সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ডে নাখোশ বিএনপি, ছড়ানো হচ্ছে গুজব!



ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ডে নাখোশ বিএনপি, ছড়ানো হচ্ছে গুজব!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
13.10.2020

নিউজ ডেস্ক: ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা বাড়িয়ে মৃত্যুদণ্ডের বিষয়টি মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পেয়েছে। মৃত্যুদণ্ডের বিধান যুক্ত হওয়ায় ধর্ষণ প্রবণতা কমবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। ধর্ষণরোধে সরকারের এমন কঠোর পদক্ষেপ সর্বমহলে প্রশংসিত হলেও বিএনপি নেতারা করছেন করছেন চরম বিরোধিতা। ইনিয়ে-বিনিয়ে সরকারের শুভ উদ্যোগকে বিতর্কিত করতে মিথ্যাচার ও গুজব ছড়াচ্ছে বিএনপির নেতা-কর্মীরা। ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করার প্রক্রিয়া ক্ষমতাসীনদের ‘আইওয়াশ’ বলেও বিতর্ক ছড়ানো হচ্ছে দলটির পক্ষ থেকে।

তথ্যসূত্র বলছে, ধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে জিরো টলারেন্স নীতির বাস্তবায়ন হিসেবে আইন সংশোধন করেছে সরকার। যার কারণে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড করতে মন্ত্রিসভায় অনুমোদনও দেয়া হয়েছে। সরকারের এমন উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ। সরকারের এমন সময়োপযোগী উদ্যোগে ধর্ষণ কমবে এবং মানুষ সচেতন হবে বলেও জানা গেছে। কিন্তু সরকারের যাবতীয় প্রশংসনীয় উদ্যোগের বিরোধিতার অংশ হিসেবে ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজার বিরোধিতা করে মনগড়া মন্তব্য করে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন বিএনপির শীর্ষ নেতারা। যার অংশ হিসেবে রোববার (১১ অক্টোবর) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রিজভী আহমেদ ধর্ষণের বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ সাজা মৃত্যুদণ্ডকে আইওয়াশ বলে বিভ্রান্তি ছড়ানোর অপচেষ্টা করছেন।

রিজভী আহমেদ দাবি করেছেন, ধর্ষণবিরোধী সামাজিক আন্দোলনকে প্রশমিত করতে সরকার কৌশলে এই আইন সংশোধন করেছে। যদিও রিজভীর এমন অনভিপ্রেত বক্তব্যকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। তাদের মতে, সরকারের বিরোধিতার অংশ হিসেবেই ধর্ষণের সর্বোচ্চ সাজা নিয়েই অপরাজনীতি করার চেষ্টা করছে বিএনপি। জনবান্ধব উদ্যোগকে বিতর্কিত করতে কৌশলে বিএনপি মিথ্যাচার করছে। ধর্ষণরোধে বিএনপি-জামায়াত অতীতে কিছু না করলেও রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে বর্তমান সরকারের প্রশংসনীয় উদ্যোগকে বাধাগ্রস্ত করার ষড়যন্ত্র চলছে। তবে দেশের সচেতন জনগণ বিএনপির পাতানো ফাঁদে পা দেবে না বলেও বিশ্বাস করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি