সোমবার ১ মার্চ ২০২১



তারেকের কারণেই বিএনপিকে ট্রল করে মানুষ


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
22.01.2021

নিউজ ডেস্ক: বিএনপির আজকের এই অধঃপতনের জন্য ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকেই দায়ী করেছেন দুই সিনিয়র নেতা মির্জা আব্বাস ও গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তাদের মতে, তারেকের কারণেই বিএনপিকে নিয়ে ট্রল করছে সাধারণ মানুষ।

সম্প্রতি বিএনপির স্থায়ী কমিটির এ দুই সদস্যের ফোনালাপে এমন কথাই উঠে এসেছে বলে জানিয়েছে দলের এক গোপন সূত্র।

সূত্র মতে, ঢাকা-১৮ আসনের মনোনয়ন বাণিজ্য, বিতর্কিত প্রার্থী বাছাই ও দলীয় মহাসচিবের বাসায় ইট-পাটকেল ও ডিম নিক্ষেপের ঘটনায় বিএনপি ও তারেক রহমানের বিষয়ে এমন আলোচনা করেছেন দলের দুই শীর্ষ নেতা। গত ১০ অক্টোবর রাতে মির্জা আব্বাসকে ফোন দিয়ে এসব আলোচনা করেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

এ সময় উপস্থিত এক নেতার বরাতে গোপন সূত্রটি জানায়, ঢাকা-১৮ আসনে নিজের প্রার্থী কফিল উদ্দিন মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়ায় মনের ক্ষোভ প্রকাশ ও অভিজ্ঞতা বিনিময় করতে মির্জা আব্বাসের সঙ্গে কথা বলেন গয়েশ্বর।

মির্জা আব্বাসকে গয়েশ্বর বলেন, তারেক রহমান যোগ্য, আস্থাভাজন ও পরীক্ষিত নেতাদের মূল্যায়ন করেন না। খালেদা জিয়ার সময়ে গোপনে ও খুব অল্প পরিসরে মনোনয়ন বাণিজ্য হলেও তারেক সেটিকে প্রাতিষ্ঠানিক ও প্রকাশ্য রূপ দিয়েছেন। মনোনয়ন বাণিজ্যের কারণে অযোগ্য প্রার্থীরা মূল্যায়িত হচ্ছেন। আর যোগ্য ও পরীক্ষিতরা অগোচরেই থেকে যাচ্ছেন।

সূত্র মতে গয়েশ্বর আরো বলেন, মনোনয়ন বাণিজ্যের কারণে বিএনপিতে বিভেদ ও কোন্দল বাড়ছে। আর এই তারেক রহমানের কারণেই বিএনপিকে নিয়ে ট্রল করছে নতুন প্রজন্ম। একজনের অপরাধের কারণে পুরো দলটি আজ কলঙ্ক বয়ে বেড়াচ্ছে।

তারেক রহমানকে অকালপক্ব উল্লেখ করে গয়েশ্বর বলেন, তারেকের মতো অকালপক্ব ও অপরিণত নেতার অধীনে রাজনীতি করা মানে নিজের গালে নিজেই জুতা মারার সমান। বিএনপিকে বাঁচাতে অচিরেই তারেক রহমানের অপসারণ দরকার।

সূত্র থেকে আরো জানা যায়, গয়েশ্বরের কথায় সায় দিয়ে কথোপকথনের এক পর্যায়ে মির্জা আব্বাসও দলের দুর্গতির জন্য তারেক রহমানকে দায়ী করেন। বিদেশ থেকে মোড়লগিরি বন্ধ করে দেশেই কাউকে দলের নির্বাহী প্রধান বানানোর পক্ষেও মত দেন আব্বাস।

এ সময় তারেকের ক্রমাগত চাঁদাবাজির বিষয়েও নিজের অসহায়ত্বের কথা বলেন এই নেতা। খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিতে গয়েশ্বর চন্দ্রকে পরামর্শ মির্জা আব্বাস দিয়েছেন বলে সূত্রটি জানায়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি