আধুনিক নগরী গড়ার প্রতিশ্রুতি নিয়ে আতিকুল ইসলামের ইশতেহার

নিউজ ডেস্ক: প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের নেয়া বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ শেষ করে ‘একটি সুস্থ, সচল ও ডিজিটাল’ ঢাকা গড়ার অঙ্গীকার করেছেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম।

মঙ্গলবার রাজধানীর হোটেল লেক শোরে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণায় তিনি এ অঙ্গীকার করেন। এ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী, ক্রিকেট তারকা, শিল্পী-অভিনেতা, প্রকৌশলীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠেয় এ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম। ইশতেহার ঘোষণাকালে তিনি বলেন, আমরা সবাই মিলে এই ইশতেহার তৈরি করেছি। আশা করছি, সবাই মিলে চেষ্টা করলে আমাদের লক্ষ্য অর্জন সম্ভব হবে। ঢাকা উত্তরের উন্নয়নে ডিজিটাল প্রযুক্তি ব্যবহার করার ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, ডিজিটাল প্রযুক্তিতে ট্রাফিক ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণ করা হবে। একটি অ্যাপ তৈরি করা হবে, যেখানে নাগরিক সমস্যা সরাসরি পাঠানো ও তা সমাধানের ব্যবস্থা থাকবে। সব গণপরিবহনের জন্যও একটি ডিজিটাল ও সমন্বিত ই-টিকেটিং ব্যবস্থা চালু করা হবে।

সবাইকে নিয়ে আকাঙ্ক্ষা ও বাস্তবতার মেলবন্ধন ঘটানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি বলেন, আমি জানি ইশতেহারের বিষয়গুলো বলা যতটা সহজ, বাস্তবায়ন করা ঠিক ততটাই কঠিন। কিন্তু আমি একনিষ্ঠ ও আত্মবিশ্বাসী। আপনাদের ভোটে নির্বাচিত হলে আমার সাধ্যের সবটুকু ঢেলে দেব। ঢাকার উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে সৃষ্টি হওয়া নানা সমস্যা উৎরানো আমার জন্য একটি কঠিন পরীক্ষা। আমার প্রধান লক্ষ্য রাজধানী ঢাকা যেন তার গৌরব না হারায় তা নিশ্চিত করা। ঢাকাকে সু-বসবাসের উপযোগী করে গড়ে তোলা। গতিময়, পরিবেশবান্ধব ও নিরাপদ ঢাকা গঠনে সব সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতা লাগবে।

আনিসুল হকের অপূর্ণ কাজ বাস্তবায়ন করার পাশাপাশি মশক নিধন, বিশুদ্ধ বাতাস ফিরিয়ে আনা, খেলাধুলা ও অন্যান্য গঠনমূলক কর্মকাণ্ডের জন্য উন্মুক্ত পার্ক ও মাঠ তৈরি করা, ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন, বহুতল ও ভূগর্ভস্থ পার্কিং ব্যবস্থা গড়ে তোলার দিকেও তার গুরুত্ব থাকবে বলে জানান আতিকুল ইসলাম।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

২১ আগস্ট: দেশকে নেতৃত্বশূন্য করার সেদিনের মিশনে

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: স্বাধীনতার প্রাক্কালে ১৪ ডিসেম্বর যেভাবে বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ড চালানো হয়েছিল, ঠিক একই উদ্দেশ্যে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী জনসভায় চালানো হয়েছিল ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা। দেশে বিরোধী মতকে দমন ও নিশ্চিহ্ন করার অংশ হিসেবে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উপর এই হামলা […]

বিস্তারিত

‘শেখ হাসিনা বেঁচে গেছে আমাদের সর্বনাশ হচ্ছে’

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক : ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট। তারেক জিয়ার পরিকল্পিত গ্রেনেড হামলা মঞ্চস্থ হয় বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে। মূল পরিকল্পনা করেছিলেন তারেক জিয়া হাওয়া ভবনে বসে। এই পরিকল্পনার লক্ষ্য ছিল একটাই- শেখ হাসিনাকে হত্যা করা এবং এই হত্যাকাণ্ডের পর এটি আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দল হিসেবে চালিয়ে দেওয়া। কিন্তু অলৌকিকভাবে বেঁচে […]

বিস্তারিত

জোট নেতাদের প্রশ্ন, নেতৃত্ব দেবে কে?

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: সরকারবিরোধী ‘বৃহত্তর রাজনৈতিক জোট’ গড়তে এরই মধ্যে ছোট-বড় সমমনা ডান-বাম ও ইসলামী ২২টি দলের সঙ্গে প্রাথমিক সংলাপ শেষ করেছে বিএনপি। ‘গণতন্ত্র মঞ্চে’র শরিক পাঁচটি দলের সঙ্গেও সংলাপ করে দলটি। কিন্তু সবারই একই প্রশ্ন নেতৃত্ব দেবে কে? তারেক রহমানের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হতে চায় না কোনো জোট নেতা। […]

বিস্তারিত