হঠাৎ নিখোঁজ আব্দুল আজিজ, জাজের হাল ধরবে কে?

নিউজ ডেস্ক: জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আব্দুল আজিজকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। বেশ কিছু দিন থেকেই আড়ালে আছেন তিনি। এদিকে  ৯১৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকা বিদেশে পাচারের মামলার আসামি আব্দুল আজিজকে প্রেপ্তারের জন্য খুঁজছেন শুল্ক গোয়েন্দারা। আত্মগোপনে থাকা এ প্রযোজকের ব্যাপারে মুখ খুলতে চাননি জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্মকর্তারাও।

ক্রিসেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান ভাই এমএ কাদেরকে গ্রেপ্তারের পর থেকেই আত্মগোপনে আছেন আব্দুল আজিজ। তার একাধিক মোবাইল নম্বরে ফোন করলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়ার এক কর্মকর্তা মঙ্গলবার বিকেলে বলেন,‘আজিজ স্যারের সঙ্গে আমার কোনও যোগাযোগ নেই। আমি জানি না, উনি কোথায় আছেন। আমার কাছে তার কোনও আপডেট নেই। আমার কাছে এসব জানতে চাইবেন না প্লিজ।’

অনেকেই ধারণা করছেন দেশের বাইরে উড়াল দিয়েছেন আব্দুল আজিজ। তাহলে কে এখন সামলাচ্ছেন জাজ মাল্টিমিডিয়া। জানা গেছে, আবদুল আজিজের আত্মগোপনে থাকায় জাজ মাল্টিমিডিয়ার কার্যক্রম সামলাচ্ছেন সিইও আলিমুল্লাহ খোকন।
খোকনের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার ফোনও বন্ধ পাওয়া যায়।

আজিজের বিরুদ্ধে মামলার পরপরই আলিমুল্লাহ খোকন ২ ফেব্রুয়ারি এক ফেইসবুক স্ট্যাটাসে লেখেন, ‘চলচ্চিত্রের স্বার্থে জাজ নতুন ঘোষণা দিতে যাচ্ছে শিগগিরই।’ কিন্ত সেই ঘোষণা কী? এখনো সবার অজানা।

তবে এই বিষয়ে জাজের এক কর্মকর্তার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,‘জাজ আগে যেমন চলছিল তেমনই চলছে। নতুন কেউ হাল ধরেনি।’

গত সপ্তাহে ৯১৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকা বিদেশে পাচারের অভিযোগে এমএ কাদের ও তার ভাই আব্দুল আজিজসহ ক্রিসেন্ট গ্রুপ সংশ্লিষ্টদের পাশাপাশি ১৩ জন ব্যাংক কর্মকর্তাকে আসামি করে মামলা দায়ের করে শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর। মামলায় অভিযোগ করা হয়, ক্রিসেন্ট গ্রুপের তিনটি প্রতিষ্ঠানের রপ্তানি বিলের বিপরীতে জনতা ব্যাংক থেকে নেওয়া অর্থের মধ্যে ৯১৯ কোটি ৫৬ লাখ দেশে ফেরত আসেনি।

এর মধ্যে ক্রিসেন্ট লেদার প্রোডাক্টস ৪২২.৪৬ কোটি টাকা, আবদুল আজিজের রিমেক্স ফুটওয়্যার ৪৮১.২৬ কোটি টাকা ও ক্রিসেন্ট ট্যানারিজ ১৫.৮৪ কোটি টাকা অর্থাৎ মোট ৯১৯.৫৬ কোটি টাকা বিদেশে পাচার করা হয়েছে।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের মহাব্যবস্থাপক মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, মুদ্রাপাচারের প্রমাণ পেয়ে ক্রিসেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এ কাদের, রিমেক্স ফুটওয়্যারের চেয়ারম্যান আব্দুল আজিজ, ব্যবস্থাপনা পরিচালক লিটুল জাহান (মিরা), ক্রিসেন্ট লেদার প্রোডাক্টস ও ক্রিসেন্ট ট্যানারিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সুলতানা বেগম মনিসহ জনতা ব্যাংকের ১৩ জন কর্মকর্তার নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করা হয়।

আসামিদের মধ্যে এম কাদের ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে আছেন। বাকি আসামিদেরও খোঁজে মাঠে নেমেছেন শুল্ক গোয়েন্দারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও দেখুন

ছাত্রদলকে সাধারণ জনতা গণধোলাই দিয়েছে

ছাত্রদলকে সাধারণ ছাত্র-জনতা গণধোলাই দিয়েছে বলে দাবি করেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) ছাত্রলীগ। সম্প্রতি ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ঢাবি উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করতে ক্যাম্পাসে প্রবেশের চেষ্টা করলে নীলক্ষেত মুক্তি ও গণতন্ত্র তোরণের কাছে তাদের ওপর হামলা হয়। এই হামলা প্রসঙ্গে ছাত্রলীগ এই দাবি করেছে। ছাত্রদলের ওপর হামলার ঘটনার পর ছাত্রলীগ উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দিয়ে বের হয়। এ সময় […]

বিস্তারিত

ফখরুল সাহেবদের মন খারাপ কেন এত ভালো ভারত সফর হলো: তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘বাংলাদেশের প্রত্যাশা পূরণ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর সন্তোষজনকভাবে সফল হয়েছে। ভারত সরকারও এটা ব্যক্ত করেছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘বিএনপির ফখরুল সাহেবদের তো মন খারাপ কেন এত ভালো সফর হলো। সে জন্য তাদের মন খুবই খারাপ। তাদের কাজ হলো বিভ্রান্তি ছড়ানো। সেটাই নিয়ে তারা ব্যস্ত। মন খারাপের কারণে […]

বিস্তারিত

আমিন খানের মতো মদ খেয়ে রোজা রাখলেন তারেক রহমান

নিউজ ডেস্ক : বাংলা সিনেমার হিরো আমিন খান তার একটি সিনামায় মদ দিয়ে দাঁত মাজেন। উক্ত ছবিতে তিনি ভাতও মদ দিয়ে খান। যা দেখে অনুপ্রাণিত হয়ে মদ দিয়ে সেহেরি করে রোজা রাখলেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমান। মূলত রমজানের প্রথম দিনে কয়েকটি বারে ১ লাখ পাউন্ড জুয়া খেলে হেরেছেন বিএনপি নেতা। জুয়ার হার ভুলতে সেহেরি […]

বিস্তারিত