কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীবের দ্বিতীয় দিনের জেরা শেষ, জেরা চলবে

নিউজ ডেস্ক: কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারকে রোববার দ্বিতীয় দিনেও সিবিআইর কর্মকর্তারা জেরা করেছেন। বেলা ১১টার দিকে শুরু হয়ে জেরা চলে দুপুর পর্যন্ত। মধ্যাহ্নভোজের পর আবার জেরা করে সিবিআই রাত অবধি চলে এই জেরা।

সংবাদমাধ্যম সিবিআইর সূত্র উল্লেখ করে বলেছে, রাজীব কুমারের বক্তব্যে সন্তুষ্ট হতে পারেনি সিবিআই, তাই জেরার জন্য আগামীকাল সোমবারও রাজীব কুমারকে ডেকেছে।

রোববার অবশ্য জেরা করা হয়েছে তৃণমূলের সাংসদ ও সারদার মিডিয়া সেলের সাবেক প্রধান কুণাল ঘোষকেও। সিবিআই এখন কুণাল ঘোষ ও রাজীব কুমারের বয়ান মিলিয়ে দেখে আবার জেরা করবে। সিবিআই জেরার জন্য ২২ পাতার প্রশ্নমালা তৈরি করেছে। সেই প্রশ্নমালা ধরেই চলছে রাজীব কুমারের জেরা। শনিবার সিবিআই রাজীব কুমারকে ৭ ঘণ্টা জেরা করে। আর রোববার করে ৮ ঘণ্টা। এবার রাজীব কুমার ও কুণাল ঘোষকে পাশাপাশি বসিয়ে জেরা করার কথা জানিয়েছে সিবিআই।

সিবিআইয়ের সমন পেয়ে রাজীব কুমার শনিবার বেলা ১১টা নাগাদ উপস্থিত হন শিলংয়ের ওকল্যান্ডের সিবিআই দপ্তরে। তাঁর সঙ্গে ছিলেন কলকাতা পুলিশের দুই কর্মকর্তা। তাঁরা হলেন কলকাতার অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার জাভেদ শামীম এবং ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (এসটিএফ) মুরলি ধর শর্মা। যদিও এই দুদিন এই দুই পুলিশ কর্মকর্তা শিলংয়ের সিবিআই দপ্তরে গেলেও সিবিআই তাঁদের জেরাকালীন দপ্তরে থাকতে দেয়নি।

জেরাকালীন রাজীব কুমারের পুরো বয়ান রেকর্ডও করা হয়।

সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে সিবিআই যে একগুচ্ছ অভিযোগ হলফনামা দিয়ে আদালতে পেশ করেছিল, সেসব অভিযোগ নিয়ে প্রশ্ন আবর্তিত হচ্ছে। বিশেষ করে সারদার শীর্ষ কর্মকর্তা দেবযানি মুখোপাধ্যায় কলকাতা থেকে পালিয়ে জন্মু ও কাশ্মীর থেকে গ্রেপ্তার হওয়ার সময় তাঁর কাছ থেকে যে ল্যাপটপ ও পেনড্রাইভ উদ্ধার করেছিল পুলিশ তা নিয়েও প্রশ্ন হয়েছে। ওই ল্যাপটপ ও পেনড্রাইভ পুলিশের কাছে থাকলেও পরবর্তী সময়ে সেগুলো পুলিশ সিবিআইর হাতে দেয়নি। সিবিআইর অভিযোগ, পশ্চিমবঙ্গ সরকারের সারদার তদন্ত নিয়ে গঠিত সিট–এর সুপারভাইজিং অফিসার হিসেবে রাজীব কুমার ওই সব তথ্য নষ্ট করে ফেলেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

জঙ্গিদের মতোই সংগঠিত হচ্ছে জামায়াত

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin জামায়াতে ইসলামীর শীর্ষনেতা ও মানবতাবিরোধী হিসেবে দণ্ড পেয়ে ফাঁসিতে মৃত্যুবরণকারী মতিউর রহমান নিজামী ও মাওলানা আব্দুস সোবহানের বাড়ি পাবনা জেলায়। বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় থাকাকালীন মতিউর রহমান নিজামী মন্ত্রী ছিলেন এবং পুরো পাবনা জেলায় দলকে সংগঠিত করেছিলেন। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু হয় এবং জামায়াতের বড় […]

বিস্তারিত

কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে পারে জামায়াত

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin বিএনপি চাইলেই জামায়াতে ইসলামী তাদের সঙ্গ ত্যাগ করবে। ২০-দলীয় জোটে জামায়াতের প্রয়োজন নেই- এ কথা বিএনপিকেই আগে বলতে হবে। তবেই জোট ছেড়ে যাবে যুদ্ধাপরাধীর দায়ে অভিযুক্ত দলটি। জামায়াত নিজে ২০-দলীয় জোট থেকে বেরিয়ে আসবে না। তারা জোট ভাঙার দায় নেবে না। এছাড়া পরিবর্তিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় দলের বর্তমান নাম […]

বিস্তারিত

জাতীয় নির্বাচন নিয়ে চাপে বিএনপি

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচন এগিয়ে আসছে দ্রুত। সাংবিধানিকভাবে সংসদীয় নির্বাচন অনুষ্ঠান হওয়ার কথা ২০২৩ সালের শেষ দিকে। কিন্তু এ নির্বাচনে অংশ না-নিতে টালবাহানা করছে প্রধান বিরোধী দল বিএনপি। ভোট থেকে দূরে থাকতে তাদের ওজর-আপত্তির শেষ নেই। বিশ্লেষকরা বলছেন, বিএনপি নেতৃত্বের আস্থাহীনতা ও গণবিরোধী কর্মসূচির কারণে তারা নির্বাচনে অংশ নেয়ার […]

বিস্তারিত