বিএনপির ১২০ নেতাকে তারেক রহমানের হোয়াটস অ্যাপ মেসেজ

নিউজ ডেস্ক: ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯-এ বেগম খালেদা জিয়ার কারাবরণের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে বিএনপির সিনিয়র ১২০ নেতাকে হোয়াটস অ্যাপ-এ মেসেজ পাঠিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। উক্ত মেসেজে বলা হয়েছে, ‘দলের জন্য কাজ না করতে পারলে দল ছেড়ে ব্যবসার কাজে লেগে পড়ুন’।

এপর্যন্ত বিএনপির যে সব নেতা এই মেসেজ পেয়েছেন, তাদের মধ্যে রয়েছেন ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা আব্বাস, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া এবং গয়েশ্বর চন্দ্র রায় অন্যতম। বিএনপির একাধিক দায়িত্বশীল সূত্রের বরাতে তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত হওয়া গেছে।

জানা যায়, হোয়াটস অ্যাপের মেসেজে তারেক রহমান নেতাদের ‘প্রিয় মহোদয়’বলে সম্বোধন করেছেন। মেসেজের শুরুতেই বিএনপির ঐতিহ্য এবং এদেশের মানুষের কাছে দলের জনপ্রিয়তার প্রসঙ্গ এনে লেখা হয় জনগণের আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে প্রতিনিয়ত সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে বিএনপিতে। এছাড়া বেগম জিয়ার কারাবরণ, ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচন প্রসঙ্গ তুলে ধরা হয়েছে মেসেজে। তাতে সরকারের সমালোচনার পাশাপাশি এসেছে বিএনপির ব্যর্থতার কথাও। বিএনপি অপশক্তিকে রুখে দিতে পারেনি বলেও মন্তব্য করা হয়েছে এখানে।

তবে দলের নেতাদের অতীত ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করে হোয়াটস অ্যাপ মেসেজে বলা হয়েছে ‘আপনাদের ত্যাগ এবং পরিশ্রমের কারণেই বিএনপি বিপুল জনপ্রিয় রাজনৈতিক সংগঠন হিসেবে টিকে আছে।’মেসেজে তারেক রহমান বর্তমান সময়কে দলের কঠিন সময় হিসেবে চিহ্নিত করে দেশের জন্য সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকারের আহ্বান জানিয়েছেন। পাশাপাশি ‘আন্দোলনের কোনো বিকল্প নেই’বলেও মন্তব্য করেছেন তারেক। আর আন্দোলনের তিন ধাপের প্রথম ধাপে সাংগঠনিক পুনর্বিন্যাস, দ্বিতীয় ধাপে জনসংযোগ এবং তৃতীয় ধাপে সর্বাত্মক আন্দোলনের কথা বলা হয়েছে সেখানে। এজন্য নেতাদের বিভ্রান্ত এবং হতাশ না হওয়ার পরামর্শ দিয়ে বলা হয়েছে ‘হয় কাজ করুন, না হলে পদ ছাড়ুন।’

এদিকে মেসেজের বিষয়ে বিএনপির একাধিক শীর্ষ নেতা মনে করছেন, তারেক রহমান যে দল পুনর্গঠন করতে যাচ্ছেন এই হোয়াটস অ্যাপ মেসেজ সম্ভবত তারই বার্তা। আগামী দুই একদিনের মধ্যে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম সিঙ্গাপুর থেকে লন্ডনে পৌঁছাবেন। সেখানে দলের নতুন নেতৃত্বের ব্যাপারে তারেক রহমান তার পরিকল্পনা জানাবেন বলে জানা গেছে।

যদিও বিএনপিতে ইতিমধ্যেই তারেক রহমানকে আপাতত দলের নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেয়ার পক্ষে মত তৈরি হয়েছে। তার পাল্টা জবাব হিসেবেই হোয়াটস অ্যাপ মেসেজ দিয়ে দলে নিজের শক্ত অবস্থান বোঝানোর চেষ্টা করছেন তারেক রহমান, এমনই মনে করছেন বিএনপির অনেক শীর্ষ নেতা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন

বিভক্ত বিএনপি, কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনেই দু’পক্ষের সংঘর্ষ

রাজশাহীর মাদ্রাসা মাঠে বিএনপির গণসমাবেশে কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনেই দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় প্ল্যাকার্ড ছোড়াছুড়ি করেন উভয়পক্ষের নেতাকর্মীরা। ব্যক্তিগত শো-ডাউনকে কেন্দ্র করে সাবেক সংসদ সদস্য নাদিম মোস্তফার বক্তব্য চলাকালে এ ঘটনা ঘটে। কেন্দ্রীয় নেতারা এ সময় বারবার তাদের নিবৃত্ত করার নির্দেশ দিলেও মারামারি চলতে থাকে। দুই পক্ষই সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। […]

বিস্তারিত

লাশের সন্ধানে বিএনপি

আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় মহাসমাবেশে সন্ধানে বিএনপি। যেকোনো মূল্যে লাশ পড়তে হবে এটিই বিএনপির মূল আরাধ্য এবং এ ব্যাপারে বিএনপির নেতা কর্মীদেরকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকার মহাসমাবেশকে সামনে রেখে বিভিন্ন পর্যায়ে বিএনপি এখন সমাবেশ করছে। ওয়ার্ডে এবং থানাগুলোতে বিএনপির এই সমস্ত কর্মীসভা গুলোতে কোনো রকম ছাড় না দেওয়া এবং পুলিশ যদি সামান্যতম […]

বিস্তারিত

লক্ষ্মীপুরে ছাত্রদল নেতা গ্রেফতার

লক্ষ্মীপুরে পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় ছাত্রদল নেতা সবুজ আহমেদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে শুক্রবার রাত ৮টার দিকে শহরের বাজার ব্রিজ এলাকার দোকান থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সবুজ জেলা ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ও লক্ষ্মীপুর পৌরসভার লামচরী এলাকার মৃত সুজায়েত উল্যার ছেলে। তিনি পেশায় ব্যবসায়ী। লক্ষ্মীপুর সদর মডেল থানার […]

বিস্তারিত