বুধবার ২১ অক্টোবর ২০২০



খালেদা জিয়া রাজনীতি শূন্য, হতাশ বিএনপি


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
20.09.2020

নিউজ ডেস্ক: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয় ও দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া রাজনীতি শূন্য হওয়ার পর থেকেই হতাশায় ভেঙে পড়েছে বিএনপির সর্বস্তরের নেতা-কর্মীরা। প্রায় ১৫ বছর ক্ষমতার বাইরে থাকার ফলে এ দলের নেতা ও কর্মী-সমর্থকদের মনোবল এখন শূন্যের কোঠায়। আর এ কারণেই দলের ডাকা যেকোনো কর্মসূচিতে কর্মী ও সমর্থকদের জড়ো করতে পারছেন না বিএনপি হাইকমান্ড।

দলীয় সূত্রমতে, দলের শীর্ষ দুই নেতৃত্বের সংকটের কারণে অনেকটা তালগোল পাকিয়ে ফেলেছে মহাসচিবসহ দায়িত্বপ্রাপ্তরা। এছাড়াও তৃণমূল থেকে কেন্দ্র পর্যন্ত নেতৃত্ব দেয়ার মতো যোগ্য নেতার অভাব রয়েছে এ দলে। তৃণমূলের খোঁজ-খবর না নেয়া, তাদের আইনি সহায়তা থেকে বঞ্চিত করা, এমনকি প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীসহ অন্যান্য কর্মসূচি পালনের নামে তাদের কাছে চাঁদাবাজির অভিযোগে দলটির কর্মীসংখ্যা দিন দিন ব্যাপকহারে কমছে। এই অবস্থা চলতে থাকলে আগামীতে বিএনপি কর্মীশূন্য নামসর্বস্ব দলে পরিণত হতে পারে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টামণ্ডলীর এক নেতা বলেন, বর্তমান কার্যক্রমে আমরা দলের ভবিষ্যৎ দেখতে পাচ্ছি না। বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব আসলে কি চায়? বা দল নিয়ে তাদের ভবিষ্যৎ ভাবনা কি সে সম্পর্কে আমরা অজ্ঞাত।

তিনি বলেন, ভেবেছিলাম খালেদা জিয়া কারামুক্ত হয়ে দলের নেতা-কর্মীদের চাঙা করবেন। কিন্তু তিনি তা না করে রাজনীতি থেকে অবসরের চলে গেছেন। এমন পরিস্থিতিতে আমাদেরও রাজনীতি করা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। প্রতিটি মুহূর্তে আমরা হতাশায় কাটাচ্ছি। জানি না কবে সেই আলোর সন্ধান পাব।

বিএনপিপন্থী রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও বুদ্ধিজীবীরা বলেন, দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থাকায় বিএনপি নেতা-কর্মীদের মধ্যে হতাশার জন্ম নিয়েছে।

তারা বলেন, সর্বশেষ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে শোচনীয় পরাজয়ের কারণে দলটির অভ্যন্তরে চলছে নানা টানাপোড়েন। এছাড়াও নেতৃত্বে দূরদর্শিতার অভাব, সংকটময় মুহূর্তে কৌশলী সিদ্ধান্ত নিতে ব্যর্থতা, লেজেগোবরে সাংগঠনিক হাল, প্রার্থী বাছাইয়ে ভুল সিদ্ধান্ত, অভ্যন্তরীণ কোন্দল সামাল দিতে না পারা, জোট রাজনীতির প্রতি অতিমাত্রায় নির্ভরশীলতার কারণেই আজ বিএনপির এই দুরবস্থা। আর এই অবস্থা থেকে উত্তরণের পথ খুঁজে না পেয়ে হতাশায় ভুগছেন দলটির তৃণমূলসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি