শুক্রবার ১৫ জানুয়ারী ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » বিএনপির দায়িত্ব থেকে মুক্তি চান তারেক রহমান



বিএনপির দায়িত্ব থেকে মুক্তি চান তারেক রহমান


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
11.01.2021

নিউজ ডেস্ক : দীর্ঘ ১৪ বছর ক্ষমতার বাইরে বিএনপি। এ ১৪ বছরে ব্যর্থতা ছাড়া কোনো প্রকারের সফলতার মুখ দেখেনি তারা। বিষয়গুলো বিবেচনা করে, আক্ষেপ থেকে অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে না পারায় দল থেকে সরে যেতে চাইছেন বিএনপি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির একাধিক সিনিয়র নেতার সঙ্গে কথা বলে এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গিয়েছে।

বিএনপির সিনিয়র নেতাদের মতে, ২০১৬ সালের পর থেকেই তৃণমূল নেতারা তারেক রহমানের ওপর থেকে আস্থা হারিয়ে ফেলেছেন। বেগম জিয়ার মুক্তি আদায়, সরকারবিরোধী আন্দোলন গড়ে তুলতে ব্যর্থ হওয়ায় দলের বিভিন্ন পর্যায়ের অনেক নেতাই তারেক রহমানের ওপর অসন্তুষ্ট।

এছাড়া দলের স্বার্থে কিংবা নিজের স্বার্থে তিনি যে সকল সিদ্ধান্ত দলের উপর চাপিয়ে দিচ্ছেন তার সকলগুলোই বিএনপির বিপক্ষে যাচ্ছে বলে মনে করছেন দলটির নেতারা। এমতাবস্থায় দল পরিচালনায় ব্যর্থতার বিষয়টি মাথায় রেখে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের পদ থেকে সরে দাঁড়াতে চাচ্ছেন তারেক রহমান।

তারেক রহমানের পদত্যাগের বিষয়ে চলমান গুঞ্জনের বিষয়ে জানতে চাইলে পরিচয় গোপন রাখার শর্তে একজেন রাজনৈতিক বিশ্লেষক বলেন, বিএনপির চরম দুর্দশার জন্য দায়ী একমাত্র তারেক রহমান। নির্বাচনকালীন সময়ে তিনি লন্ডনে বসে কলকাঠি নেড়ে বিএনপির চরম ক্ষতি করেছেন। তারেক রহমানের রাজনৈতিক অদূরদর্শিতার জন্য একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি মাত্র ৬টি আসনে জয়ী হতে পেরেছে। উক্ত ৬ আসনে জয়ী হওয়াটা বিএনপির জন্য গ্লানিকর অভিজ্ঞতা।

তিনি আরো বলেন, এছাড়া তারেক রহমানের লোভের পরিমাণ অত্যন্ত বেশি। নির্বাচনকালীন সময়ে তারেক দেশীয় এজেন্টদের মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা লন্ডনে পাচার করেছেন। সে সময়ে মনোনয়ন বাণিজ্য এতটাই অসহনীয় এবং অগ্রহণযোগ্য হয়ে পড়ে যার কারণে খোদ দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পর্যন্ত পদত্যাগ করারও হুমকি দিয়েছিলেন। তারেক রহমানের এমন ব্যবহার সহ্য করতে না পেরে পদত্যাগ করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মোরশেদ খান এবং দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য মাহবুবুর রহমান। তারেক রহমানের এমন ব্যবহার বন্ধ না হলে, একে একে সকলেই দল থেকে পদত্যাগ করবে। এর চেয়ে তিনি নিজে বিষয়টি বুঝতে পেরে যে দল থেকে সরে যাচ্ছেন, তাও একটি শুভ চিন্তা।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি