সাতক্ষীরা জেলা আ.লীগ সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে নালিশ

নিউজ ডেস্ক: সাতক্ষীরার তালা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী মনোনয়নে তৃণমূল নেতাকর্মীদের মতামত উপেক্ষা করে অন্য প্রার্থীদের নামের তালিকা পাঠানো হয়েছে এমন অভিযোগে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন দুই নেতা।

পছন্দমতো প্রার্থীর নাম দেয়া হয়েছে বলে সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুনসুর আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলামের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ আনা হয়।

বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় যুবলীগের সহ-সম্পাদক রফিকুল ইসলাম ও সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক প্রণব ঘোষ বাবলু এ অভিযোগ আনেন।

অভিযোগে বলা হয়েছে, তৃণমূলের মতামতের ভিত্তিতে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে তিনজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনজন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনজনের নামের তালিকা কেন্দ্রে পাঠানো নির্দেশনা দেয়া হয়।

কিন্তু এই নির্দেশনা মানেননি জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদক। মনোনয়নের লক্ষ্যে ২৬ জানুয়ারি তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় মনোনয়নের জন্য চেয়ারম্যান পদে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ফিরোজ কামাল শুভ্র, উপ-প্রচার সম্পাদক প্রভাষক প্রণব ঘোষ বাবলু, তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ নুরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক ঘোষ সনৎ কুমার ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের সহ-সম্পাদক রফিকুল ইসলাম আবেদন করেন।

এ সময় কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুযায়ী তৃণমূলের নেতাকর্মীরা ভোটের মাধ্যমে প্রার্থী নির্বাচনের দাবি জানান। সভা মুলতবি করে চলে যাওয়ার সময় টানা আড়াই ঘণ্টা জেলা সভাপতি ও সম্পাদককে অবরুদ্ধ করে রাখেন তৃণমূল নেতাকর্মীরা। পরে চাপের মুখে পরের দিন ভোটের মাধ্যমে প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে বলে ঘোষণা দেন জেলা সভাপতি।

অভিযোগে আরও বলা হয়, ঘোষণা মোতাবেক ২৭ জানুয়ারি জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সরদার ফিরোজ আহম্মেদের উপস্থিতিতে ২৯০ জন কাউন্সিলরের মতামতে তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ঘোষ সনৎ কুমার, জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক প্রভাষক প্রণব ঘোষ বাবলু ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের সহ-সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মনোনীত হন। অথচ প্রণব ঘোষ বাবলু ও রফিকুল ইসলামের নাম বাদ দিয়ে তালা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ নূরুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক ঘোষ সনৎ কুমার ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ফিরোজ কামাল শুভ্রের নাম কেন্দ্রে পাঠিয়েছে জেলা কমিটি।

তালা উপজেলা চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপ্রত্যাশী জেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক প্রণব ঘোষ বাবলু ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের সহ-সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম জানান, দলের গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করায় সাতক্ষীরা জেলা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় সভাপতি-সম্পাদকের কাছে অভিযোগ দিয়েছি। কেন্দ্র এ ঘটনায় সুষ্ঠু ব্যবস্থা নেবেন।

এ বিষয়ে সাতক্ষীরা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বলেন, সুষ্ঠু পরিবেশের অভাবে নির্বাচন করা সম্ভব হয়নি। এজন্য যাদের যোগ্য মনে করা হয়েছে তাদের নাম জেলা থেকে কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

হারিকেনই বিএনপির বর্তমান রাজনৈতিক প্রতীক!

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin   নিউজ ডেস্ক: যে বিএনপি বিদ্যুৎ দাবি করায় গুলি করে মানুষ হত্যা করেছিল, সেই বিএনপির ডাকা মিছিলের হারিকেন থেকে পেট্রোল বোমা বের হয় কি না তা নিয়ে এখন শঙ্কিত জনগণ। কারণ নিজেদের স্বার্থসিদ্ধির জন্য এমন কোনো কাজ নেই যা বিএনপি করেনি। তাদের কাছে ক্ষমতা বড়। দেশের মানুষ রসাতলে […]

বিস্তারিত

কেন ৭৭ বছর বয়স পর্যন্ত জাতীয় পরিচয়পত্র করেননি সন্তু লারমা?

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin   জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা ওরফে সন্তু লারমা ৭৭ বছর বয়সে বাংলাদেশের ভোটার তালিকায় নাম উঠিয়েছেন৷ প্রশ্ন উঠেছে, বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্র না নেওয়া পাহাড়ি এ নেতা কেন দীর্ঘ বছর ধরে এনআইডি কার্ড ছাড়া থাকলেন? অনেকেই বলে থাকেন, করোনা মহামারির কারণেই হয়তো ভোটার হয়েছেন এ নেতা৷ কেননা সরকারের সিদ্ধান্ত আছে […]

বিস্তারিত

বাংলাদেশকে শ্রীলঙ্কা বানাতে তৎপর বিএনপি!

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: সারাদেশে আজ থেকে শুরু হয়েছে এলাকাভিত্তিক লোডশেডিং। সংকট মোকাবেলায় দেশের ডিজেলভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রগুলোতে বিদ্যুৎ উৎপাদন স্থগিত করার কারণে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে সরকার। মূলত রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকেই বিশ্ববাজারে দাম চড়া হওয়ায় খোলাবাজার বা স্পট মার্কেট থেকে এলএনজি কেনা বন্ধ রাখে বাংলাদেশ। জ্বালানি […]

বিস্তারিত