বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১
  • প্রচ্ছদ » other important » ছাত্র অধিকার পরিষদের অভ্যন্তরেই সৃষ্টি হয়েছে মতপার্থক্য



ছাত্র অধিকার পরিষদের অভ্যন্তরেই সৃষ্টি হয়েছে মতপার্থক্য


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
17.01.2021

নিউজ ডেস্ক: বিএনপি-জামায়াতের রাজনৈতিক এজেন্ডা বাস্তবায়নে নুরুল হক নুর ‘পেইড এজেন্ট’ হিসেবে ভূমিকা পালন করছেন। রাজনৈতিক দল গঠন নিয়ে খোদ ছাত্র অধিকার পরিষদের অভ্যন্তরেই সৃষ্টি হয়েছে মতপার্থক্য।

ছাত্র অধিকার পরিষদের একটি সূত্র জানায়, সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কার আন্দোলনের বদৌলতে পরিচিতি পান নুরুল হক নুর। সেই পুঁজি দিয়ে মানুষের অধিকার আদায়ের নামে নতুন দল গঠনের ঘোষণা দেন তিনি। আর তার নতুন দল গঠনের লক্ষ্য বাস্তবায়নের জন্য লন্ডনে পলাতক বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ব্যয়ভার গ্রহণ করেছেন।

সূত্র আরো জানায়, বিএনপি-জামায়াত তাদের অতীতের দুর্নীতি ও অপশাসন দ্বারা জর্জরিত থাকায় জনগণের কাছে কোনো পাত্তা পাচ্ছে না। নুরুল হক নুর কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িত না থাকার কারণে তাকে আর্থিক বিনিময়ে কাজে লাগাচ্ছে বিএনপি-জামায়াত চক্র। এরই মধ্যে আর্থিক লেনদেনের জন্য ছাত্র অধিকার পরিষদের ভেতরে মতানৈক্য সৃষ্টি হয়েছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ছাত্র অধিকার পরিষদের এক নেতা বলেন, নুরুল হক নুরের কথা আমরাও এক সময় বিশ্বাস করেছিলাম। নতুন রাজনৈতিক দল গঠনের বিষয়ে আমরাও সহমত পোষণ করেছিলাম। কিন্তু দল গঠনের বিষয়ে তারেক জিয়াসহ বেশ কয়েকজন বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশি রাজনৈতিক নেতার সম্পৃক্তা মেলে। ফলে আমরা বিতর্কিত কোনো রাজনৈতিক দল গঠনের পক্ষে আর নেই। নুরুল হক নুর নৈতিকতা হারিয়ে বিএনপি-জামায়াতের পেইড এজেন্ট হতে পারেন কিন্তু আমরা হতে পারব না।

ছাত্র অধিকার পরিষদের আরেকটি সূত্র জানায়, নুরুল হক নুর মধ্যবিত্ত পরিবারের সন্তান। তিনি ডাকসু ভিপি হওয়ার পরেই ‘আঙুল ফুলে কলা গাছ’ হয়েছেন। নিজের পোশাক-পরিচ্ছেদ ঠিক রেখে তিনি বদলে ফেলেছেন জীবনযাত্রার ধরন। ভিপি পরিচয় তাকে অনেক সুবিধা পেতে সহায়তা করেছে। নুর যেখানেই লাভের সন্ধান পান, সেখানেই সরকারবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়েন।

সূত্র আরো জানায়, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশনা মোতাবেক নুর রাজনৈতিক দল গঠন করতে চান। এতে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু, নাগরিক ঐক্যের মাহমুদুর রহমান মান্না ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর সহায়তা থাকবে। মূলত নুরের দলটি হবে বিএনপির ব্যাকআপ রাজনৈতিক সংগঠন।

বিশিষ্টজনদের মতে, সস্তা জনপ্রিয়তা পেয়ে নুর নিজের স্বার্থ হাসিলে মশগুল। অতীত কর্মকাণ্ডে প্রমাণিত হয়েছে যে, স্বার্থ ছাড়া এক পা-ও সামনে অগ্রসর হন না ভিপি নুর। কারণ বিভিন্ন ইস্যুতে তিনি বিএনপি-জামায়াতের হয়ে সরকারবিরোধী নানা কথাবার্তা বলেন। যেগুলো বিভিন্ন গণমাধ্যমেও এসেছে। এখন নতুন রাজনৈতিক দল গঠন বিএনপি-জামায়াতের স্বার্থসিদ্ধির পথ তৈরি ছাড়া অন্যকিছু নয়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি