মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » মনোনয়ন বাণিজ্যের গুঞ্জনেই গুলশান বিএনপি কার্যালয়ে সংঘর্ষ!



মনোনয়ন বাণিজ্যের গুঞ্জনেই গুলশান বিএনপি কার্যালয়ে সংঘর্ষ!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
13.09.2020

গুলশানে বিএনপির কার্যালয়ের সামনে ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশী এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন ও কফিল উদ্দিনের সমর্থকদের মাঝে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। ব্যাপক ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনায় অন্তত দুজন বিএনপি কর্মী আহত হয়েছেন। কফিল উদ্দিনের কাছ থেকে টাকা খেয়ে তাকে মনোনয়ন দেয়া হবে-এমন গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়লে সংঘর্ষ বাধে বলে জানা গেছে। মনোনয়ন নিয়ে আন্তকোন্দল ও বাণিজ্যের ঘটনায় চরম বিব্রত হয়েছেন বিএনপির সিনিয়র নেতৃবৃন্দ। দলীয় ঐক্য ধরে রাখতে না পারায় নিন্দার শিকারও হচ্ছেন তারা।

জানা গেছে, ১২ সেপ্টেম্বর বিকেলে ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনে বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকারের জন্য ডাকে দলটি। এসময় নিজেদের পক্ষের নেতাকর্মী নিয়ে চেয়ারপারসনের অফিসের সামনে মহড়া দেন এস এম জাহাঙ্গীর হোসেন ও কফিল উদ্দিন এবং তাদের সমর্থকরা। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উভয় নেতার কর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে দ্বন্দ্বে জড়িয়ে পড়েন। এতে আহত হন দুজন বিএনপি কর্মী। আর গণমাধ্যমে সংঘর্ষের ভিডিওচিত্র ছড়িয়ে পড়লে বেকায়দায় পড়ে যান বিএনপির নীতি-নির্ধারকরা। বিভিন্ন মহল থেকে ঐক্য ধরে রাখতে না পারার কারণে সিনিয়র নেতাদেরও কঠোর সমালোচনা করা হচ্ছে। দলীয় অনৈক্য, মনোনয়ন বাণিজ্যের অভিযোগ বিএনপির দীর্ঘদিনের। ২০১৮ সালের একাদশ নির্বাচনেও ব্যাপক মনোনয়ন বাণিজ্য ও অর্থের ছড়াছড়ির কারণে জনপ্রিয় প্রার্থী দিতে না পারায় বিএনপির ভরাডুবি হয়েছে বলেও মনে করছেন দলটির বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মীরা। ঢাকা-১৮ আসনেও কফিল উদ্দিন বিপুল অর্থ খরচ করে নেতাদের ম্যানেজ করে মনোনয়ন বাগিয়ে নিবেন-এমন গুঞ্জনের জেরেই মূলত গুলশান অফিসের সামনে দুই গ্রুপের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ ঘটেছে। যদিও এমন ঘটনা অনাকাঙ্ক্ষিত বলে দাবি করলেও বিএনপির শীর্ষ নেতারা দলীয় বিশৃঙ্খলা ও অনৈক্যে বিব্রত হচ্ছেন বলে জানা গেছে।

গুলশান কার্যালয়ের সামনে দলীয় কর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপির শীর্ষ নেতারা চরম বিব্রত বলে মন্তব্য করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সিনিয়র এক সদস্য। পরিচয় গোপন রাখার শর্তে তিনি বলেন, আজকে যা ঘটলো তারা পুরো দেশবাসী দেখে বুঝলো যে বিএনপিতে ঐক্য নেই। সবাই মনোনয়নের জন্য বিএনপির রাজনীতি করে। মনোনয়ন বাণিজ্যের গুঞ্জন নিয়ে সংঘর্ষ ঘটেছে। বিষয়টি অত্যন্ত বিব্রতকর। আমি যেকজন সিনিয়র নেতার সাথে কথা বলেছি, তারা সবাই এই ঘটনায় লজ্জা পেয়েছেন। সংকটকালীন সময়ে আমাদের ঐক্য ধরে রাখতে হবে। গুঞ্জন ও গুজবে কান দিলে রাজনীতি করা কঠিন হয়ে পড়বে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি