রাজপথের রাজনীতিতে পরাস্ত ঐক্যফ্রন্ট: দল বদল ঠেকাতে ফাঁকা বুলি ছুড়ছেন ড. কামাল

নিউজ ডেস্ক: গণফোরামের সভাপতি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, রাজনীতিতে আমাদের যা করণীয় তা আমরা করব। প্রয়োজনবোধে শিগগিরি আন্দোলনে নামব। রাজনীতি সচেতন সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা বলছেন, ড. কামাল মূলত তার বক্তব্যের মাধ্যমে সরকারবিরোধী আন্দোলনে নেতা-কর্মীদের ঝাঁপিয়ে পড়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।

১২ ফেব্রুয়ারি (মঙ্গলবার) জাতীয় প্রেসক্লাবের একটি অনুষ্ঠানে ড. কামালের এমন বক্তব্য দেয়ার পর থেকে রাজনৈতিক মহলে সমালোচনার ঝড় বইছে।

এদিকে সরকারবিরোধী আন্দোলন জোরদার করার জন্য ড. কামালের আহ্বানকে ফাঁকা বুলি হিসেবে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। জোটগত সাংগঠনিক শক্তির অভাবে মাঠের আন্দোলন বাদ দিয়ে বাক্যবাণে নিজেদের দুর্বলতা ঢাকতে এবং হাজার হাজার নেতা-কর্মীদের দলত্যাগ ঠেকাতে এমন কৌশল অবলম্বন করেছেন ড. কামাল বলেও মনে করছেন তারা।

ড. কামালের এমন বক্তব্যকে লোক দেখানো এবং ফাঁকা বুলি দাবি করে রাজনৈতিক বিশ্লেষক বিভুরঞ্জন সরকার বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে ও পরে ঐক্যফ্রন্টের সাংগঠনিক শক্তির বিষয়ে ভালোমতো অবগত হতে পেরেছে দেশবাসী। ঐক্যফ্রন্ট বা ড. কামাল যে কাগজের বাঘ সেটি প্রমাণ হতে বাকি নেই। মাঠের রাজনীতিতে অচল পয়সা খ্যাত ড. কামালরা বিএনপি-জামায়াতের ঘাড়ে চেপে ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন দেখেছিল। সেই স্বপ্ন ভেঙ্গে যাওয়ায় ঐক্যফ্রন্টের নেতারা বিএনপি-জামায়াতকে দোষারোপ করছেন।

তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশের বর্তমান রাজনীতিতে বিএনপি-জামায়াত বা ঐক্যফ্রন্টের করার আসলে কিছু নেই। তাদের ওপর জনগণের আস্থা নেই। আস্থা থাকলে ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে তাদের এমন পরাজয় হতো না। যখন দলে দলে নেতা-কর্মীরা ঐক্যফ্রন্ট ছেড়ে অন্যদলে যোগদান করছেন, তখন ড. কামালরা উঠেপড়ে লেগেছেন সেই ঢল থামাতে। নদীতে স্রোতের বিপরীতে গিয়ে কোনো লাভ হয় না, সেটি হয়তো ভুলে গেছেন ড. কামাল। ঐক্যফ্রন্ট টিকে আছে কিন্তু কঙ্কালসার হয়ে।

অন্যদিকে, ড. কামালকে দিকভ্রান্ত পথিক মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষক অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন।  তিনি বলেন, যখন তিনি জেনে-শুনে জামায়াতকে রাজনৈতিকভাবে সমর্থন দিয়েছেন, তখন ড. কামালের সকল অর্জন ম্লান হয়ে গেছে। মুখে বড় বড় কথা বললেও ক্ষমতার লোভ সামাল দিতে না পেরে তিনি দেশবিরোধী শক্তির সঙ্গে হাত মিলিয়েছেন। রাজপথের রাজনীতিতে কোনোদিনই জনসমর্থন পাননি ড. কামাল। সরকারবিরোধী বক্তব্য দিয়ে নিজের গ্রহণযোগ্যতা বাড়ানোর চেষ্টা করছেন তিনি। ড. কামাল হয়তো ভুলে গেছেন, রাজনীতি হয় রাজপথে, এসি রুমে বসে খাতা-কলমের আঁচড়ে নয়। শব্দের খেলায় রাজনীতি পরিবর্তন সম্ভব নয়।  রাজনীতিতে জনগণের ম্যান্ডেট প্রয়োজন হয়, বিদেশিদের আমন্ত্রণ আর ষড়যন্ত্রে নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

রয়টার্সের ফ্যাক্ট চেকে ধরা পড়লো বিএনপির অপপ্রচার

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক : সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিএনপি-জামায়াতের চালানো দেশবিরোধী মিথ্যা অপপ্রচার ধরা পড়েছে বিশ্বখ্যাত সংবাদ সংস্থা রয়টার্সের ফ্যাক্ট চেক বা সত্যতা নিরূপণ প্রক্রিয়ায়। বৃহস্পতিবার (১১ আগস্ট) রয়টার্স প্রকাশিত ‘ফ্যাক্ট চেক: বাংলাদেশে জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদের ভিডিওটি ২০২২ সালের নয়, ২০১৩ সালের’ (Fact Check-Video does not show 2022 fuel protests […]

বিস্তারিত

বিএনপির নির্যাতনের কথা আজও মানুষ ভোলেনি: তোফায়েল আহমেদ

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin আওয়ামী লীগ উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সাবেক মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বিএনপির ২০০১ সালের অত্যাচার নির্যাতনের কথা আজও মানুষ ভোলেনি। নির্যাতনের ক্ষত বয়ে বেড়াচ্ছেন আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাকর্মীরা। সম্প্রতি ভোলার ভেদুরিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ছিদ্দিক পাটোয়ারির জানাজার আগে ঢাকা থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন তোফায়েল আহমেদ। এ […]

বিস্তারিত

তারেকের সৌদি যাওয়ার আবেদন নাকচ

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান সৌদি আরবে ওমরাহ করার জন্য যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ব্রিটিশ সরকার তাকে অনুমতি দেয়নি। জানা গেছে, বর্তমানে তারেক রহমান ব্রিটিশ সরকারের রাজনৈতিক আশ্রয়ে থাকলেও এখনো ব্রিটিশ পাসপোর্টই পাননি। অনুসন্ধানে জানা গেছে, একটি পারমিট পাস নিয়ে তারেক রহমান বিদেশ যেতে পারেন। সেই পাসের […]

বিস্তারিত