বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০



ভঙ্গুর সাংগঠনিক কাঠামো নিয়ে চলছে বিএনপি


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
18.09.2020

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভরাডুবির পর থেকেই কর্মীদের হতাশা আর অস্তিত্ব সংকটের মুখে পড়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। ভঙ্গুর সাংগঠনিক কাঠামো, দুর্বল নেতৃত্ব এবং মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি দিয়েই খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলছে দলটির কার্যক্রম।

সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, দীর্ঘদিন ধরে ক্ষমতার বাইরে থাকা ও কার্যত সাংগঠনিক কাজ না থাকায় হতাশ হয়ে পড়েছে দলটির নেতা-কর্মীরা। যার ফলে নেতৃত্বে সংকটের কারণে ধীরে ধীরে অকেজো হয়ে পড়েছে সংগঠনগুলো।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, অভ্যন্তরীণ কোন্দলে জর্জরিত বিএনপির মূল শক্তি ছিল ছাত্রদল, যুবদল, স্বেচ্ছাসেবক দল এবং মহানগর কেন্দ্রীয় কমিটি। দুর্বল নেতৃত্ব ও মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় এসব সংগঠন আজ প্রায় অকেজো। নেই কোনো সাংগঠনিক কার্যক্রম।

নেতৃত্ব কোন্দলে বিপর্যস্ত হয়ে যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দল কার্যকারিতা হারিয়েছে অনেক আগেই। অভ্যন্তরীণ কোন্দলে মহানগর কেন্দ্রীয় কমিটিও আজ নিষ্ক্রিয়। দীর্ঘদিন আগেই কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ায় চেইন অব কমান্ড ভেঙে পড়েছে সংগঠনগুলোতে।

এদিকে, দীর্ঘ ২৭ বছর পর ভোটের মাধ্যমে ছাত্রদলের নেতা নির্বাচিত করা হলেও এখন পর্যন্ত সেই কমিটির দৃশ্যমান কিছুই করতে পারেনি।

সিন্ডিকেট মুক্ত করার জন্য ভোটের মাধ্যমে এ নেতা নির্বাচিত করা হলেও এখনো সিন্ডিকেটে আবদ্ধ ছাত্রদল। এছাড়া কেন্দ্রের নেতাদের চেয়ে জেলা-উপজেলার নেতারা সিনিয়র হওয়ায় কমান্ড মানতে নারাজ তারা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলটির সিনিয়র ও দায়িত্বশীল এক নেতা বলেন, দীর্ঘ এক যুগ ক্ষমতার বাইরে থাকার পরও এখনো পর্যন্ত দল গোছাতে পারেনি বিএনপি।

তিনি বলেন, পরিবার কেন্দ্রিক রাজনীতি হওয়ার কারণে এতদিনেও বিএনপি মাথা তুলে দাঁড়াতে পারেনি। বেশিরভাগ নেতাই নিজেদের পদ-পদবি ও অবস্থান ধরে রাখতে তেলবাজিতে ব্যস্ত।

তিনি আরো বলেন, সবশেষ কাউন্সিলের মেয়াদ শেষ হয়েছে গত বছরের ১৯ মার্চ। এখনো পর্যন্ত কাউন্সিল নিয়ে কোনো উদ্যোগ নেয়া হয়নি। কবে এর উদ্যোগ নেয়া হবে তা কেউ জানেন না। এই অবস্থায় খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলছে দলের কার্যক্রম।

কাউন্সিল প্রসঙ্গে জানতে চাইলে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, কাউন্সিলের বিষয়ে দলের মধ্যে আলোচনা হয়েছে। তবে এখনো দিনক্ষণ ঠিক হয়নি।

এ বিষয়ে বিএনপিপন্থী রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও বুদ্ধিজীবীরা বলেন, বর্তমানে বিএনপিতে দক্ষ, মেধাবী ও চৌকস নেতার বড়ই অভাব রয়েছে। এদলে ক্যারিশমেটিক কোনো নেতা নেই। যারা গুরুত্বপূর্ণ সময়ে দলের মধ্যে চমক দেখাতে পারে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি