সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০



টাকা দিলে তারেকের কাছে সন্ত্রাসীরাও ‘সাধু নেতা’


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
14.10.2020

নিউজ ডেস্ক: ঢাকা-১৮ আসনের উপ-নির্বাচনের মনোনয়ন বাণিজ্য যেন গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে বিএনপির। নিজেদের প্রতারণার জালে নিজেরাই ফেঁসে গেছেন দলটির শীর্ষ নেতারা।

বেশি টাকা পাওয়ায় বিতর্কিত এসএম জাহাঙ্গীরকে মনোনয়ন দিয়েছেন লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। আর এই বাণিজ্যের মধ্যস্থতা করেছেন মহাসচিব মির্জা ফখরুল। এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছেন মনোনয়ন বঞ্চিত এক বিএনপি নেতা।

ঢাকা-১৮ আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়ন বঞ্চিত ওই নেতা অভিযোগ করে বলেন, এ আসনের মনোনয়ন পেতে প্রত্যেক প্রার্থীর কাছেই ৫ কোটি টাকা চেয়েছিলেন তারেক রহমান। শেষ পর্যন্ত দুজন নেতা রাজিও হয়েছিলেন। কিন্তু মির্জা ফখরুলের কারসাজিতে শেষ পর্যন্ত সমপরিমাণ অর্থ দিয়ে মনোনয়ন বাগিয়ে নিয়েছেন জাহাঙ্গীর।

তিনি বলেন, মনোনয়ন বাণিজ্যের মধ্যস্থতা করেছেন দলীয় মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। যার কারণে তিনি পেয়েছেন ৩০ লাখ টাকা। মির্জা ফখরুলকে দেখতে ভদ্র মার্জিত মনে হলেও তিনি মূলত আদর্শবাদী নেতা নন। বিএনপির রাজনীতিতে নীতিবান কোনো নেতা নেই। টাকা দিয়ে সবাইকে কেনা যায়।

তিনি আরো বলেন, বিএনপিকে ধ্বংস করছেন তারেক রহমান, তিনি অত্যন্ত লোভী ও হীন চরিত্রের মানুষ। তারেক না হয় অর্ধ-শিক্ষিত, দুর্নীতিগ্রস্ত-কিন্তু মির্জা ফখরুলের মতো শিক্ষিত মানুষ কীভাবে অর্থের কাছে বিক্রি হন, সেটি আমার বোধগম্য নয়। টাকা খরচ করে দলের মনোনয়ন পেয়েছেন জাহাঙ্গীর। টাকা খরচ করলে বিএনপিতে সন্ত্রাসীরাও সাধু পুরুষের আখ্যা পায়। বিএনপির চরিত্র বলে আর কিছু রইলো না। তারেক দর-কষাকষি করে মনোনয়ন দেন আর মির্জা ফখরুল সেই অর্থ আদায় করে দেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি