরের প্রতিমা ভেঙে ধরা পড়লো হিন্দু যুবক

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টে একের পর অপতৎপরতা চালাচ্ছে একটি চক্র। যার ধারাবাহিকতায় কুমিল্লা, রংপুর ও নওগাঁয় মন্দিরে হামলার মতো ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটায় তারা। এরপর নতুন করে খুলনায় ঘটিয়েছে এমন ঘটনা। জানা যায়, খুলনার ফুলতলা এম এম কলেজ সার্বজনীন পূজা মন্দিরে স্বরস্বতী প্রতিমার মাথা ভেঙে পালানোর সময় অনিক মন্ডল […]

বিস্তারিত