সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২
  • প্রচ্ছদ » Breaking » সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর এপিএসের বিরুদ্ধে মামলা



সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর এপিএসের বিরুদ্ধে মামলা


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
09.03.2019

নিউজ ডেস্ক: নির্বাচনের আচরণবিধি ভঙ্গ ও প্রভাব খাটানোর অভিযোগে সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদের সহকারী ব্যক্তিগত কর্মকর্তা (এপিএস) মিজানুর রহমান মিজানের (৩৫) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। একই সঙ্গে প্রভাবমুক্ত ভোটের স্বার্থে আদিতমারী উপজেলা পরিষদ নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেছে ইসি।

শুক্রবার দিবাগত মধ্যরাতে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা অনুযায়ী লালমনিরহাটের আদিতমারী থানায় মামলাটি দায়ের করেন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও আদিতমারী উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবু সাঈম।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর এপিএস মিজানুর রহমান মিজান আদিতমারী উপজেলার মহিষখোচা ইউনিয়নের বারঘড়িয়া গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে। তিনি লালমনিরহাট-২ (আদিতামারী-কালীগঞ্জ) আসনের এমপি ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদের সহকারী ব্যক্তিগত কর্মকর্তা।

বিষয়টি নিশ্চিত করে আদিতমারী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাসুদ রানা জানান, সরকারি সুবিধাভোগী ব্যক্তিরা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রচারণায় অংশগ্রহণ করা নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের শামিল। সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদের এপিএস হয়ে আদিতমারী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত রফিকুল আলমের নৌকা প্রতীকে ভোট চান মিজানুর রহমান মিজান।

এছাড়াও নৌকার পক্ষে সমর্থন দেয়ার জন্য সাধারণ ভোটার থেকে নেতাকর্মীদের নানাভাবে হুমকি দিয়ে আসছিলেন বলে দাবি করে গত ৬ মার্চ এপিএস মিজানুরের বিরুদ্ধে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন এ উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ফারুক ইমরুল কায়েস (মোটরসাইকেল)।

নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগটি আমলে নিয়ে শুক্রবার (৮ মার্চ) জরুরি বৈঠকে বসে প্রভাবমুক্ত নির্বাচনের স্বার্থে আদিতমারী উপজেলা পরিষদের ভোট স্থগিত ঘোষণা করেন সিইসি কেএম নুরুল হুদা। একই সঙ্গে সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর এপিএসের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের নির্দেশ দেন।

সিইসির নির্দেশনার চিঠি পাওয়ার পর আদিতমারী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আবু সাঈম বাদী হয়ে আদিতমারী থানায় মিজানুর রহমান মিজানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর এপিএস মিজানুর রহমান বলেন, আমি আমার স্ত্রী সন্তান সহ গ্রামের বাড়িতে এসেছি সেই সূত্রে কিছু লোক আমার সঙ্গে দেখা করার জন্য আসতেই পারে এটা কোনো দোষের না।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি