বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০



শীর্ষ দুই নেতার অনুপস্থিতিতে দিশেহারা বিএনপি


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
19.09.2020

ডেস্ক রিপোর্ট: দুর্নীতি মামলার দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি বিএনপির দুই শীর্ষ নেতা খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান। দুর্নীতির মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে একজন এরইমধ্যে রাজনীতি থেকে নিয়েছেন বিদায়, অপরজন লন্ডনে পলাতক। এ অবস্থায় দলের ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব নিয়ে দিশেহারা বিএনপির সিনিয়র নেতারা।

দলটির বড় একটি অংশের নেতা-কর্মীরা জানান, জিয়া পরিবারের বাইরে বিএনপির নেতৃত্ব গেলে দল ভাঙার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই পারিপার্শ্বিক পরিস্থিতি চিন্তা করে তারেক রহমানের সহধর্মিণী ডা. জোবায়দা রহমান ও তারেক কন্যা জাইমা রহমানই আগামীতে বিএনপির নেতৃত্বে আসবেন, এমনই আলোচনা-সমালোচনা দলীয় নেতা-কর্মীদের মধ্যে।

এদিকে বিএনপিতে জাইমা রহমানের নেতৃত্ব নিয়ে দলের একটি অংশের নেতা-কর্মীদের মধ্যে উদ্দীপনা দেখা দিলেও বিষয়টিকে বিএনপির একটি অপরিপক্ব সিদ্ধান্ত বলেই মনে করছেন বেশিরভাগ সিনিয়র নেতা।

তাদের ধারণা, জিয়া পরিবারের গণ্ডির মধ্যে থেকে বের হতে হবে বিএনপিকে। ক্রান্তিকালে দায়িত্ব তুলে দিতে হবে দলের একনিষ্ঠ ও ত্যাগী নেতাদের ওপর। উড়ে এসে দায়িত্ব নিলে সিনিয়ররা নিষ্ক্রিয়ই থেকে যাবে। দলের অবস্থার কোনো পরিবর্তন হবে না।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির সিনিয়র ও দায়িত্বশীল এক নেতা জানান, জাইমা রহমান নেতৃত্বে এলেও বিএনপির তেমন কোনো পরিবর্তন ঘটবে না। কারণ তার শরীরেও বইছে তারেক রহমানের রক্ত।

তিনি বলেন, তারেক রহমান যেমন নেতৃত্ব দিয়েছেন, জাইমা রহমান নেতৃত্বে এলে তিনি তাই করবেন। এখানে অতি উৎসাহী হওয়ার কিছু নেই।

জিয়া পরিবারের ঘনিষ্ঠজনরা জানায়, লন্ডনে এরইমধ্যে ব্যারিস্টারি পড়া শেষ করেছেন জাইমা রহমান। ছোটবেলা থেকেই রাজনীতির প্রতি আগ্রহ রয়েছে তার। খালেদা জিয়ার সঙ্গে বিভিন্ন কর্মসূচিতে এরইমধ্যে অংশ নিয়েছেন এবং তাকে খুবই পছন্দ করেন তিনি। এছাড়াও ছেলে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দল ও দলের বাইরে নানা অভিযোগ থাকায় দলের দায়িত্বে এই মুহূর্তে নাতনিকে যোগ্য মনে করছেন তিনি।

এ বিষয়ে বিএনপিপন্থী রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও বুদ্ধিজীবীরা বলেন, সরাসরি দলের দায়িত্বে আসার আগে জাইমা রহমানের উচিত হবে বিএনপিতে কর্মী হয়ে উঠে আসা।

তারা বলেন, বিএনপির রাজনীতিতে জিয়া পরিবার ছাড়া অন্য কেউ এলে তাতে নেতৃত্বের দ্বন্দ্ব দেখা দেবে। আবার পরিবারকেন্দ্রিক রাজনীতি হওয়ায় দলীয় কোন্দলও বাড়ছে। এমন অবস্থায় বিএনপির উচিত মেধাবী রাজনীতির উৎপাদন বাড়ানো।

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি