মঙ্গলবার ১৯ জানুয়ারী ২০২১



মিনার রশীদের চোখে দেশের জনগণ ‘বাটপার’, নেপথ্য কারণ কী?


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
22.11.2020

মিনার রশীদ, সিঙ্গাপুর প্রবাসী জামায়াত-বিএনপি ঘরানার একজন সাংবাদিক। সাংবাদিক বললে ভুল হবে, তিনি একজন পেইড এজেন্ট, যিনি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কথায় ওঠেন আর বসেন। এমনকি তার প্রেসক্রিপশন অনুযায়ী দলীয় এজেন্ডা মোতাবেক কার্যক্রমও পরিচালনা করেন রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে। বরাবরের মতো সম্প্রতি এই ‘কথিত সাংবাদিক’ আবারও দেশের গণতন্ত্র, উন্নয়ন ও সরকারব্যবস্থা নিয়ে মিথ্যাচার করছেন। পাশাপাশি বিএনপির ব্যর্থতার দায়ভার সরকারের ঘাড়ে চাপাতে যুক্তরাজ্য থেকে প্রচারিত সরকারবিরোধী পত্রিকা ‘আমার দেশ’-এ বিভিন্ন নামে-বেনামে কলাম লিখে দেশ ও সরকারের বদনাম করছেন। এমনকি তিনি বিএনপি-জামায়াতের সহিংসতায় জনগণ মুখ ফিরিয়ে নেয়ায় তাদেরকে ‘বাটপার’ বলেও গালি দিচ্ছেন বলে জানা গেছে।

দায়িত্বশীল একটি সূত্র জানিয়েছে, জামায়াত ঘরানার হলেও লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে মিনার রশীদের ভালো সখ্যতা রয়েছে। তার পরামর্শেই মূলত তিনি বিভিন্ন সময়ে লেখনীর মাধ্যমে সরকার ও জনগণকে নিয়ে ব্যঙ্গ-বিদ্রূপ করেন। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের ষোড়শতম প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিংকনের বিখ্যাত ‘গভর্নমেন্ট অফ দ্য পিপল, বাই দ্য পিপল, ফর দ্য পিপল’-উক্তিকে বিকৃত করে তার সঙ্গে সাদৃশ্য রেখে বাংলাদেশ ও দেশের জনগণকে নিয়ে ব্যঙ্গ করেছেন। কাল্পনিক অভিযোগ তুলে দেশের জনগণকে দোষারোপ করে বলেছেন, বাটপার। এই ‘বাটপার’ বলার পেছনে অদ্বিতীয় কারণ হলো, জনগণের বিএনপি-জামায়াতকে সমর্থন না দেয়া এবং নিজেদের বাটপারি ও প্রতারণা লুকানো।

মিনার রশীদের লেখার যৌক্তিকতা নিয়েও যথেষ্ট প্রশ্ন রয়েছে। কারণ, ধ্বংসাত্মক সব কাজের জন্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জনগণ বিএনপি-জামায়াত থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়। এতে ভরাডুবি হয় তাদের। কিন্তু জামায়াত-বিএনপি মতাদর্শের মিনার তা কোনভাবেই মানতে নারাজ। এমনকি ঢাকা-১৮ আসনের নির্বাচনে বিএনপির শোচনীয় পরাজয়ের পর রাজধানীতে ৯টি বাসে আগুন দেয়ার বিষয়টিকেও তিনি লেখনীর মাধ্যমে সরকারের ঘাড়ে চাপানোর অপচেষ্টা করেছেন। অথচ দেশবাসী জানে যুবদলের নেতা-কর্মীরা বাসে আগুন দিয়েছেন, যা প্রমাণিত।

এ ব্যাপারে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, বিএনপি-জামায়াত হলো গুজবের কারখানা। মাঠের রাজনীতিতে পরাজিত বিএনপি এখন মেতেছে মিথ্যাচার ও গুজব ছড়াতে। তাই বেছে বেছে তারা কিছু উচ্ছিষ্টভোগী কথিত সাংবাদিকদের ভাড়া করে তাদের দিয়ে ‘মনগড়া’ গল্প লিখে প্রচার করছে।

রাজনৈতিক এই বিজ্ঞজনরা আরও বলেন, জনগণকে বাটপার বলার অধিকার মিনার রশীদের নেই। তিনি এমনটা কোন ভাবেই বলতে পারেন না। তার এই দুঃসাহসের কারণ ফেরারি আসামি ও দুর্নীতির বরপুত্র তারেক রহমান। তার ইশারাতেই বিএনপি-জামায়াত দেশকে জঙ্গিরাষ্ট্রে পরিণত করেছিল। ফলশ্রুতিতে জনগণ তাদের বর্জন করে। সেই তারেকই এখন পুরনো রূপে ফিরতে ও জনগণের উপর প্রতিশোধ নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। ‘মোটা অংকের’ টাকায় ভাড়া করেছেন মিনার রশীদের মতো নীতি-নৈতিকতা বর্জিত সাংবাদিকদের। তাই দেশবিরোধী এই চক্রটিকে রুখে দিতে সরকারের পাশাপাশি দেশের জনগণকেও সতর্ক থাকতে হবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি