বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০



সিলেট জেলা ছাত্রদলে কোন্দল, বিক্ষােভ


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
16.09.2020

নিউজ ডেস্ক: দীর্ঘ দিন থেকে ক্ষমতায় নেই বিএনপি। মামলা হামলা আর কোন্দলে প্রায় দিশেহারা দলটি। এত টান পোড়নের মধ্য বিএনপির সহযোগী সংগঠন ছাত্রদলকে চাঙ্গা করতে গত সপ্তাহে সিলেট জেলা ছাত্রদলের ৩৩টি ইউনিটের কমিটির ঘোষণা করেন সিলেট জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন নাদিম। পুরো জেলায় ৩৩টি কমিটির মধ্যে জকিগঞ্জ উপজেলা কমিটি বাদে প্রথমে ৩২টি শাখার কমিটি ঘোষণা হয়। পরদিন ঘোষণা হয় জকিগঞ্জ উপজেলা কমিটি।

জানা যায়, জকিগঞ্জ উপজেলা কমিটি ঘোষণার পরই বিতর্ক শুরু হয়। জকিগঞ্জ-কানাইঘাট এলাকায় কমিটিতে স্থান না পাওয়া কর্মীরা ঝাড়ু– মিছিল করেছে আর গোলাপগঞ্জ উপজেলা পৌর ও ঢাকা দক্ষিণ ডিগ্রি কলেজ কমিটি নিয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেন পদবঞ্চিত ছাত্রদল নেতারা। তবে সবচেয়ে বেশি বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে জকিগঞ্জ এবং কানাইঘাটের উপজেলা, পৌর এবং কলেজ কমিটি নিয়ে।

এই দুই থানার ৮ ইউনিটের কমিটি ঘোষণার পর থেকে দফায় দফায় দুই থানাতে বিক্ষোভ মিছিল, ঝাড়ু মিছিল, জুতা মিছিল চলছে। এমনকি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পরস্পর আক্রমণ করে লেখালেখিও চলছে। কমিটি ঘোষণার পর থেকে কমিটির বিরুদ্ধে আন্দোলনকারীদের অভিযোগ হলো, দলের নির্যাতিত এবং মেধাবী প্রকৃত ছাত্রদের বাদ দিয়ে বয়স্ক, অছাত্র, বিভিন্ন পেশায় কর্মরত এবং বিভিন্ন দল থেকে অনুপ্রবেশকারীদের নিয়ে কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। তারা এ জন্য ওই এলাকার সাবেক এক ছাত্রনেতা ও বর্তমান যুবদল নেতাকে এবং জেলা ছাত্রদল নেতৃত্বকে দায়ী করছেন।

জকিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক আব্দুল্লাহ আল মামুন হিরা জানান, সিলেট জেলার ছাত্রদলের অন্যতম একটি ঘাটি হচ্ছে জকিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদল। কিন্তু এই উপজেলা ছাত্রদলের যে কমিটি গঠন করা হয়েছে তা প্রশ্নবিদ্ধ। ত্যাগীদের মূল্যায়ন করা হয়নি। আব্দুল জব্বার রুবেল নামে যাকে আহ্বায়ক করা হয়েছে, তিনি বিগত ইউপি নির্বাচনে ধানের শীষের প্রার্থীর পক্ষে কাজ না করে জাতীয় পার্টির প্রার্থীর সঙ্গে কাজ করেছে। এছাড়া মেয়েদের সঙ্গে যৌন সংক্রান্ত অভিযোগও আছে। তাগিদেও মূল্যায়ন না করে এই সব বিতর্কিত ব্যক্তিদের দিয়ে কমিটি দেয়া মানে ছাত্রদলকে বিপদের মুখে টেলে দেয়া।

জকিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের বর্তমান কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক কামরুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, অছাত্র যারা কোন দিন ছাত্র রাজনীতি করেননি তাদেরকে দিয়ে কমিটি দেয়া হয়েছে। জকিগঞ্জ উপজেলাতে যাকে আহ্বায়ক করা হয়েছে তার বিরুদ্ধে নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগ আছে, আমরা চাই যতদ্রুত সম্ভব এই কমিটি বাতিল করে কমিটি ঘটন করা হোক আর না হলে আমাদের আন্দোলন চলছে চলবে।

সিলেট জেলা ছাত্রদল সভাপতি আলতাফ হোসেন সুমন জানান, ছাত্রদল একটি বৃহত্তম দল সেখানে প্রতিযোগিতা থাকবে, ছাত্রদলের অনেক কর্মী মিছিল করেছে কমিটেতে স্থান না পাওয়ায়। তবে সবাইকে পূর্ণাঙ্গ কমিটিকে স্থান দেয়া হবে। আহ্বায়ক কমিটিটি ৬০ দিনের জন্য। জকিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়কের যৌন সংক্রান্ত অভিযোগটি কমিটি গঠন করার পরে জেনেছি। বিষয়টি তদন্ত করে দলীয় আইন মোতাবেক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি ছাত্রদলের সিলেট সাংগঠনিক টিম লিডার ওমর ফারুক কাওছার জানান, ৩৩টি ইউনিটের কমিটি গঠন হয়েছে। এখানে অনেক মতামত থাকবে। আমরা এসব বিষয়ে এখনো কোনও অভিযোগ পাইনি, অভিযোগ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেব।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি