এবার গ্যাসের চাপ স্বাভাবিক হবে রোববার সকালে

নিউজ ডেস্ক: পাইপ লাইনের ত্রুটির কারণে রাজধানীর বেশ কিছু এলাকায় শনিবার সারাদিন গ্যাস সরবরাহ বিঘ্নিত হয়েছে। দুর্ভোগে পড়া এসব মানুষকে আশ্বস্ত করে গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি (জিটিসিএল) জানিয়েছে ত্রুটি মেরামতে সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে। রবিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৮টার দিকে গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক হতে পারে। এ পরিস্থিতির কারণে গ্রাহকরা দুর্ভোগে পড়ায় দুঃখপ্রকাশ করা হয়েছে সংস্থাটির পক্ষ থেকে।

জিটিসিএল সূত্র জানায়, শুক্রবার বিকেলের দিকে সাভারের আশুলিয়াতে সিটি গেইট স্টেশন (সিজিএস) পাইপ লাইন ফেটে যায়। সঙ্গে সঙ্গে গ্যাসের চাপ কমিয়ে দেওয়া হয়। দুর্ঘটনা প্রতিরোধে এক সময় রাতে তা বন্ধই করে দেওয়া হয়।

যদিও রাতে এই খবর তিতাস এবং জিটিসিএল কেউ প্রকাশ করেনি। এতে সাধারণ মানুষ শনিবার সকালে ঘুম থেকে জেগে রান্না করতে গিয়ে চুলায় গ্যাস পাননি। এই কারণে আশুলিয়া, আমিনবাজার, সাভার, উত্তরা, গাবতলী, মিরপুর, মোহম্মদপুর, ধানমন্ডিসহ আশেপাশের এলাকায় গ্যাস সরবরাহ বন্ধ হয়ে যায়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে রাজধানীর অন্য দুই প্রান্ত ডেমরা এবং গাজীপুর দিয়ে ঢাকায় গ্যাসের সরবরাহ বাড়ানো হয়। তবে তা চাহিদার তুলনায় খুব কম থাকায় দিনভর ভোগান্তির শিকার হন এসব এলাকার বেশিরভাগ গ্রাহক।

গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি (জিটিসিএল) বলছে, শনিবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সারারাতই মেরামতের কাজ চলবে।

গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী মো. আল মামুন বলেন, শনিবার সারারাত ধরেই কাজ করতে হবে। আমাদের চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। আমরা দ্রুত সাধারণ মানুষের এই সমস্যা দূর করার চেষ্টা করছি।

তিনি বলেন, আশা করছি রবিবার সকাল নাগাদ স্বাভাবিক গ্যাস পাওয়া যাবে। জিটিসিএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরও বলেন, ‘আমাদের ডেমরা, টঙ্গী এবং গাজীপুর ফিডার দিয়ে অতিরিক্ত গ্যাস প্রবাহিত করা হচ্ছে। তিতাস গ্যাস বিতরণ কোম্পানিও আমাদের সহায়তা করছে। এতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হলেও মানুষ কিছুটা গ্যাস পেতে পারেন।’

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রাজধানীর উত্তরাসহ আশেপাশের এলাকায় গ্যাসের সরবরাহ বেড়েছে।

তিতাস গ্যাস বিতরণ কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মোস্তফা কামাল বলেন, শুক্রবার রাত আটটার দিকে তারা আশুলিয়া পাইপ লাইন ফেটে যাওয়ার খবর পেয়েছেন। শনিবার দুপুর ১২টা থেকে পাইপ লাইনটি মেরামতের কাজ শুরু করেছে জিটিসিএল। তিনি সার্বক্ষণিক এর তদারকি করছেন।

এদিকে তিতাসের পরিচালক (অপরেশন) মো. কামরুজ্জামান ঘটনাস্থলে রয়েছেন। তারা জিটিসিএলকে সহায়তা করছেন। তিনি রাত নয়টায় জানান, ‘মেরামতের কাজ শেষ করে গ্রাহকদের গ্যাস সরবরাহ করতে রবিবার সকাল ৮টা বেজে যেতে পারে।’

তিতাসের বক্তব্য অনুযায়ী, দুর্ঘটনার ১৭ ঘণ্টা পর পাইপ লাইনটির ত্রুটি সারানোর কাজ শুরু হয়েছে। কেন শুক্রবার রাতেই পাইপ লাইনটি সারানোর উদ্যোগ নেওয়া হলো না সে প্রশ্নও উঠেছে। এছাড়া শুক্রবার রাতেই শনিবার যে গ্যাস থাকবে না এই খবর জানানো হলো সাধারণ মানুষ প্রস্তুতি নিতে পারতো। এতে সারাদিন তাদের এমন বিপত্তিতে পড়তে হতো না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

বঙ্গবন্ধু হত্যার সবচেয়ে বড় সুবিধাভোগী জিয়া ও তার পরিবার: তথ্যমন্ত্রী

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ও তার পরিবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার ঘটনায় সবচেয়ে বড় সুবিধাভোগী বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, এটিই সত্য, এটিই বাস্তবতা। সম্প্রতি রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাব কর্তৃক আয়োজিত জাতীয় শোক দিবসের […]

বিস্তারিত

শোক দিবসে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা নেই, তবু নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা বলয়: ডিএমপি কমিশনার

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin জাতীয় শোক দিবসে জঙ্গি হামলার আশঙ্কা না থাকলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম। নিরাপত্তা ব্যবস্থার কথা মাথায় রেখে সবাইকে ব্যাগ কিংবা বাক্স না নিয়ে আসার অনুরোধ জানিয়েছেন তিনি। সম্প্রতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম […]

বিস্তারিত

‘ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নে সবাইকে এগিয়ে আসতে হবে’

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin ২১০০ সালের মধ্যে ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে খুলনায় আওয়ামী লীগের শোকসভায় তিনি এ আহ্বান জানান। মহানগরীর খালিশপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ১৫ নম্বর ওয়ার্ড […]

বিস্তারিত