সোমবার ২৫ জানুয়ারী ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » তারেক রহমানকে ‘চেয়ারম্যান’ বলে ডাক ফখরুলের, নেপথ্য কারণ কী?



তারেক রহমানকে ‘চেয়ারম্যান’ বলে ডাক ফখরুলের, নেপথ্য কারণ কী?


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
12.01.2021

নিউজ ডেস্ক: বিএনপির জাতীয় কাউন্সিল আসন্ন। চারদিকে ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে দৌঁড়ঝাঁপ। পিছিয়ে নেই দলটির বর্তমান মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও। যারই প্রমাণ মিললো সোমবার (১১ জানুয়ারি) এক ফেসবুক লাইভে। লাইভের এক পর্যায়ে মির্জা ফখরুল বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও লন্ডনে পলাতক ফেরারি আসামি তারেক রহমানকে ‘চেয়ারম্যান’বলে সম্বোধন করায় রাজনৈতিক মহল ও দলের ভেতর রীতিমত প্রশ্নের জন্ম দিয়েছে। বিএনপির একাংশের দাবি, ভয় পেয়ে তারেক রহমানকে চেয়ারম্যান বলেছেন তিনি। আরেক অংশ বলছে, নিজের পদ টিকিয়ে রাখতেই বিএনপি মহাসচিবের এই কৌশল অবলম্বন।

দায়িত্বশীল সূত্রের তথ্যমতে, অনেকদিন ধরেই বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে কোন যোগাযোগ রাখছেন না বিএনপি নেত্রীর ‘আস্থাভাজন’ ফখরুল। এমনকি তার ফোনও ধরছেন না বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। প্রথমে বিষয়টিকে স্রেফ ‘মান-অভিমান’র পর্যায়ে সবাই বিবেচনা করলেও সোমবার (১১ জানুয়ারি) পাল্টালো ধারণা। এ দিন বিএনপি আয়োজিত এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় তিনি বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে হঠাৎ ‘চেয়ারম্যান’ বলে সম্বোধন করেন। এতে উপস্থিত সবাই তাজ্জব বনে যান।

শুধু তাই নয়, অনুষ্ঠান শেষে বিষয়টি বনে যায় আলোচনার কেন্দ্র। বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতাদের একাংশের মন্তব্য, সামনে দলীয় কাউন্সিল বলেই নিজ স্বার্থে খোলস বদলাতে শুরু করেছেন খালেদাপন্থী ফখরুল। এ কারণে ‘প্রিয় ম্যাডাম’কে রেখে এখন মজেছেন তারেকের চরকায় তেল দিতে। কারণ, মহাসচিব হিসেবে তারেকের ‘অদ্বিতীয়’ পছন্দ দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। এ কারণে ফখরুল খেইহারা হয়ে তারেককে ভারমুক্ত করে রীতিমত ‘চেয়ারম্যান’ বলে সম্বোধন করেছেন ভার্চুয়াল আলোচনায়। তবে এতে তারেকের ‘ভুলে যাওয়া’ ঠিক হবে না। কারণ, ফখরুলের উদ্দেশ্য অসৎ।

অপরদিকে খালেদাপন্থী বিএনপির আরেক অংশ বলছে, ঘাবড়ে গিয়েই মূলত ফখরুল এমন আচরণ করেছেন। এটা স্রেফ ‘স্লিপ অফ টাং’ বৈ অন্যকিছু নয়। যারা এর অন্য অর্থ খুঁজছেন, তারাই দলে বিভক্তি সৃষ্টির পাঁয়তারায় আছেন। এবং এই অংশটাই বরাবরই বিএনপির খারাপ চেয়ে এসেছে। এ কারণে নানা ইস্যুতে তারা ‘তিলকে তাল’ বানিয়ে উপস্থাপন করে গোলযোগ সৃষ্টির অপচেষ্টা করেছেন। এদের থেকে শতভাগ দূরে থাকাই শ্রেয়।

এ ব্যাপারে বাংলা নিউজ ব্যাংকের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয় মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সঙ্গে। তিনি অকপটে এই প্রতিবেদককে জানান, এটা অনিচ্ছাকৃত ভুল। মুখ ফসকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের জায়গায় চেয়ারম্যান বেরিয়ে গেছে। এর জন্য তিনি অনুতপ্ত। বিষয়টিকে এখানেই শেষ করে এর অপব্যাখ্যা না করারও অনুরোধ জানান তিনি।

তবে রাজনৈতিক বিজ্ঞজনরা বলছেন ভিন্ন কথা। তাদের ভাষ্য, পদচ্যুতি থেকে মুক্তি পেতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাপের মতো খোলস বদলেছেন। এ কারণে এখন তারেক রহমানকে খুশী করতে তাকে দলের ‘চেয়ারম্যান’ বলে ডাকছেন। এ থেকে সহজেই অনুমেয়, তিনি কৌশলে বোঝাতে চাইছেন ‘খালেদা মাইনাস, তারেক ইন’।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি