যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসন পদ্ধতি সংস্কার করতে চান ট্রাম্প

নিউজ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসন পদ্ধতি সংস্কার করে অবৈধ অভিবাসন বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাতে কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে স্টেট অব দ্য ইউনিয়ন নামে পরিচিত বার্ষিক ভাষণে অবৈধ অভিবাসন থামানোর আহ্বান জানান তিনি।

একই সঙ্গে মাদক, চোরাচালান, নারী ও শিশু পাচার ঠেকাতে মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন ট্রাম্প। দেশে রাজনৈতিক ঐক্য প্রতিষ্ঠার ওপরও গুরুত্ব দিয়েছেন তিনি। অবৈধ অভিবাসন থামানোর কথা বললেও বৈধ অভিবাসীদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রে কোনও বাধা নেই বলে উল্লেখ করেছেন।

ভাষণের শুরুতেই ট্রাম্প বলেন, তার এ ভাষণ রিপাবলিকান বা ডেমোক্রেট পার্টির জন্য নয়। এই ভাষণ মার্কিন নাগরিকদের উদ্দেশে। কেননা, যুক্তরাষ্ট্র দুই দলের নয় বরং এক জাতি হিসেবে পরিচালিত হবে। তার ভাষায়, কোনও দলের জন্য জেতাটা বিজয় নয়, দেশের জন্যে বিজয় হচ্ছে প্রকৃত বিজয়।

ভাষণ চলাকালে কংগ্রেসে উপস্থিত দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের তিন যোদ্ধাকে পরিচয় করিয়ে দেন ট্রাম্প। ৫০ বছর আগে চাঁদে অবতরণকারী নভোচারী বাজ অলড্রিনকেও পরিচয় করিয়ে দেন তিনি।

ট্রাম্প বলেন, বিংশ শতাব্দীর আমেরিকা মানুষের স্বাধীনতা নিশ্চিত করেছে। বিজ্ঞানের প্রসার ঘটিয়েছে এবং মধ্যবিত্ত শ্রেণির জীবনমান উন্নত করেছে। পুরো দুনিয়ায় তা জানা আছে। এখন আমাদের সাহসের সঙ্গে শক্তভাবে সমৃদ্ধ আমেরিকা গঠনের নতুন অধ্যায় রচনায় মনোনিবেশ করতে হবে। একবিংশ শতাব্দীর জন্য জীবনমানের এক নতুন মানদণ্ড তৈরি করতে হবে।

তিনি বলেন, একসঙ্গে বসে আমরা দশকের পর দশক ধরে চলা রাজনৈতিক মতানৈক্য দূর করতে পারি, আগের বিভক্তি দূর করতে পারি, অতীতের ক্ষত মুছে ফেলতে পারি, নতুন জোট করতে পারি এবং নতুন সমাধান খুঁজতে পারি।

ট্রাম্প বলেন, জ্বালানি খাতে আমরা নতুন বিপ্লব তৈরি করেছি। তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস উৎপাদনে যুক্তরাষ্ট্র পুরো দুনিয়ায় শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি ঈর্ষণীয়। মার্কিন বাহিনী পুরো দুনিয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী সেনাবাহিনী। প্রতিদিনই বিজয় লাভ করছে যুক্তরাষ্ট্র।

তিনি আরও বলেন, অভিবাসন পদ্ধতির সংস্কার যুক্তরাষ্ট্রের নৈতিক দায়িত্ব। এর মাধ্যমে আমেরিকানদের জীবন ও চাকরির নিশ্চয়তা নিশ্চিত হবে। যুক্তরাষ্ট্রের কর্মীবাহিনী ও রাজনীতিকদের মধ্যে বিভক্তির অন্যতম প্রধান একটি কারণ হচ্ছে অবৈধ অভিবাসীরা। মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ করে সে সমস্যার সমাধান করা সম্ভব।

দেয়াল নির্মাণের বিষয়ে ট্রাম্প বলেন, আমি এটা নির্মাণ করাবো তখনই রিপাবলিকান সমর্থকরা দাঁড়িয়ে উল্লাস প্রকাশ করেন। ট্রাম্প বলেন, দেয়াল যদি উঁচু হয়, অবৈধ সীমান্ত পারাপার কমে যায়। এই দেয়াল হবে একটি ইস্পাতের প্রাচীর, কংক্রিটের দেয়াল নয়। ৫৭০ কোটি ডলারে প্রাচীর তৈরির স্বপ্ন ভঙ্গ হলে, জাতীয় সংকট তৈরি হতে পারে বলেও হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন ট্রাম্প।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বলেন, সীমান্তে শক্তিশালী প্রতিবন্ধকতা তৈরির ফলে অবৈধ উপায়ে সীমান্ত পারাপার কমেছে। এতে করে সানডিয়াগো এবং এল পাসোর মানুষের জীবন নিরাপদ হয়েছে।

তিনি বলেন, আমেরিকার কর্মক্ষেত্রে অধিক সংখ্যক নারী যুক্ত হয়েছেন। কংগ্রেসে বিপুল সংখ্যক নারী নির্বাচিত হয়েছেন। আজকের এই অধিবেশনকে তারা আলোকিত করেছেন। উন্নয়নশীল দেশের নারীদের অর্থনৈতিকভাবে ক্ষমতায়ন করার লক্ষ্যে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিশেষ প্রয়াস নেওয়া হচ্ছে। বাণিজ্য নীতি শক্তিশালী করার কথাও উল্লেখ করেন ট্রাম্প।

তিনি বলেন, চীন বহু বছর ধরে আমাদের বুদ্ধিবৃত্তিক সম্পদ চুরি করেছে। তারা আমেরিকান চাকরির বাজার দখল করেছে। এসব বন্ধের সময় এসেছে। চীনের কাছে ২৫০ বিলিয়ন ডলারের ওপর শুল্ক আরোপের ফলে যুক্তরাষ্ট্রের কোটি কোটি ডলার আয় হচ্ছে, যা আগে কখনও হয়নি।

ভাষণে ছয়টি বিষয়ের ওপর গুরুত্বারোপ করেন ট্রাম্প। এর মধ্যে প্রথমেই নিজের মেয়াদে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থনীতিকে সফল বলে উল্লেখ করেন তিনি। একই সঙ্গে গুরুত্বারোপ করেন সীমান্ত দেয়াল নির্মাণের ওপর। অবকাঠামো উন্নয়নে ১ দশমিক ৫ ট্রিলিয়ন বা ১ লাখ ৫০ কোটি ডলার খরচের কথাও উল্লেখ করেন তিনি। স্বাস্থ্যসেবা সংস্কার এবং ২০৩০ সাল নাগাদ এইডস দূরীকরণের উদ্যোগ নেওয়ার কথাও বলেন ট্রাম্প। উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে যুদ্ধ না করেই দেশটিকে পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত করাকে নিজ প্রশাসনের সাফল্য হিসেবে উল্লেখ করেছেন ট্রাম্প।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

পাকিস্তানি রুপির ঐতিহাসিক পতন

পাকিস্তানি রুপির ঐতিহাসিক পতন: ১ ডলার মিলছে ২০০ রুপিতে

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: রাজনৈতিক চড়াই-উৎরাইয়ের মধ্যে এবার ডলারের বিপরীতে রুপির ঐতিহাসিক পতনের সাক্ষী হলো পাকিস্তান। বৃহস্পতিবার (১৯ মে) পাকিস্তানের মুদ্রাবাজারে ১ ডলারের বিপরীতে পাওয়া যাচ্ছে ২০০ রুপি। পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম জিও নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বৃহস্পতিবার দিনের শুরুতে ডলারের বিপরীতে রুপির মান ছিল ১৯৮ দশমিক ৩৯; কিন্তু মাত্র কয়েক […]

বিস্তারিত

যুক্তরাষ্ট্রে চরমপন্থী হামলায় অংশ নেয় সেনাসদস্যরাও

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin যুক্তরাষ্ট্রে সামাজিক অস্থিরতা বেড়েই চলেছে। মহামারি রূপ নিয়েছে হত্যা-হানাহানি। কমছে না জাতিগত বিদ্বেষ, বর্ণবাদও। তেমন কোনো কারণ ছাড়াই অবলীলায় একজন আরেকজনকে গুলি করে মেরে ফেলছে। চলতি বছর দেশটির ছোট-বড় প্রায় ডজনখানেক শহরে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় রেকর্ড হয়েছে। বিশ্লেষকরা বলছেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতি ও মহামারি সৃষ্ট নানাবিধ মানসিক ট্রমা, অর্থনৈতিক ক্ষতি […]

বিস্তারিত

আওয়ামী লীগ থেকে শিক্ষা নেবে বিএনপি

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক : বাংলাদেশে প্রধান দুই রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ এবং বিএনপি। আওয়ামী লীগ যখন তার প্রতিষ্ঠার ৭২ বছর উদযাপন করছে, তখন বিএনপি অস্তিত্বের সংকটে। বিএনপি নেতারাই বলেন ‘৭৫ পরবর্তী সময়ে আওয়ামী লীগ যে অবস্থায় ছিলো, বিএনপি এখন সেই পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে।’ কিন্তু ৭৫ পরবর্তী আওয়ামী লীগ […]

বিস্তারিত