বৃহস্পতিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » সমন্বয়হীনতার কারণে একের পর এক বৈঠক বাতিল হচ্ছে বিএনপির



সমন্বয়হীনতার কারণে একের পর এক বৈঠক বাতিল হচ্ছে বিএনপির


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
18.01.2021

নিউজ ডেস্ক : ২০০৬ সালে ক্ষমতা থেকে সরে যাবার পর থেকে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারে নি বিএনপি। বছর যতো গেছে বিএনপি ততো নিথর হয়ে পড়ছে। ২০০৮-১০ এর দিকে বিএনপি দু’একটা সম্মেলন করতে পারলেও পরবর্তীতে তারা শুধু প্রেস বিফ্রিং এর মধ্যেই সীমাবদ্ধ হয়ে পড়ে। আর করোনা ভাইরাস আসার পর থেকে প্রেস ব্রিফিং সংকুচিত হয়ে তা শুধু ইন্টারনেটের জুম মিটিং এর মধ্যে সীমাবদ্ধ হয়ে পড়েছে।

তবে বিপত্তি ঘটছে তখন যখন জুম মিটিংয়ের বৈঠকও নেতাদের অনুপস্থিতির কারণে একের পর এক বাতিল করে দিতে হচ্ছে বিএনপির।

জানা গেছে, সিনিয়র নেতাদের রাজনৈতিক অনুষ্ঠানের সূচিতে অমিল ও একই বিষয় নিয়ে বার বার কথা বলতে বলতে বিরক্ত হয়ে ১৬ জানুয়ারির রাতের জুম মিটিং স্থগিত করে দেয় দলটি।

বিএনপির নয়াপল্টন পার্টি অফিস সূত্রে জানা গেছে, ইন্টারনেটের জুম মিটিংয়ে দেশের চলমান পরিস্থিতিতে বিএনপিকে সম্পৃক্ত করে গণআন্দোলন গড়ে তোলার বিষয়েও সিদ্ধান্ত দেয়ার কথা ছিলো। কিন্তু দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যরা রাজনৈতিক সভা, সেমিনার ও পারিবারিক অনুষ্ঠানের অজুহাতে বৈঠকে উপস্থিত হতে পারবেন না বলে খবর দিলে বৈঠক বাতিল করা হয়। দেশের সংকটময় পরিস্থিতিতে সভা-সেমিনার ও ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানের অজুহাতে বাসায় বসে দলীয় জুম মিটিং বর্জন করাটাকে ভালো চোখে দেখছেন না দলটির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা। সিনিয়র নেতাদের সমন্বয়হীনতা ও ব্যক্তিস্বার্থ লাভের আশায় বিএনপির রাজনৈতিক অধঃপতন ঘটছে বলেও মনে করছেন দলটির নেতৃবৃন্দ।

এ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য কিছুটা ক্ষোভ নিয়েই বলেন, সত্যি বলতে বিএনপির রাজনীতি প্রেস ব্রিফিং, সেমিনার কেন্দ্রিক হয়ে পড়েছিলো, এখন তার পরিধি আরো ছোট হয়ে কম্পিউটারের মধ্যে ঢুকে পড়েছে। মূলত সমন্বয়হীনতা, ব্যক্তি সুবিধার রাজনীতি করার কারণে বিএনপি নেতারা আজকে দলবিমুখ হয়ে উঠেছেন। বিষয়টি দুঃখজনক। বিএনপিকে বাঁচাতে হলে নেতাদের স্বার্থহীন ও নিবেদিত হতে হবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি