এবার জাবিতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ ও গুলি, প্রক্টরসহ আহত ১০

নিউজ ডেস্ক: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চল ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেলের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরসহ ১০ জন আহত হয়েছেন।

বুধবার বিকাল পৌনে ৬টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা এলাকায় সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষ চলাকালে ৬ রাউন্ড গুলি বিনিময়ের শব্দ শুনা যায়। এছাড়া উভয় গ্রুপের নেতাকর্মীদের হাতে বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র দেখা যায়।

পরে সাড়ে ৬টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল বডি ও বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দুই গ্রুপের নেতাকর্মীদেরকে শান্ত করলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

জানা যায়, সংঘর্ষ চলাকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ফিরজ উল হাসানের বুকে ইটের আঘাত লাগে। এছাড়া দুই গ্রুপের অন্তত পাঁচজন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। তারা হলেন- ছাত্রলীগ কর্মী সাজ্জাত, বাহার, মোস্তফা, উৎস ও রনি।

সংঘর্ষের সূত্রপাত সম্পর্কে জানা যায়, বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি রাজিব আহমেদ রাসেল তার স্ত্রীকে নিয়ে ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসেন। এ সময় বর্তমান সম্পাদক চঞ্চল তার নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠ এলাকায় রাসেলকে ধাওয়া দেন। এ খবর জানার পর রাজিবের অনুসারীরা বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র নিয়ে আবাসিক হলগুলো থেকে বের হয়ে বর্তমান সাধারণ সম্পাদকের আবাসিক হল শহীদ সালাম বরকতের উপর হামলা চালান। ফলে দুই গ্রুপের মাঝে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে।

সংঘর্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪টি হল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, শহীদ সালাম বরকত হল, মওলানা ভাসানি হল, শহীদ রফিক-জব্বার হল, রবিন্দ্রনাথ ঠাকুর হল ও আল বেরুনী হলের নেতাকর্মীরা অংশ নেয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, সংঘর্ষে চলকালে সর্বমোট ৬ রাউন্ড গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। বর্তমান সম্পাদকের অনুসারীদের দিক থেকে ২ এবং সাবেক সম্পাদকের অনুসারীদের দিক থেকে ৪ রাউন্ড গুলি ছোড়া হয়।

এই বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেল বলেন, ‘চঞ্চলের নেতৃত্বে আমার উপর অতর্কিতভাবে হামলা চালানো হয়েছে। এইসময় আমাকে ও আমার স্ত্রীকে লাঞ্ছিত করা হয়।’

শাখা ছাত্রলীগের বর্তমান সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চল বলেন, ‘আমার সঙ্গে রাজিব ভাইয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে দেখা হয়। আমি দেখে ওনাকে বলি- আপনি আসলে ক্যাম্পাসে নেতাকর্মীদের মাঝে উত্তেজনা তৈরি হয়, তাই আপনি চলে যান। এই কথা বলার পর ওনি আমার উপর হামলা করতে ওনার অনুসারীদেরকে ডেকে আনেন। এমন পরিস্থিতিতে আমি ওইখান থেকে চলে আসি। পরবর্তীতে তার (রাজিব) অনুসারীরা আমার হলে এসে হামলা চালায়। পরে হলের শিক্ষার্থীরা তাদেরকে প্রতিরোধ করে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে যে উত্তপ্ত পরিস্থিতি তাতে যেকোনো মূহুর্তে আবার সংঘর্ষ বাঁধতে পারে। তাই আমরা পুলিশ মোতায়েন করেছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

জাহেলিয়াতের যুগকেও হার মানায় বিএনপির শাসনামল

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: যুদ্ধাপরাধী, স্বাধীনতাবিরোধী চক্রের সাথে জোট বেধে ২০০১ সালের কারচুপির নির্বাচনে জয়ী হয় বিএনপি। বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের শ্রেষ্ঠ অর্জন ছিল দুর্নীতি এবং দুঃশাসন। জানা গেছে, রাষ্ট্রীয় দুর্নীতি, দুঃশাসন, সীমাহীন লুটপাটে নিজের সন্তান তারেক রহমান ও মন্ত্রী-এমপিদের পৃষ্ঠপোষকতা করে তৎকালীন নিরক্ষর প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া দেশ-বিদেশি কুখ্যাতি অর্জন […]

বিস্তারিত

মির্জা ফখরুলের পারফর্মেন্সে চরম অসন্তুষ্ট বেগম জিয়া

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের ধীরে চলা নীতি, জামায়াত বিরোধিতার কারণে তার প্রতি চরম ক্ষুব্ধ বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। বিশেষ করে কোনো প্রকারের আন্দোলন না করে কেবল বক্তৃতায় নিজেকে আবদ্ধ রাখায় মির্জা ফখরুলের পারফর্মেন্সে চরম অসন্তুষ্ট বেগম জিয়া। গুঞ্জন উঠেছে, শিগগিরই তাকে ডেকে এনে মহাসচিবের […]

বিস্তারিত

যেভাবে বিএনপিকে মাটিতে মিশিয়ে দিলেন তারেক রহমান

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কারণে বেহাল হয়ে পড়েছে বিএনপি। দুর্নীতির বিভিন্ন অভিযোগে তারেক রহমান বছর দেড়েক কারাগারে থেকে ২০০৮ সালে চিকিৎসার জন্য লন্ডনে চলে আসেন এবং ১৪ বছর ধরে লন্ডনেই আছেন। জানা গেছে, দলের সিনিয়র নেতাদের প্রতি অসম্মান, অন্য দল ও প্রশাসনের দায়িত্বশীলদের তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য এবং […]

বিস্তারিত