মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • প্রচ্ছদ » other important » ভাঙা-চোরা বিএনপি করতে দেশে ফিরবেন না জাইমা, হতাশ বেগম জিয়া-তারেক!



ভাঙা-চোরা বিএনপি করতে দেশে ফিরবেন না জাইমা, হতাশ বেগম জিয়া-তারেক!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
10.09.2020

নিউজ ডেস্ক: দলের অবস্থা ভঙ্গুর, দণ্ডের কারণে দলীয় চেয়ারপারসন ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সরাসরি রাজনীতি করতে পারছেন না। নির্বাচনের রাজনীতিতে ধরাশায়ী বিএনপি। জনসমর্থন প্রায় শূন্যের কোটায়। তাই এমতাবস্থায় দেশে ফিরে রাজনীতি করতে চান না তারেক রহমানের কন্যা জাইমা রহমান। জানা গেছে, ইংল্যান্ডে রাজনৈতিক ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহী জাইমা। তবে যুক্তরাজ্যে বসবাসের কাগজপত্র নিয়ে জটিলতা থাকায় জাইমার স্বপ্ন পূরণে বাধা রয়েছে অনেক।

তবে শেষ পর্যন্ত রাজনীতির সুযোগ না পেলে লন্ডনে আইন পেশায় মনোনিবেশ করতে চান তিনি। এরপরও দেশে ফিরতে চান না জাইমা রহমান। দেশের রাজনীতিতে বিএনপি এখন অস্তমিত সূর্যের মতো। সুতরাং বিএনপির রাজনীতিতে জড়ানো মানে চ্যালেঞ্জের মুখে পড়া। এমতাবস্থায় দেশে ফিরে বিএনপির রাজনীতি করতে চাইছেন না জাইমা রহমান। বরং যুক্তরাজ্যে থেকে রাজনীতি করার সুযোগ খুঁজছেন তিনি। আর জাইমা রহমানের এমন প্রাথমিক সিদ্ধান্তের বিষয়টি জেনে কিছুটা চিন্তায় পড়েছেন তারেক-জোবায়দা দম্পতি। লন্ডনভিত্তিক একাধিক সূত্র বলছে, নিজে ফিরতে না পারলে তার প্রতিনিধি হিসেবে জাইমাকে দেশে পাঠাতে মনস্থির করেছিলেন তারেক রহমানের। বেগম জিয়া যেমন বিএনপিকে পুনর্গঠিত করেছিলেন, জাইমাও একই কায়দা বিএনপিকে খাদের কিনারা থেকে টেনে তুলবে-এমনটাই স্বপ্ন দেখতেন তারেক। আর রাজনীতিতে নারীর জনপ্রিয়তা বেশি, সেই হিসেবে জাইমা ছিলেন তারেকের শেষ অস্ত্র। কিন্তু বাংলাদেশের রাজনীতি নিয়ে জাইমার কোনো রকম আগ্রহ না থাকায় হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন তারেক-জোবায়দা। বিষয়টি আঁচ করতে পেরে বেগম জিয়াও মনঃক্ষুণ্ণ হয়েছেন বলে জানা গেছে। তৃতীয় প্রজন্মের কেউ বিএনপির প্রতি আগ্রহী না হওয়ায় ক্ষোভও প্রকাশ করেছেন বেগম জিয়া।

তবে ইংল্যান্ডে তারেকের বিতর্কিত অবস্থান, বিনিয়োগ ও দণ্ডের বিষয়গুলো বিবেচনায় জাইমার রাজনীতিতে অংশগ্রহণের সুযোগ নেই বলে মনে করছেন দেশটির অবস্থানকারী বাংলাদেশিরা। তারা বলছেন, জিয়া পরিবারের কোন সদস্যই চাইলে ব্রিটেনের রাজনীতিতে যুক্ত হতে পারবেন না। কারণ তারা এক ধরনের রিফিউজি হিসেবে এখানে বসবাস করেন এছাড়া জাইমার সেই যোগ্যতা ও সুযোগও নেই। তাই জাইমার এই ধরনের চিন্তা অপূরণীয় উচ্চাকাঙ্ক্ষা ছাড়া কিছুই নয়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি