রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » আজহারীর ভণ্ডামি ফাঁস, বিলাসবহুল সেই গাড়ির যোগানদাতা তারেক!



আজহারীর ভণ্ডামি ফাঁস, বিলাসবহুল সেই গাড়ির যোগানদাতা তারেক!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
13.02.2020

নিউজ ডেস্ক: নিজেকে একজন ইসলামী বক্তা হিসাবে বেশ পরিচিত করে তুলেছিলেন ড. মিজানুর রহমান আজহারী। দেশের বিভিন্ন জায়গাতে সর্বোচ্চ হাদিয়া নিয়ে ওয়াজ করতেন তিনি। সম্প্রতি অনেকগুলো মাহফিলের সিডিউল আটকে দেশত্যাগ করায় ব্যাপক সমালোচনার জন্ম দিয়েছেন এই বক্তা। এদিকে আজহারী সম্পর্কে বাংলা নিউজ ব্যাংকের অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে নানা চাঞ্চল্যকর তথ্য। বেরিয়ে এসেছে ভাইরাল হওয়া বিলাসবহুল সেই গাড়ির রহস্য।

আমাদের অনুসন্ধান বলছে, জামায়াত-বিএনপির এজেন্ডা বাস্তবায়নের জন্য বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও সাঈদী পুত্র মাসুদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ সহযোগিতা নিয়েছেন এই আজহারী। আর সেই অর্থ দিয়েই মালয়েশিয়ায় বিলাসী জীবন-যাপন করছেন তিনি। ভাইরাল হওয়া আজহারীর বিলাসবহুল গাড়িটিও তারেক রহমানের অবৈধ অর্থে ক্রয় করা হয়েছে বলে অনুসন্ধানে উঠে এসেছে।

তথ্যসূত্র বলছে, সম্প্রতি বিভিন্ন মাহফিল কমিটির কাছ থেকে বড় অঙ্কের টাকা নিয়ে দেশত্যাগ করার অভিযোগও রয়েছে আজহারীর বিরুদ্ধে। আজহারীর অভিনব ধর্ম ব্যবসা সম্পর্কে একের পর এক গোমর ফাঁস হতে শুরু করায় দেশত্যাগ করেছেন এই ভণ্ড আলেম এমনটাও মনে করেন অনেক ইসলামী বক্তা।

সূত্র বলছে, ফেব্রুয়ারি মাসে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে অন্তত ৮টি মাহফিলে অংশগ্রহণ করার কথা বলে আজহারী অগ্রিম টাকা নিয়েছেন। কিন্তু নিজের ধর্ম ব্যবসার আড়ালে জামায়াত-বিএনপির এজেন্ডা বাস্তবায়নের পাঁয়তারার কথা ফাঁস হতে শুরু করলে সব মাহফিল স্থগিত করে আজহারী পালিয়ে যান মালয়েশিয়ায়। এদিকে রংপুর, ময়মনসিংহের অনেকগুলো মাহফিল কমিটির লোকজন আজহারীর বিরুদ্ধে বাংলা নিউজ ব্যাংকের প্রতিবেদকের কাছে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগও করেছেন।

এরইমধ্যে একটি বিলাসবহুল গাড়ি ইস্যুতে আজহারীকে নিয়ে আবারো সমালোচনা শুরু হয়েছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, জামায়াত বিএনপির এজেন্ট হিসাবে ইসলামী মাহফিলের নামে ড. মিজানুর রহমান আজহারীকে এই গাড়িটির যোগানদাতা মূলত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। এই তারেক রহমানের নানা অপকর্মের অংশীদার সহিদুজ্জামান তরিক। আর এই তারিকের মাধ্যমেই গাড়িটি আজহারীকে উপহার দেন তারেক রহমান।

সূত্র জানিয়েছে, সহিদুজ্জামান তরিক মূলত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের হয়ে হুন্ডির মাধ্যমে অর্থপাচার করে থাকেন। বাংলাদেশের ক্যাসিনো খেলার সরঞ্জামাদি এই তরিকের মাধ্যমে এসেছিল। সিঙ্গাপুরের ম্যারিনা বে ক্যাসিনোতে নিয়মিত বসে হুন্ডির ব্যবসায়ী করে যাচ্ছেন সহিদুজ্জামান তরিক। সহিদুজ্জামান তরিকের বড় ভাই শরিফ চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের ধানের শীষের প্রার্থী ছিলো গত জাতীয় নির্বাচনে।

অভিযোগ রয়েছে, তারেক রহমানের ঘনিষ্ঠজন হিসাবে তরিক বাংলাদেশের মুদ্রাপাচারের অন্যতম প্রধান এবং ব্যাংক লুটেরাদের টাকাও তার মাধ্যমে পাচার হয়।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে আজহারীর গাড়ি চালানোর কিছু দৃশ্য। ছবিতে দেখা গেছে, মিজানুর রহমান আজহারী একটি ‘বেন্টলি’ গাড়ি চালাচ্ছেন যার বাজারমূল্য কমপক্ষে ৫ কোটি টাকা।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি