ভুয়াদের কারণে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের আকাঙ্ক্ষা পূরণ হচ্ছে না : মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক: কিছু সংখ্যক ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার কারণে প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের আকাঙ্ক্ষা পূরণ হচ্ছে না বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় অমুক্তিযোদ্ধাদের নাম থাকা অগৌরবের উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকায় স্বাধীনতাবিরোধী কারও নাম থাকলে তা যাচাই করে অবশ্যই বাদ দেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তরে পৃথক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা বলেন। ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়ার সভাপতিত্বে বৈঠকের শুরুতে প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠিত হয়।

জাতীয় পার্টির মুজিবুল হক চুন্নুর সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী বলেন, কিছু সংখ্যক ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার কারণে মুক্তিযোদ্ধাদের যে আকাঙ্ক্ষা তা পূরণ হচ্ছে না। মুক্তিযোদ্ধারা গলায় একটি করে পরিচয়পত্র ঝুলিয়ে ঘুরবেন তা পারছেন না। স্বাধীনতা দিবসের আগেই তাদের এই দাবি পূরণে সর্বাত্মক চেষ্টা থাকবে আমাদের।

মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকায় পিস কমিটির সদস্য ও তাদের সন্তানদের নাম থাকা বিষয়ে শফিকুল ইসলাম শিমুলের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকায় অমুক্তিযোদ্ধাদের নাম থাকা জাতির জন্য কেবল অগৌরবের নয়, ইতিহাসেরও বিকৃতি। এটা হতে পারে না। এই ধরনের কিছু থাকলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কেউ থেকে থাকলে তাদেরকে বাদ দেওয়া হবে।

মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা প্রকাশ প্রসঙ্গে আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, আগে দুই লাখের ওপর মুক্তিযোদ্ধা ভাতা পেতেন। আমরা ২০ হাজারের বেশি ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা চিহ্নিত করে তালিকা থেকে বাদ দিয়েছি। বর্তমানে ভাতাপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধাদের সংখ্যা এক লাখ ৮২ হাজারের কিছু বেশি। নির্ভুল চূড়ান্ত মুক্তিযোদ্ধার তালিকা তৈরির কাজ এখনও চলমান রয়েছে। ভারতীয় তালিকা, লাল মুক্তিবার্তা ও মুজিবনগর সরকারের তালিকাসহ যেসব তালিকার বিষয়ে কোনও আপত্তি নেই সেগুলো আগামী মার্চ মাসের মধ্যে প্রকাশের আশা করছি। আর যেগুলোর বিষয়ে আপত্তি রয়েছে তা যাচাই-বাছাই চলমান থাকবে। যাচাই-বাছাইয়ে যারা টিকবে তাদের তালিকা আমরা পরবর্তীতে প্রকাশ করবো।

অপর এক সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকা যাচাই করে পাঠানোর জন্য বলা হলেও সব জেলা থেকে একরকমভাবে তালিকা আসেনি। যার কারণে এটি চূড়ান্ত করা যায়নি। নতুন মন্ত্রিসভা গঠিত হওয়ায় জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা) নতুন করে গঠনের প্রক্রিয়া চলছে। এটা গঠিত হলে অল্পদিনের মধ্যে আমরা এই সমস্যা নিষ্পত্তি করার চেষ্টা করবো।

আনোয়ারুল আবেদীন খানের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, ইউনিয়নের ক্ষেত্রে ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভার ক্ষেত্রে ওয়ার্ডের সামনে মুক্তিযোদ্ধার তালিকা লিখে দৃশ্যমান স্থানে টাঙিয়ে রাখার জন্য সিদ্ধান্ত রয়েছে। তবে, এটি এখনও বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়নি। চূড়ান্ত তালিকা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে এটা বাস্তবায়নে যত্নবান হবো। সব মুক্তিযোদ্ধার বাড়িগুলো আলাদাভারে রঙ দিয়ে চিহ্নিত করা যায় কীনা তা ভেবে দেখা হবে বলেও জানান।

আগামী অর্থবছরে মুক্তিযোদ্ধাদের ভাতা আরেকটু সম্মানজনক হারে বাড়ানোর চিন্তাভাবনা চলছে বলেও মন্ত্রী জানান।

মুজিবুল হকের অপর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী জানান, বর্তমানে (জানুয়ারি ২০১৯) দেশে ভাতাপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধার সংখ্যা এক লাখ ৮৭ হাজার ২৯৩ জন।

কুষ্টিয়া-৪ আসনের সেলিম আলতাফ জজের প্রশ্নের জবাবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক জানান, স্বাধীনতাবিরোধী রাজাকার এবং পাক হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয়ভাবে ঘৃণা প্রকাশের জন্য কেন্দ্রীয়ভাবে ঢাকায় একটি ঘৃণা স্তম্ভ নির্মাণের জন্য জায়গা নির্বাচনের কাজ চলমান রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

বিএনপি বিদেশিদের দিয়ে সরকার উৎখাত করার স্বপ্ন দেখছে: হানিফ

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin বিএনপি বিদেশিদের দিয়ে সরকার উৎখাত করার স্বপ্ন দেখছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ। তিনি বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে পাকিস্তানের পরাজয় হলেও বর্তমান বাংলাদেশে তাদের এজেন্টরা এখনো বেঁচে আছে। তারা (বিএনপি) নানান সময়ে নানা মিথ্যাচার করে, অভিযোগ করে বিদেশিদের দিয়ে সরকার উৎখাত করার স্বপ্ন […]

বিস্তারিত

ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে শপথ নিতে হবে: কৃষিমন্ত্রী

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin আওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর খুনিরা আজও ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধবিরোধী জামায়াত-বিএনপির সব ষড়যন্ত্র প্রতিরোধ করতে সবাইকে শপথ নিতে হবে। বৃহস্পতিবার রাজধানীর জহির রায়হান সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে গেন্ডারিয়া থানা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে এসব […]

বিস্তারিত

চৌদ্দগ্রামে বিএনপি কার্যালয় ভাঙচুর করলেন যুবদল নেতা

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে দলীয় কর্মসূচিতে দাওয়াত না পেয়ে বিএনপি কার্যালয়ের আসবাবপত্র ভাঙচুর করেছেন যুবদল নেতা নাজমুল হক। তিনি চৌদ্দগ্রাম উপজেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক। জানা গেছে, বুধবার সন্ধ্যায় চৌদ্দগ্রাম বাজারের বিএনপির কার্যালয়ে উপজেলা ও পৌর বিএনপির উদ্যোগে এক দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। পৌর বিএনপির সদস্য সচিব […]

বিস্তারিত